Inqilab Logo

শনিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২১, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৮ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

নামিবিয়ার ইতিহাস

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৩ অক্টোবর, ২০২১, ১২:০১ এএম

জিতলেই দ্বিতীয় রাউন্ড; হারলে ধরতে হবে বাড়ি ফেরার পথ। এমন সমীকরণ সামনে রেখে নিজেদের শেষ ম্যাচে মুখোমুখি হয় আয়ারল্যান্ড ও নামিবিয়া। আর মরা বাঁচার এই ম্যাচে আয়ারল্যান্ডকে ৮ উইকেটে হারিয়ে ইতিহাস সৃষ্টি করে প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপের মূলপর্বে পা দিলো নামিবিয়া। দেশটি শুধু সুপার টুয়েলভই নিশ্চিত করেনি, জায়গা করে নিয়েছে আগামী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও। এর আগে আইসিসি জানিয়েছিল, এবার সুপার টুয়েলভে ওঠা দলগুলো ২০২২ টি–টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও খেলবে, আলাদা করে বাছাইপর্ব আর খেলতে হবে না।
গতকাল ১২৬ রানের সহজ লক্ষ্যমাত্রা তাড়া করতে নেমে শুরুটা ভালোই করে নামিবিয়া। একটু ধীরগতির হলেও ২৫ রানের জুটি গড়ে দুই ওপেনার। পাওয়ার প্লেতে ১ উইকেটে ২৭ রান তুলতে সক্ষম হয় নামিবিয়া। এরপর গারহার্ড ইরাসমাস ও জেন গ্রিনের ধীর গতির ব্যাটিংয়ে রান ও বলের ব্যবধানটাও বেড়ে যায়। ৭ ওভারে প্রয়োজন ছিলো ৫৫ রানের। ওই ওভারে জেন গ্রিন ফিরলে ক্রিজে আসেন আগের ম্যাচের নায়ক ডেভিড ভিসে। শেষ ৬ ওভারে দরকার ৪৯ রান! পরপর দুই বলে ২ ছক্কা হাঁকিয়ে ব্যবধান কমিয়ে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেয় নামিবিয়া।
শেষ ৫ ওভারে দরকার ছিলো মাত্র ৩৩ রান। উইসে ও অধিনায়ক ইরাসমাসের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে ৮ উইকেট ও ৯ বল হাতে রেখে সহজেই লক্ষ্যে পৌঁছে যায় নামিবিয়া। একপ্রান্তে অসাধারণ ব্যাটিং করে ইরাসমাস করেন ব্যাক্তিগত হাফ সেঞ্চুরি।
এরআগে টসে জিতে ব্যাট করতে নেমে উড়ন্ত সূচনা করে দুই আইরিশ ওপেনার পল স্টার্লিং ও কেভিন ও’ব্রায়ান। পাওয়ারপ্লেতে দু’জনে মিলে করেন ৫৫ রান! ম্যাচ থেকে ব্যাকফুটে থাকা নামিবিয়াকে ম্যাচে ফেরান স্কহটজ। ২৪ বলে ৩৮ রানে স্টার্লিং ফিরলে প্রথম উইকেটের পতন ঘটে আইরিশদের। এই উইকেটই যেনো ম্যাচের টার্নিং পয়েন্ট। কারণ এরপরই হটাৎ পালটে যায় ম্যাচের চিত্র। পরের ওভারেই আউট কেভিন ও’ব্রায়ানও! ৬৭ রানে ২ উইকেট হারানোর পর ভীত গড়েন অ্যান্ড্রু বালবির্নি ও গ্যারেথ ডিলানি।
কিন্তু ঠান্ডা মেজাজের ব্যাটিংয়ে ৩৪ বলে ২৭ রানের জুটি গড়েন দুজনে! দলীয় ৯৪ রানে ডিলানি ফিরলে শুরু হয় আইরিশদের ব্যাটিং বিপর্যয়। বালবির্নি, কার্টিস ক্যাম্পফার, হ্যারি টেক্টররা ছিলেন আসা যাওয়ার মিছিলে। ডেভিড ভিসে, জান ফ্রাইলিংকদের দাপুটে বোলিংয়ে শেষ ১৪ ওভারে ৮ উইকেটে মাত্র ৭০ রান তুলতে সক্ষম হয় আইরিশরা! নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেটে ১২৫ রান করে আয়ারল্যান্ড।
দলের পক্ষে স্টার্লিং সর্বোচ্চ ৩৮, ও’ব্রায়ান ২৫ ও বালবির্নি করেন ২১ রান। বাকিরা কেউই ছুঁতে পারেননি দুই অঙ্কের কোটা। নামিবিয়ার পক্ষে ফ্রাইলিং ২১ রানে ৩ ও ভিসে ২২ রানে শিকার করেন ২ উইকেট।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: টি২০ কাপ


আরও
আরও পড়ুন