Inqilab Logo

বুধবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৫ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে পুলিশের সাফল্য বিশ্বব্যাপী স্বীকৃত

সমন্বয় সভায় ডিএমপি কমিশনার

বিশেষ সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৬ অক্টোবর, ২০২১, ১২:০০ এএম

সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ পুলিশের সাফল্য আজ বিশ্বব্যাপী স্বীকৃত বলে মন্তব্য করে ডিএমপি কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম বলেন, বাংলাদেশে সব ধরনের সন্ত্রাসবাদ, সহিংস জঙ্গিবাদ প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণে কঠোর ও সক্রিয় পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে পুলিশ। ঢাকায় নিযুক্ত বিদেশি কূটনীতিকদের সঙ্গে এক নিরাপত্তা সমন্বয় সভায় এ কথা বলেন ডিএমপি কমিশনার। ডিপ্লোম্যাটিক সিকিউরিটি বিভাগের উদ্যোগে সোমবার সন্ধ্যায় রাজধানীর একটি অভিজাত হোটেলে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় ডিএমপির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা এবং বিভিন্ন েেশর রাষ্ট্রদূত, হাইকমিশনার ও কনসাল জেনারেল অংশগ্রহণ করেন।
ডিএমপি কমিশনার বলেন, সন্ত্রাস ও উগ্রবাদ বৈশ্বিক সমস্যা এবং শান্তি, নিরাপত্তা ও উন্নয়নের জন্য হুমকি স্বরূপ। সন্ত্রাসবাদ কোনো ধর্ম, জাতি, বিশ্বাস, সংস্কৃতি, নৃগোষ্ঠী বা সমাজের সঙ্গে যুক্ত হতে পারে না। সন্ত্রাসবাদ মানবতার বিরুদ্ধে জঘন্য অপরাধ। বাংলাদেশ সরকার সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে ‘জিরো টলারেন্স’ নীতি গ্রহণ করেছে। সভায় উপস্থিত বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূত, হাইকমিশনার ও কনসাল জেনারেলসহ সকলকে কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, আইন-শৃঙ্খলা বজায় রাখা এবং নিরাপত্তা নিশ্চিত করার মাধ্যমে ঢাকা মহানগরবাসীর জানমাল ও সম্পত্তি রক্ষায় পুলিশ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে।
তিনি আরো বলেন, পুলিশের সবচেয়ে বড় ইউনিট ডিএমপি। এ ইউনিটে তিন শতাধিক বিসিএস ক্যাডারসহ ৩২ হাজারের অধিক পুলিশ সদস্য অত্যন্ত আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করছেন। ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের বিশেষায়িত ইউনিটের মধ্যে সাইবার ইউনিট, সোয়াট, বোমা নিস্ক্রিয়করণ ইউনিট, স্পেশাল অ্যাকশন গ্রুপ, সাইবার সিকিউরিটি টিম, ওয়ান স্টপ পুলিশ সার্ভিস ইত্যাদি উল্লেখযোগ্য ইউনিট। ডিএমপি কমিশনার আরও বলেন, কূটনীতিকদের নিরাপত্তায় ২০১৩ সাল থেকে ডিএমপি কমিশনারের নিবিড় তত্ত্বাবধানে একজন ডেপুটি পুলিশ কমিশনারের নেতৃত্বে ৯৭৯ জন পুলিশ সদস্য নিয়ে গঠিত ডিপ্লোম্যাটিক সিকিউরিটি বিভাগের কার্যক্রম শুরু হয়েছে। ঢাকাস্থ মার্কিন রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলার কূটনীতিকদের নিরাপত্তায় পুলিশ যেভাবে কাজ করছে তার জন্য ডিপ্লোম্যাটিক সিকিউরিটি বিভাগ তথা ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশকে ধন্যবাদ জানান।
ঢাকা মহানগরকে নিরাপদ রাখতে পুলিশ দিন-রাত কঠোর পরিশ্রম করছে বলেও তিনি মন্তব্য করেন।
জাপানের রাষ্ট্রদূত নাওকি আইটিও প্রথমেই কূটনৈতিক এলাকায় নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য ডিপ্লোম্যাটিক সিকিউরিটি বিভাগ তথা ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশকে ধন্যবাদ জানান। ডিএমপির পক্ষ থেকে দৃঢ় নিরাপত্তা পরিকল্পনা গ্রহণ করায় গত ৫ বছরে কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। ২০১৬ সালের ঘটনার পর সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে গৃহীত কার্যক্রমের জন্য প্রধানমন্ত্রীকেও ধন্যবাদ জানান তিনি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পুলিশ

৩০ নভেম্বর, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ