Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০২ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

কুমিল্লায় শিক্ষার্থীদের মাদকমুক্ত জীবন গড়ার শপথ

কুমিল্লা থেকে স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৬ অক্টোবর, ২০২১, ৬:১১ পিএম | আপডেট : ৮:১৫ পিএম, ২৬ অক্টোবর, ২০২১

‘মাদক আগ্রাসন থেকে নিজেকে বাঁচাতে হবে, রক্ষা করতে হবে পরিবার সমাজ দেশকে। আর এখনি সময় মাদকের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াবার, এখনি সময় মাদকমুক্ত জীবন গড়ার শপথ নিয়ে মাদককে না বলার।’

এমনসব স্লোগান নিয়ে মাদক নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর-কুমিল্লা ও বাংলাদেশ শিশু একাডেমী-কুমিল্লার যৌথ উদ্যোগে নগরীর বেশ কয়েকটি স্কুলের শত শত শিক্ষার্থী মাদককে না বলার মধ্য দিয়ে হাত উঁচু করে সমস্বরে জানান দিয়েছে- ‘জীবন একটাই। নিজের জীবনকে সুন্দর করে গড়ে তোলার দায়িত্ব নিজেরই। আর তাই সম্ভাবনাময় জীবনের পথে বাধা হয়ে দাঁড়ানো মাদকের বিরুদ্ধে মুখে নয়-মন থেকে না বলা ও মাদকমুক্ত দেশ গড়ার অঙ্গীকারের সময় এসেছে।’

মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১২টায় কুমিল্লা নগরীর ধর্মসাগর পাড়ে অবস্থিত নজরুল ইন্সটিটিউট কেন্দ্রের মুক্তমঞ্চে কুমিল্লা নগরীর কয়েকটি স্কুলের শিক্ষার্থী চিত্রাঙ্কন এবং বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক বই পড়া প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ শেষে মাদক বিরোধী সমাবেশে অংশ নিয়ে মাদকের বিরুদ্ধে শপথ গ্রহণ করে। সমাবেশে মাদক নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে সকল শিক্ষার্থীদের হাতে মাদকের কুফল লেখা সম্বলিত শিক্ষা উপকরণ তুলে দেওয়া হয়।

এসময় শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের নিয়ে আয়োজিত মাদক বিরোধী সমাবেশে বক্তব্য রাখেন- মাদক নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর-কুমিল্লা কার্যালয়ের সহকারি পরিচালক চৌধুরী ইমরুল হাসান, কুমিল্লা ফায়ার ডিফেন্সের উপ-সহকারি পরিচালক শারফুল আহসান ভূইয়া, সিনিয়র স্টেশন অফিসার বজলুর রশিদ, দৈনিক ইনকিলাবের স্টাফ রিপোর্টার সাদিক মামুন ও গুলবাগিচা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক মো. ওমর ফারুক।

বক্তারা বলেন- জীবন একটাই। আর সুন্দরভাবে বাঁচার নামই জীবন। কিন্তু মাদক জীবন থেকে জীবনকে কেড়ে নেয়। প্রতিনিয়ত মাদকের করাল গ্রাসে থমকে যাচ্ছে সম্ভাবনাময় এক একটি জীবনের অধ্যায়। তাই মাদক যে একটি জীবন ও ভবিষ্যত বিধ্বংসী দ্রব্য, এটি নতুন প্রজন্মকে জানান দিয়ে ব্যক্তি ও পারিবারিক পর্যায়ে মাদকের বিরুদ্ধে সচেতনতা বৃদ্ধিতে সকলকে এক যোগে কাজ করতে হবে। আরেকটি কথা আমাদের সবাইকে মনে রাখতে হবে,শিক্ষক হচ্ছে মানুষ গড়ার কারিগর এবং প্রশাসন হচ্ছে দেশ পরিচালনার হাতিয়ার। এই দুইটি পক্ষের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় মাদক বিরোধী অভিযান ও সামাজিক আন্দোলন বেগবান করতে হবে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে মাদকবিরোধী গণসচেতনতা বৃদ্ধি করতে হবে।

সমাবেশে মাদক নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর-কুমিল্লা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক চৌধুরী ইমরুল হাসান অভিভাবকদের উদ্দেশ্যে বলেন, আপনার সন্তান নিয়মিত স্কুলে যায় কিনা, স্কুল শেষে সময়মত বাড়ী ফিরে কিনা, কোন কোন বন্ধুর সাথে মেলামেশা করে, রাত জেগে থাকে কিনা তা মনিটরিং করতে হবে। তিনি কোমলমতি শিক্ষার্থীদের স্মার্ট ফোন না দেয়ার জন্য অভিভাবকদের প্রতি আহবান জানান।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: কুমিল্লা

৩০ নভেম্বর, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন