Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৪ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিজরী

শান্তি প্রতিষ্ঠায় মুহাম্মদ (সা.) এর আদর্শ প্রতিষ্ঠার কোন বিকল্প নেই

পীর সাহেব চরমোনাই মুফতি রেজাউল করীম

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২০ অক্টোবর, ২০২১, ৮:৫৮ পিএম

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর আমীর মুফতি সৈয়দ রেজাউল করীম পীর সাহেব চরমোনাই বলেছেন, আইয়্যামে জাহেলিয়াতের ঘোর অন্ধকারে নিমজ্জিত জাতি। বর্বর বেদুঈন শিক্ষা ও আলো থেকে বঞ্চিত অন্যায় জুলুম ও অনৈতিকতার সয়লাব মানবজাতি। ঠিক এমন সময় অরাজকতার অন্ধকারে আকস্মিকভাবে জ্বলে উঠলো আলোক মশাল। সভ্যতার সূর্যোদয়ের দায়িত্ব নিয়ে ৫৭০ খৃস্টাব্দের ১২ রবিউল আওয়াল পৃথিবীতে আবির্ভূত হলেন সমগ্র মানবজাতির মুক্তির দূত ও জগতবাসীর জন্য রহমতস্বরূপ হযরত মুহাম্মদ (সা.)। তার ছোঁয়ায় নবুওয়াতের মাত্র ২৩ বছরেই আরবরা বিনির্মাণ করলো এক নতুন পৃথিবী। তাই সামাজিক অবক্ষয় রোধ, অন্যায়-জুলুম ও অনৈতিকতার হাত থেকে বাংলাদেশকে রক্ষা করে ইনসাফপুর্ণ, শান্তিময় ও সমৃদ্ধশালী কল্যাণ রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠায় আমাদেরও রাসুল (সা.) এর আদর্শকে অনুসরণ করতে হবে জীবনের সকল ক্ষেত্রে।

তিনি বলেন, পরকালের নাজাতে ব্যক্তি জীবনের সর্বক্ষেত্রে রাসুল (সা.) এর আদর্শ অনুসরণ ও বাস্তবায়ন করাই হচ্ছে প্রকৃত মুমিন মুসলমানের কাজ। রাসুল (সা.) এর জীবনাদর্শ প্রতিষ্ঠা করতে পারলেই সমাজে শান্তি ও সম্প্রীতি গড়ে তোলা সম্ভব।

আজ বুধবার বাংলাদেশ মুজাহিদ কমিটি সবুজবাগ থানা শাখার উদ্যোগে রাজধানীর বাসাবো ঝিলপাড় জামে মসজিদ প্রাঙ্গণে সীরাতুন্নবী সা. মাহফিল ও হালকায়ে জিকিরে প্রধান অতিথির আলোচনায় তিনি এসব কথা বলেন। এতে আলোচনায় অংশ নেন ঢাকা জেলা সদর মুফতী রুহুল আমীন কাসেম ও মাওলানা মুহামম্মদ আবু হানিফ।

পীর সাহেব চরমোনাই বলেন, রাসুল (সা.) যখন মানুষের মধ্যে তাওহীদের দাওয়াত দিয়েছিলেন তখন তার উপরও নেমে এসেছিল অবর্ণনীয় জুলুম-নির্যাতন। তিনি কাফির-মুশরিকদের জুলুম-নির্যাতন ও মুনাফিকদের নানামুখী ষড়যন্ত্রেও সবর ও ইসতিকামাতের মাধ্যমে দ্বীনকে বিজয়ী আদর্শ হিসাবে প্রতিষ্ঠা করতে সক্ষম হয়েছিলেন। এজন্য তাকে শিয়াবে আবি তালিবে দীর্ঘ ৩ বছর অবর্ণনীয় দুঃখ-দুর্দশার মধ্যে কারা নির্যাতন ভোগ করতে হয়েছিল। কিন্তু তিনি কখনও আদর্শ বিচ্যুত হননি বরং সকল বাধা-প্রতিবন্ধকতাকে উপেক্ষা করেই কালেমার পতাকাকে সমুন্নত করেছিলেন। তাই সাম্প্রতিক প্রেক্ষাপটে ইসলামী আন্দোলনের ক্রান্তিকালে চরম ধৈর্য্য, সহনশীলতা, নিষ্ঠা, দূরদর্শিতা ও প্রজ্ঞার সাথে আমাদেরকে অগ্রসর হতে হবে। তিনি ইসলামী আন্দোলনের বিরুদ্ধে যেকোন ষড়যন্ত্র মোকাবেলায় সকলকে ইস্পাত কঠিন ঐক্য গড়ে তুলতে অনুরোধ জানান। তিনি সকলকে ভ্রান্ত মত ও পথ ছেড়ে ইসলামের সুশীতল ছায়াতলে সমবেত হওয়ার আহ্বান জানান।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পীর সাহেব চরমোনাই


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ