Inqilab Logo

রোববার, ২২ মে ২০২২, ০৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২০ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

দামেস্কে হামলার প্রথম স্বীকারোক্তি আইএস’র

প্রকাশের সময় : ১২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬, ১২:০০ এএম

ইনকিলাব ডেস্ক : সিরিয়ার রাজধানী দামেস্কে হামলার কথা প্রথমবারের মতো স্বীকার করল  ইসলামিক স্টেট (আইএস)। গত মঙ্গলবার একটি গাড়ি বোমা বিস্ফোরণ ঘটালে পুলিশ অফিসারসহ কয়েকজন নিহত হয় এবং আহত হয় অনেকে। বোমা বিস্ফোরণের পরে প্রত্যক্ষদর্শীর বরাত দিয়ে স্থানীয় সংবাদ সংস্থাগুলো জানায়, উত্তরাঞ্চলের এই শহরটি মূলত নিরাপদ এবং শান্ত ছিল। বিস্ফোরণের কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই আইএস তার অফিসিয়াল মিডিয়া চ্যানেলের মাধ্যমে জানায়, রাজধানীর সাইয়্যেদা জয়নব শিরিন এলাকায় এটা একটা অতর্কিত বিস্ফোরণ ছিল যেখানে এক ডজনের মতো লোক নিহত হয়। গত মঙ্গলবার সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলের নিরাপত্তা বিশিষ্ট সরকার নিয়ন্ত্রিত এলাকায় বিস্ফোরণের ঘটনাটি ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শীর মতে, বড় ধরনের এই বিস্ফোরণে অফিসার্স ক্লাব, যা সরকারি সেনাদের পাশাপাশি লেবাননের হিজবুল্লাহ গ্রুপ থেকে স্বজাতীয় যোদ্ধাদের দ্বারা শক্তিশালী আঘাত ছিল। প্রত্যক্ষদর্শী আরো বলেন, বিস্ফোরণস্থল থেকে ১০০ গজ দূরে তার বাড়ির জানালার কাঁচ ফেটে যায়। এক বিবৃতিতে আইএস জানায়, বোমা বিস্ফোরণের মূল লক্ষ ছিল পুলিশ অফিসার্স ক্লাব। ক্লাবটির রাস্তার উপরে একটি বাড়ির মতো ছিল যেখানে হতাহতের সংখ্যা বেশি হওয়ার আশঙ্কা ছিল। এলাকাবাসী জানায়, বোমাটি ক্লাবের ভিতরে পার্কিং এলাকায় বিস্ফোরিত হয়। তবে, নিহতের সংখ্যা নির্দিষ্টভাবে তখনই জানা যায়নি। সিরিয়ান পর্যবেক্ষণ বিষয়ক মানবাধিকার সংস্থা জানায়, বিস্ফেরণে ৮ জন পুলিশের মৃত্যু হয় এবং আহত হয় ২০ জন। অপরদিকে, সিরিয়ার টেলিভিশন সংবাদ মাধ্যমে ১০ জনের মৃত্যর খবর জানিয়েছে।  এএফপি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: দামেস্কে হামলার প্রথম স্বীকারোক্তি আইএস’র
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ