Inqilab Logo

রোববার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৯ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

আমরা সুনিশ্চিত কুমিল্লার ঘটনা সাজানো

সাংবাদিকদের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

বিশেষ সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৯ অক্টোবর, ২০২১, ১২:০২ এএম

কুমিল্লার ঘটনা সুনিশ্চিতভাবে সাজানো বলে উল্লেখ করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। গতকাল সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন। সম্প্রতি দেশে সাম্প্রদায়িক হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনা গোয়েন্দা সংস্থা আগে আঁচ করতে পেরেছিল কি না- এমন প্রশ্নে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমি রংপুরের ঘটনা দিয়ে বলতে চাই, এ ঘটনা উদ্দেশ্যমূলক কি না। কে এটা ঘটিয়েছে সেটা বের করতে একটু সময় দিতে হবে। আমাদের লোক সেখানে কাজ করছে। এ বিষয়ে র‌্যাব, কাউন্টার টেররিজমসহ সবাই কাজ করছে। আমরা ফেসবুকের লিংকগুলো খুঁজে খুঁজে বের করার চেষ্টা করছি।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, রংপুরের পীরগঞ্জে আরেকটি অনাকাঙ্খিত ঘটনা ঘটেছে। ঘটনার সূত্রপাত, এক ছেলে কাবা শরীফ নিয়ে ফেসবুকে একটি পোস্ট দেওয়াকে কেন্দ্র করে। ইচ্ছায় দিক বা অনিচ্ছায় বা উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে হোক স্ট্যাটাস দেওয়া হয়েছে। এ ধরনের ঘটনায় সবাই কষ্ট পেয়েছে। আমাদের পুলিশ প্রশাসন এ ঘটনা আঁচ করে ছেলেটি যেখানে থাকতো সেখানে অভিযান চালায়। তবে ছেলেটিকে পাওয়া যায়নি। সেই গ্রামটি রক্ষার জন্য সেখানে পুলিশ মোতায়েন ছিল। যারা অগ্নিসংযোগ করেছে তারা দুষ্কৃতিকারী। এই দুষ্কৃতকারীরা তখন এই এলাকা ছেড়ে অন্য এলাকায় গিয়ে পীরগঞ্জ থানার রঘুনাথপুর ইউনিয়নের একটি গ্রামের কয়েকটি ঘরে অগ্নিসংযোগ করে। আমার কাছে যে তথ্য এসেছে সেখানে ২৫টি বাড়িতে আগুন দেয়া হয়।

এসব ঘটনার মূল উদ্দেশ্য দেশের শান্তি নষ্ট করা উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমরা খুব শিগগিরই ঘটনাগুলো জেনে যাবো। রামু, ভোলা ও নাসিরনগরে এ ধরনের ঘটনা দেখেছি। এগুলো হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ার অপপ্রচারের মাধ্যমে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে। আমরা প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় বঙ্গবন্ধুর অসাম্প্রদায়িক দেশের স্বপ্নপূরণ করবো। সম্প্রতির মধ্যে ভাঙন সৃষ্টি করতে কুমিল্লার ঘটনা উদ্দেশ্যমূলকভাবে করা হয়েছে বলে জানান মন্ত্রী।

তিনি বলেন, আপনারা কুমিল্লার কথা বলেছেন, এ বিষয়ে আমরা খুব শিগগিরই জানাবো। আমরা এটার খুব কাছাকাছি আছি। অনেকেই না বুঝে অনেক কিছু করে ফেলেছেন। চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে পুলিশ বাধ্য হয়ে ফায়ার ওপেন করেছে, সেখানে চারজন প্রাণ দিয়েছেন। নোয়াখালীতে নামাজ হয়ে গিয়েছিল, মুসুল্লিরা চলে গিয়েছিল, নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা খাবার খাচ্ছিল, এমন সময় কয়েকটি জায়গা থেকে কিছু লোক টিনএজ বয়সের, তারা এসে বিশৃঙ্খলা করেছে।

সরকারকে বেকায়দায় ফেলার জন্য এসব প্রচেষ্টা উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমি আবারও বলছি, কোনো সম্প্রদায়ের লোক অন্য সম্প্রদায়ের একটা ধর্মগ্রন্থ এনে অপমান করবে, এ ধরনের মানসিকতা বাংলাদেশের মানুষের নেই। এসব কেন হচ্ছে, কে করাচ্ছে সেগুলো নিয়ে প্রশ্ন জাগছে, সেটাই আপনাদের সামনে খোলাসা করে জানাতে পারবো। এজন্য আমাদের আরও একটু সময়ের প্রয়োজন। সরকারকে অস্থিতিশীল পরিস্থিতিতে ফেলার জন্য এ ঘটনাগুলো ঘটানো হয়েছে বলে অনুমান করেছেন বলে জানান আসাদুজ্জামান খান কামাল।

তিনি আরো বলেন, রংপুরের ঘটনায় এরই মধ্যে ৪৫ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সারাদেশে অন্যান্য ঘটনায়ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কাজ করছে। নোয়াখালীতে যা ঘটেছে, কুমিল্লায় যা ঘটেছে, হাজীগঞ্জে যা ঘটেছে, এগুলো আমরা এক সূত্র হিসেবে ধরে নিয়েছি। এগুলোর পেছনে মুষ্টিমেয় কিছু ব্যক্তি রয়েছে। এরই মধ্যে আমরা সন্দেহজনক লোকদের চিহ্নিত ও গ্রেফতার করেছি।

সাম্প্রতিক ঘটনার মধ্যেই নোয়াখালী ও রংপুরে পুলিশ সুপারকে (এসপি) বদলি করা হয়েছে-এ বিষয়ে জানতে চাইলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, নোয়াখালীর এসপিকে বদলি করা হয়েছে আরও দুই মাস আগে। আর রংপুরে এসপিকেও বদলি করা হয়েছে সম্প্রতি। তবে তিনি অসুস্থ ছিলেন এজন্য তার আবেদনে একটু দেরি করা হয়েছে। দুই বছর পর পর পুলিশে বদলি হবে এটা স্বাভাবিক প্রক্রিয়া।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সাংবাদিকদের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ