Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৪ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

বোলিংয়ে জিশানর রেকর্ড

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৮ অক্টোবর, ২০২১, ১২:০১ এএম

বোলিংয়ে এসেই প্রতিপক্ষ অধিনায়কের ঝড়ের মুখে পড়েন জিশান মাকসুদ। পরে অবশ্য দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়ান ওমান অধিনায়ক। চার উইকেট নিয়ে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে গড়েন দারুণ এক কীর্তি। পাপুয়া নিউগিনির বিপক্ষে টুর্নামেন্টের উদ্বোধনী ম্যাচে টস জিতে ফিল্ডিং নিয়ে বল হাতে আলো ছড়ান জিশান। ঘাসের ছোঁয়া থাকা উইকেটে ৪ ওভারে ২০ রান দিয়ে নেন ৪ উইকেট।
টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ইতিহাসে অধিনায়কদের সেরা বোলিংয়ের রেকর্ডে তিনি বসেন ড্যানিয়েল ভেটোরির পাশে। ২০০৭ আসরে ভারতের বিপক্ষে এই কীর্তি গড়েছিলেন নিউ জিল্যান্ডের কিংবদন্তি স্পিনার। তবে এদিন ওমান অধিনায়কের শুরুটা মোটেও ভালো ছিল না। বাঁহাতি এই স্পিনার ত্রয়োদশ ওভারে আক্রমণে এসে শেষ দুই বলে আসাদ ভালার চার-ছক্কায় দেন ১১ রান।

ষোড়শ ওভারে ফিরে করেন দুর্দান্ত বোলিং। ওই ওভারেই ১ রান দিয়ে নেন তিন উইকেট। প্রথম বলেই দারুণ ডেলিভারিতে বোল্ড করে দেন নরমান ভানুয়াকে। এক বল পর রিভার্স সুইপ খেলে থার্ড ম্যানে সহজ ক্যাচ দেন সেসে বাউ। আর ওভারের পঞ্চম বলে পয়েন্টে ক্যাচ দেন কিপলিন ডরিগা। অষ্টাদশ ওভারে আক্রমণে এসে ডেমেইন রাভু্কে ফিরিয়ে প‚র্ণ করেন ৪ উইকেট; লং অনে ক্যাচ দেন রাভু। সেই ওভার থেকে আসে ৩ রান। আর ইনিংসের শেষ ওভারে ৫ পাঁচ রান দিয়ে শেষ করেন নিজের স্পেল।

প্রথম দুই ওভারে শ‚ন্য রানে দুই উইকেট হারিয়ে শুরুটা খারাপ হলেও অধিনায়ক আসাদ ভালার ৫৬ রানের ইনিংসে ভর করে ৯ উইকেটে ১২৯ রানের পুঁজি গড়ে পাপুয়া নিউগিনি। তবে দুই ওপেনার আকিব ইলিয়াস ও যতিন্দর সিংয়ের ফিফটিতে ভর করে কোনো উইকেট না হারিয়েই জয়ের বন্দরে পৌঁছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশটি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: টি২০ কাপ


আরও
আরও পড়ুন