Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৪ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিজরী

নারায়ণগঞ্জের বক্তাবলীতে নারী সাংবাদিককে মারধর, মামলা

নারায়ণগঞ্জ থেকে স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৫ অক্টোবর, ২০২১, ৩:০০ পিএম

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় আনন্দ টিভির নারী সাংবাদিক মনি ইসলামকে (২৬) সন্ত্রাসীরা মারধর করেছে। এ সময় তার পেটে লাথি মেরে গুরুতর আহত করে সন্ত্রাসীরা। এক পর্যায়ে নারী সাংবাদিক মনি ইসলামকে রক্ষা করতে গিয়ে আহত হয়েছেন এশিয়ান টিভি চ্যানেল নারায়ণগঞ্জ এর ক্যামেরা পার্সন আবু বক্করসহ দুজন।

শনিবার দুপুরে ফতুল্লার বক্তাবলী আকবর নগর এলাকায় ওই ঘটনা ঘটে। হামলাকারিরা ওই সাংবাদিকদের মোবাইল ফোন, মাইক্রোফোন হ্যান্ডি ক্যামেরা লুটে নিয়ে গেছে। পরে আহত নারী সাংবাদিক আনন্দ টিভি চ্যানেলের ফতুল্লা প্রতিনিধি মনি ইসলাম নারায়ণগঞ্জ শহরের ভিক্টোরিয়া হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন।
চিকিৎসা শেষে তিনি নিজে বাদী হয়ে ফতুল্লা মডেল থানায় হামলাকারিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন। পুলিশ তদন্ত শেষে রোববার এ ঘটনায় নিয়মিত মামলা রুজু করেন।
আহত এশিয়ান টিভির ক্যামেরা পার্সন আবু বক্কর ছিদ্দিক জানান, শনিবার দুপুর দেড়টায় মোটর সাইকেল যোগে আনন্দ টিভির ফতুল্লা প্রতিনিধি নারী সাংবাদিক মনি ইসলাম (২৬) ও স্থানীয় দৈকিন অগ্রবানী প্রতিদিন পত্রিকার সাংবাদিক ওমর ফারুক সৌরভ (৩৭) কে নিয়ে আমরা তিনজন ফতুল্লার বক্তাবলি ইউনিয়ন পরিষদে এলাকার উন্নয়নমূলক কার্যক্রমের সংবাদ সংগ্রহের জন্য যায়। কিন্তু মোটর সাইকেলের চাকা লিক হয়ে যাওয়ায় স্থানীয় একটি গ্যারেজে নিয়ে যাই।
তখন মনি ইসলাম দাঁড়িয়ে বক্তবলী আকবর নগর ১নং ওয়ার্ডস্থ মেইন রোডের পাশে দাঁড়িয়ে ছিলো। সেখানে তাকে দেখে আজেবাজে কথা বলতে ওই এলাকার সামেদ হাজীর ছেলে মূল অভিযুক্ত ওসমান গনিসহ অজ্ঞাত আরও ৭/ ৮ জন। মনি সেই কথার প্রতিবাদ করতে গেলে বিবাদীসহ তার সহযোগিরা ক্ষিপ্ত হয়ে তাদের এলোপাথাড়ি মারধর শুরু করে।
ওই সময় এশিয়ান টিভির ক্যামেরা পার্সন আবু বক্কর সিদ্দিক মনিকে রক্ষা করতে গেলে ওসমান গনির সাথে লোকজন গামছা দ্বারা আবু বক্কর ছিদ্দিক এর গলায় পেঁচিয়ে শ্বাসরোধ করার চেষ্টা করে।
মনি আবু বক্কর সিদ্দিককে ছাড়ানোর চেষ্টা করলে ওসমান মনির তলপেটে স্ব-জোরে লাথি মেরে গুরুতর জখম করে। অজ্ঞাতনামা ওই সময় ৭/৮ জন মিলে আবু বক্কর ছিদ্দিককে মারধর করে।
এ সময় ওসমান গনি ও তার লোকজন মনি ইসলামের হাতে থাকা সনি এইচএক্সআর- এমসি ২৫০০ হ্যান্ডি ক্যামেরা যার মূল্য ৯০ হাজার টাকা, একটি সেনিজার মাইক্রোফোন যার মূল্য ৩৫ হাজার টাকা, একটি হাওয়াই মোবাইল যার মূল্য ১৪ হাজার ৯ শত ৯০ টাকা, গলায় থাকা ৬ আনি ওজনের একটি স্বর্ণের চেইন যার মূল্য ২৫ হাজার টাকা, নগদ ৩১০০ টাকা জোর করে ছিনিয়ে নেয়।
এমতাবস্থায় তাদের ডাক চিৎকারে আশেপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে ওসমান গনিসহ তার সহযোগীরা চলে যায়।
এদিকে মনির তলপেটে লাথি মারার কারনে শারীরিক অবস্থা খারাপ হওয়ায় আশেপাশের লোকজনের সহায়তায় নারায়ণগঞ্জ ভিক্টোরিয়া হাসপাতালে চিকিৎসা গ্রহণ করেন।
এ বিষয়ে বাদী মনি ইসলাম জানান, চিকিৎসা নিয়ে ফতুল্লা থানায় অভিযোগ দিয়েছি। হামলাকারিরা ভেবেছেন আমি হয়তো তাদের অপকর্মের বিরুদ্ধে নিউজ করতে এসেছি। তারা না জেনেই আমার ওপর হামলা করেতে এসেছে। বিশেষ করে আমি নারী সাংবাদিকতা করি এটা নিয়ে তারা নানা টিটিকারী করছিলো।
এদিকে নারী সাংবাদিক মনিকে মারধরের ঘটনায় দৈনিক সোজা সাপটা পত্রিকার প্রকাশক ও সম্পাদক আবু সাউদ মাসুদ তীব্র নিন্দা ও দোষীদের অবিলম্বে গ্রেফতার করে আইনের আওয়াতায় এনে বিচারের জন্য আহবান জানিয়েছেন।
এ বিষয়ে ফতুল্লা মডেল থানার সদর সার্কেল অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নাজমুল হাসান জানান, আমরা দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছি।
নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মাদ জায়েদুল আলম জানান, সুষ্ঠ তদন্ত করে দোষীকে গ্রেপ্তারের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মামলা

৩ ডিসেম্বর, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ