Inqilab Logo

শনিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২১, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৮ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

টি২০ বিশ্বকাপ কখন কোথায় কীভাবে দেখবেন

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৭ অক্টোবর, ২০২১, ২:১৩ পিএম

শুরু হয়ে গেলো টি২ দামাকা। মরুর বুকে ক্রিকেট তারকাদের মিলনমেলা বসেছে। এবার পালা দর্শকেদের। টেস্টের পর দর্শকদের বিনোদনে নতুন মাত্রা এনে দেয় ওয়ানডে। কিন্তু সময়ের বিবর্তনে এখন ৫০ ওভারের ফরম্যাটের চেয়েও বেশি জনপ্রিয় টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট। রোববার (১৭ অক্টোবর) শুরু হচ্ছে সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটের বিশ্বকাপের সপ্তম আসর।

কুড়ি ওভারের ক্রিকেটের ইতিহাস খুব বেশি দিনের নয়। ২০০৩ সালের ১৩ জুন আনুষ্ঠানিক টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলা হয় ইংল্যান্ডে। আর ২০০৫ সালের ১৭ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত হয় বিশ্বের প্রথম আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ম্যাচ। অকল্যান্ডের ইডেন পার্কে অনুষ্ঠিত ওই ম্যাচে অস্ট্রেলিয়া নিউজিল্যান্ডকে ৪৪ রানে হারায়।

২০০৭ সালে যাত্রা শুরু টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের। এ আসরে অংশ নেয় বাংলাদেশ। প্রথম ম্যাচেই ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ৬ উইকেটে জয় পায় লাল-সবুজরা। শেষ আটে ওঠে সাকিব-মুশফিকরা। এ আসরটিই টাইগারদের কাছে স্মরণীয় হয়ে থাকবে।

২০০৯ সালের আসরটাকে টাইগারদের জন্য অভিশাপই বলা যায়। গ্রুপ ‘এ’তে ভারতের কাছে ২৫ রানে ও আয়রল্যান্ডের কাছে ৬ উইকেটে হারে বাংলাদেশ। কোনো ম্যাচে জয় না পেয়ে গ্রুপ পর্ব থেকেই বিদায় নেয় লাল-সবুজরা।

২০১০ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আসরটিও ভালো কাটেনি বাংলাদেশের। বিদায় নিতে হয় গ্রুপ পর্ব থেকেই। একই অবস্থা হয় ২০১২ সালের আসরেও। এ আসরেও নিউজিল্যান্ড ও পাকিস্তানের কাছে হেরে গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নেয় বাংলাদেশ।

২০১৪ সালে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আয়োজক ছিলে বাংলাদেশ। নিজের মাঠে প্রথম রাউন্ডে তিন ম্যাচের দুই ম্যাচে জয় পেয়ে দ্বিতীয় রাউন্ডে ওঠে। তবে দ্বিতীয় রাউন্ড ভাল হয়নি টাইগারদের চার ম্যাচ খেলে এক ম্যাচেও জয়ের দেখা পায়নি।

২০১৬ সালের আসরেও একই অবস্থা হয় টাইগারদের। প্রথম রাউন্ডে তিন ম্যাচের দুই ম্যাচে জয় পেয়ে দ্বিতীয় রাউন্ডে ওঠে। দ্বিতীয় রাউন্ডের সবকয়টি ম্যাচ হেরে বিদায় নেয় সবশেষ আসর থেকে।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সপ্তম আসরের বাছাই পর্ব তথা প্রথম পর্বে বাংলাদেশ রয়েছে ‘বি’ গ্রুপে। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের দলের প্রথম ম্যাচ ১৭ অক্টোবর স্কটল্যান্ডের সঙ্গে। দ্বিতীয় ম্যাচ ১৯ অক্টোবর ওমানের বিপক্ষে। তৃতীয় ম্যাচ ২১ অক্টোবর পাপুয়া নিউগিনির বিপক্ষে।

গ্রুপ ‘এ’তে থাকা আয়ারল্যান্ড, নেদারল্যান্ডস, শ্রীলঙ্কা ও নামিবিয়া আবুধাবিতে নিজেদের প্রথম ম্যাচ খেলবে ১৮ অক্টোবর।

প্রথম পর্বের আট দল থেকে চারটি দল যাবে মূল পর্বে। সুপার টুয়েলভ পর্বের ‘এ’ গ্রুপে রয়েছে ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা, ওয়েস্ট ইন্ডিজ। বাছাই পর্ব শেষে যোগ দেবে ‘এ’ গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন ও ‘বি’ গ্রুপ রানার্সআপ।

অন্যদিকে ‘বি’ গ্রুপে রয়েছে ভারত, পাকিস্তান, নিউজিল্যান্ড, ও আফগানিস্তান। বাছাই পর্ব শেষে যোগ দেবে ‘বি’ গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন ও ‘এ’ গ্রুপ রানার আপ।

বিশ্বকাপের ম্যাচগুলো সরাসরি সম্প্রচার করবে বিটিভি, গাজী টিভি, টি-স্পোর্টস, স্টার স্পোর্টস ১ ও ২ এবং পিটিভি স্পোর্টস। ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মেও দেখা যাবে ম্যাচগুলো। র‌্যাবিট হোল বিডি’র ইউটিউব, মাইজিপি ও বায়োস্কোপ অ্যাপে উপভোগ করা যাবে ম্যাচগুলো।

যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থানরত ক্রিকেটপ্রেমীরা উইলো এক্সট্রায় চোখ রাখতে পারবেন। যুক্তরাজ্যে স্কাই স্পোর্টস ক্রিকেটে দেখা যাবে ম্যাচগুলো। মধ্যপ্রাচ্যে ক্রিকলাইফ ম্যাক্সে সম্প্রচার করা হবে।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন