Inqilab Logo

রোববার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৯ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

টোল ফেরির ৩থেকে ৭ গুণ

পায়রা সেতু

বরিশাল ব্যুরো : | প্রকাশের সময় : ২৩ অক্টোবর, ২০২১, ১২:০০ এএম

সদ্য নির্মিত পায়রা সেতুতে বিদ্যমান ফেরি ভাড়ার চেয়ে ৩ থেকে ৭ গুণ বর্ধিত টোল নির্ধারণ নিয়ে দক্ষিণাঞ্চলের পরিবহন সেক্টরে বিরূপ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে। বরিশাল-পটুয়াখালী-কুয়াকাটা জাতীয় মহাসড়কের লেবুখালীতে পায়রা নদীর ওপর কুয়েত, ওপেক এবং বাংলাদেশ সরকারের যৌথ অর্থায়নে প্রায় ১ হাজার ৪৭০ মিটার দীর্ঘ সেতুটির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হচ্ছে আগামীকাল। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১ হাজার ৪৪৭ কোটি টাকায় ব্যয়ে নির্মিত সেতুটির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন। এর ফলে সারাদেশের সাথে পটুয়াখালী ও কুয়াকাটার ফেরিবিহীন দ্রত ও সহজ সড়ক যোগাযোগ নিশ্চিত হতে যাচ্ছে।

কিন্তু সেতুটি পারাপারে যানবাহনের যে টোল নির্ধারণ করা হয়েছে তা নিয়ে ইতোমধ্যে পরিবহন মালিক-শ্রমিকের পাশাপাশি সাধারণ মানুষের মধ্যেও বিরূপ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে। পরিবহন মালিক সংগঠনের কেউ কেউ সেতুটির পাশাপশি ফেরি চালু রাখারও দাবি জানিয়েছেন।

বরিশাল-পটুয়াখালী মিনিবাস মালিক সমিতির মতে, বরিশাল থেকে ৩৮ কিলোমিটার দূরে পটুয়াখালী পর্যন্ত বাসে এখন ৮০ টাকা ভাড়া আদায় করা হয়। সেখানে ৫২ আসনের একটি বাসে পায়রা সেতুতেই ৩৫০ টাকা টোল নির্ধারণ করা হয়েছে। এ মহাসড়কের পটুয়াখালী পর্যন্ত আরো দুটি সেতুতেও টোলসহ পটুয়াখালী পর্যন্ত পৌঁছাতে প্রায় সাড়ে ৭শ’ টাকা টোল দিতে হবে। অথচ বর্তমানে ফেরিতে ভাড়া দিতে হচ্ছে মাত্র ৯৫ টাকা। হেভি ট্রাকের টোল নির্ধারণ করা হয়েছে ৭৫০ টাকা অথচ ফেরির ভাড়া ১শ’ টাকা।

সদ্য নির্মিত সেতুটিতে অন্যান্য যানবাহনেও টোল নির্ধারণ করা হয়েছে ফেরি ভাড়ার তিন থেকে ৭ গুণ পর্যন্ত। ফলে খুব শিগগিরই বিষয়টি নিয়ে পরিবহন সেক্টরে অস্থিরতা সৃষ্টির আশঙ্কা রয়েছে। এমনকি পরিবহন ব্যয় বৃদ্ধির ফলে দক্ষিণাঞ্চলে পণ্য মূল্যের ওপরও বিরূপ প্রভাব পড়ার আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন অনেকেই। পরিবহন মালিক ও শ্রমিকরা ইতোমধ্যে অনানুষ্ঠানিকভাবে হয় সেতুর টোল ফেরি ভাড়ার সাথে সামঞ্জস্য করে নির্ধারণ, অথবা ভাড়া বৃদ্ধির দাবি জানিয়েছে।

বিষয়টি নিয়ে সড়ক ও জনপথ অধিদফতরের পটুয়াখালীর নির্বাহী প্রকৌশলী ও বরিশাল সড়ক জোনের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী কোন কিছু বলতে পারেননি। তাদের মতে, মন্ত্রণালয় থেকে গঠিত কমিটি সেতু ও ফেরির ভাড়া ও টোল নির্ধারণ করে থাকে। এতে স্থানীয়ভাবে কোন কিছু করার নেই বলেও জানান তারা।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ