Inqilab Logo

রোববার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৯ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

তিনদিন অতিবাহিত হলেও মাগুরা ৪ খুনে মামলা হয়নি

স্টাফ রিপোর্টার, মাগুরা থেকে | প্রকাশের সময় : ১৮ অক্টোবর, ২০২১, ১২:০৩ এএম

মাগুরা সদর উপজেলার জগদল গ্রামে ৪ খুনের ঘটনায় লুটপাট ও হামলার ভয়ে এলাকা পুরুষশূন্য হয়ে পড়েছে। অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন থাকলেও জানমালের ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কায় অনেকেই ঘরের মূল্যবান আসবাবপত্র নিয়ে নিরাপদ স্থানে সরে পড়ছেন।
এদিকে মাগুরায় নির্বাচনে প্রার্থীতা এবং সামাজিক দলাদলি নিয়ে একই দিনে ৪ জন হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় তিনদিন পার হলেও এ ঘটনায় থানায় কোনো মামলা হয়নি। তবে গত শনিবার বিকাল ৫টার পর ময়নাতদন্ত শেষে লাশ নিহতদের পরিবারের কাছে বুঝিয়ে দেয়া হয় এবং তাদের দাফন কাজ শেষ হয়।
এলাকাবাসী জানান, জগদল গ্রামে জগদল ইউনিয়নের বর্তমান ইউপি মেম্বার নজরুল ইসলামের ব্যাপক প্রভাব রয়েছে। ২০১৬ সালের ইউপি নির্বাচনের পূর্বে তিনি ওয়ার্ড বিএনপিসাধারণ সম্পাদক ছিলেন। কিন্তু বিগত নির্বাচনে সৈয়দ রফিকুল ইসলাম নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচিত হওয়ার পর নজরুল মেম্বার বিএনপির রাজনীতিতে নিস্ক্রিয় হয়ে রফিক চেয়ারম্যানের সাথে থাকা শুরু করেন।
অন্যদিকে দক্ষিণ জগদল গ্রামের প্রভাবশালী মাতবর সবুর মোল্লা ও তার সমর্থকরাও অতীতে বিএনপির রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকলেও পরে স্থানীয় আ.লীগের রাজনীতির সঙ্গে মিশে যান।
স্থানীয়রা জানান, আসন্ন ইউপি নির্বাচনে দক্ষিণ জগদল গ্রামের প্রভাবশালী মাতবর সবুর মোল্লা ও তার সমর্থকরা বর্তমান চেয়ারম্যান রফিক এবং নজরুল মেম্বারকে ছেড়ে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী জাহিদ হাসান এবং অপর মেম্বার প্রার্থী সৈয়দ আলীকে সমর্থন দিয়েছেন। এ ঘটনা নিয়ে গত কয়েক দিন ধরেই এলাকায় বেশ উত্তেজনা চলছিল, যার ধারাবাহিকতায় গত শুক্রবার সবুর মাতবরদের ওপর হামল, সংঘর্ষ ও হতাহতের ঘটনা ঘটে। মাগুরার পুলিশ সুপার মো. জহিরুল ইসলাম জানান, পুলিশ মোতায়েনের পর নতুন করে কোন হামলা বা লুটপাটের ঘটনা ঘটেনি। ঘটনার সাথে জড়িতদের আটক ও এলাকায় শান্তি প্রতিষ্টার জন্য পুলিশ তৎপরতা অব্যাহত রেখেছে। তিনি বলেন কঠোর নজরদারী রাখা হয়েছে এলাকায়।
এ বিষয়ে মাগুরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মঞ্জুুরুল ইসলাম জানান, এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। পরিস্থিতি পুরোপুরি পুলিশের নিয়ন্ত্রণে আছে। গ্রামের মানুষ মালামাল নিয়ে বাড়ি ছেড়ে চলে যাওয়ার ঘটনা সত্য নয়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন