Inqilab Logo

শনিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২১, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২১ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

ইরানের পর পাকিস্তানেও টিভি সিরিয়ালে আলিঙ্গন দৃশ্য বন্ধের নির্দেশ

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৪ অক্টোবর, ২০২১, ১০:২৩ এএম

‘সমাজের এক বড় অংশের দাবি, এই নাটকগুলিতে পাকিস্তানি সমাজের সঠিক ছবি ফুটে উঠছে না। সেইদিক বিচার করে এবার অশোভন পোশাক, শয্যাদৃশ্য, আলিঙ্গন, চুম্বন, সংবেদনশীল/ বিতর্কিত প্লট ও অপ্রয়োজনীয় দৃশ্য যা অত্যন্ত অস্বস্তিকর সেগুলি থেকে বিরত থাকার নির্দেশ দেওয়া হচ্ছে।’ তাদের দাবি, ‘পাকিস্তানি সংস্কৃতি’র পরিপন্থী হওয়াতেই এগুলি বাদ রাখাতে বলা হচ্ছে।

পাকিস্তানি সংস্কৃতির ‘পরিপন্থী’ বলে এখন থেকে আর আলিঙ্গন দৃশ্য ছোট পর্দায় দেখানো যাবে না। টিভি চ্যানেলগুলোকে এমনই নির্দেশ দিয়েছে পাকিস্তানের ইলেকট্রনিক মিডিয়া রেগুলেটরি অথরিটি বা পেমরা। কর্তৃপক্ষের বক্তব্য, টিভি সিরিয়ালে এই ধরনের দৃশ্য সম্প্রচার নিয়ে তাদের কাছে বহু অভিযোগ জমা পড়েছে, তাই এই সিদ্ধান্ত।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়েছে, আলিঙ্গন, সাহসী পোশাক, শয্যা দৃশ্য কিংবা বিবাহ বহির্ভূত দৃশ্য এবং বিবাহিত যুগলদের মধ্যে ঘনিষ্ঠতার বিষয় ইসলামী শিক্ষা ও পাকিস্তানের সংস্কৃতির পরিপন্থী। পেমরার পক্ষ থেকে সমস্ত টিভি চ্যানেলকে বলা হয়েছে, এবার থেকে কোনও নাটকের সম্প্রচারের আগে তা ইন-হাউস মনিটরিং কমিটিকে দিয়ে যেন পর্যালোচনা করিয়ে নেওয়া হয়।

প্রসঙ্গত, এর আগে ইরানেও ছোটপর্দার অনুষ্ঠানে ফতোয়া জারি করা হয়েছে। সেই অদ্ভুত ফতোয়ায় পরিষ্কার জানানো হয়েছে বেশ কিছু দৃশ্য দেখানো যাবে না টেলিভিশনের অনুষ্ঠানে। তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য মেয়েদের পিজ্জা ( কিংবা স্যান্ডউইচ খাওয়া, পুরুষদের খাবার পরিবেশন-সহ একাধিক দৃশ্য। এছাড়া মহিলাদের লাল রঙের পানীয় সেবনের দৃশ্যও বাদ পড়ছে সেন্সরের কাঁচিতে। এরই পাশাপাশি ফতোয়ায় জানিয়ে দেওয়া হয়েছে রের মধ্যে পুরুষ-মহিলা চরিত্রকে খুব ঘনিষ্ঠ অবস্থা দেখানো যাবে না। ইরানের পরে এবার সেই একই পথে হাঁটল পাকিস্তানও।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পাকিস্তান


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ