Inqilab Logo

শনিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২১, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২১ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

মোবাইল ফোন কানে নিয়ে করোনার টিকা প্রদান!

বরগুনা জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৮ অক্টোবর, ২০২১, ৮:৫৭ পিএম

বরগুনায় মোবাইল ফোনে কথা বলতে বলতে দাঁড় করিয়ে করোনা ভাইরাসের এক টিকা প্রত্যাশীকে টিকা প্রদান করা হয়েছে। এ ঘটনার একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন সামাজিক নেতৃবৃন্দ।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সোমবার সকাল সাড়ে দশটার দিকে বরগুনা সদর হাসপাতালের করোনাভাইরাসের টিকাদান কেন্দ্রে এ ঘটনায় ঘটে।

এ ঘটনায় অভিযুক্ত ওই স্বাস্থ্যকর্মীর নাম মোঃ এনামুল কবির। তিনি সম্প্রসারিত টিকাদান কর্মসূচি (ইপিআই) এর মেডিকেল টেকনোলজিস্ট পদে বরগুনায় কর্মরত। মোবাইল ফোনে কথা বলতে বলতে দাঁড় করিয়ে এনামুল কবির যাকে করোনাভাইরাসের টিকা প্রদান করেছেন তার নাম মোঃ হানিফ মোল্লা। তিনি বরগুনা সদর উপজেলার এম. বালিয়াতলী ইউনিয়নের পরীরখাল এলাকার বাসিন্দা।

মোঃ হানিফ মোল্লা বলেন, সোমবার সকাল সাড়ে দশটার দিকে বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে করোনাভাইরাসের টিকার প্রথম ডোজ গ্রহণ করতে যাই। এসময় টিকাদান কেন্দ্রের একজন কর্মী মোবাইল ফোনে কথা বলতে বলতে দাঁড় করিয়ে আমাকে টিকা প্রদান করেন। পরে এ ঘটনার ছবি আমি ফেসবুকে প্রকাশ করি।

তবে তাকে টিকা প্রদানকারী ওই স্বাস্থ্যকর্মীর নাম বলতে পারেননি তিনি। ফেসবুকে প্রকাশ করা ছবিতে দেখা যায় হানিফ মোল্লাকে টিকা প্রদানকারী ওই স্বাস্থ্যকর্মীর হলেন সম্প্রসারিত টিকাদান কর্মসূচি (ইপিআই) এর মেডিকেল টেকনোলজিস্ট মোঃ এনামুল কবির।

এ বিষয়ে সম্প্রসারিত টিকাদান কর্মসূচি (ইপিআই) এর মেডিকেল টেকনোলজিস্ট মোঃ এনামুল কবির বলেন, করোনার টিকা প্রদানের সময় হঠাৎ করে অফিস থেকে আমাকে ফোন দেয়া হয়। তাই অনিচ্ছা সত্ত্বেও আমি ফোনটি রিসিভ করতে বাধ্য হয়েছি।

এ বিষয়ে বরগুনার পাবলিক পলিসি ফোরামের সভাপতি হাসানুর রহমান ঝন্টু বলেন, এত সাধের করোনার টিকা এভাবে প্রদান করা খুবই দুঃখজনক। যেকোনো কাজ একাগ্রতার সঙ্গে করা দরকার। কিন্তু এনামুল কবির যেভাবে করনার টিকা প্রদান করেছেন তা কোনোভাবেই মেনে নেয়া যায় না। এসময় বিষয়টি কর্তৃপক্ষকে গুরুত্বের সঙ্গে দেখার অনুরোধ জানান তিনি।

এ বিষয়ে বরগুনা সিভিল সার্জন ডাঃ মারিয়া হাসান বলেন, বিষয়টি আমি অবগত নই। এ বিষয়টি আমি খোঁজ নিয়ে দেখবো।



 

Show all comments
  • M Faruque ১৮ অক্টোবর, ২০২১, ১০:৩৭ পিএম says : 0
    This is a gross misconduct. This technologist could push anything as he was distracted by the phone. He should be sacked straight away.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বরগুনা


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ