Inqilab Logo

সোমবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২১, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ৩০ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

শেরপুর সদর ইউপি নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ৩ চেয়ারম্যান নির্বাচিত হচ্ছেন

শেরপুর জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৭ অক্টোবর, ২০২১, ১২:৩৫ পিএম

আগামী ১১ নভেম্বর অনুষ্ঠেয় শেরপুর সদর উপজেলার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের তিনজন প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন। এরা হচ্ছেন কামারেরচর ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান ও জেলা যুবলীগের সভাপতি আলহাজ্ব মো. হাবিবুর রহমান হাবিব, পাকুড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মো. হায়দার আলী এবং গাজীরখামার ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান আওলাদুল ইসলাম আওলাদ।

উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, সদর উপজেলার ১৪টি ইউনিয়নে এবার আওয়ামী লীগের ১৪ জন, জাতীয় পার্টির দুজন এবং ইসলামী ঐক্যজোটের একজন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। এ ছাড়া স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে ৪২ জন মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। এর মধ্যে সদর উপজেলার কামারেরচর ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান, জেলা যুবলীগের সভাপতি আলহাজ্ব মো. হাবিবুর রহমান হাবিব একমাত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। আর কোন প্রার্থী না থাকায় তিনিই ওই ইউনিয়নে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন। এ নিয়ে তিনি টানা দুইবার বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ও টানা তিনবারের মতো চেয়ারম্যান নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন।

এদিকে পাকুড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বর্তমান চেয়ারম্যান ও স্থানীয় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব হায়দার আলী দলীয় মনোনয়ন পান। পরে সেখানে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আফজাল হোসেন ও আওয়ামী লীগ ঘরানার মো. গোলাম মোস্তফা নামে দুইজন স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। তবে মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিনে মো. গোলাম মোস্তফা ও মো. আফজাল হোসেন তাদের প্রার্থিতা প্রত্যাহার করে নেওয়ায় একমাত্র প্রার্থী হিসেবে আওয়ামী লীগের প্রার্থী আলহাজ্ব মো. হায়দার আলী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান নির্বাচত হতে যাচ্ছেন।

অন্যদিকে গাজীরখামার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী, বর্তমান চেয়ারম্যান মো. আওলাদুল ইসলাম আওলাদসহ পাঁচজন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। এদের মধ্যে ঋণ খেলাপির অভিযোগে জেলা কারাগারে থাকা সাবেক চেয়ারম্যান, কৃষকলীগ নেতা মো. খলিলুর রহমান খলিলের মনোনয়নপত্র অবৈধ বিবেচিত হয়।

আর প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন মঙ্গলবার অপর তিন চেয়ারম্যান প্রার্থী সাবেক চেয়ারম্যান মো. তাজুল ইসলাম হেলাল, সাবেক ইউপি সদস্য আব্দুস সাত্তার ও বিএনপি নেতা সারোয়ার হোসেন মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নেওয়ায় নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আওলাদ বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় পুনরায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন।

সদর উপজেলার পাকুড়িয়া ও গাজীরখামার ইউপি নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. হামিদুর রহমান জানান, যেসব ইউপিতে চেয়ারম্যান পদে অন্য প্রার্থীরা মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নিয়েছেন তারা বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন। এখন সেসব ইউনিয়নে শুধু সাধারণ ও সংরক্ষিত আসনের ইউপি সদস্য পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

এ ব্যাপারে সদর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. সাইফুল ইসলাম বলেন, ইউনিয়ন পরিষদের একক প্রার্থীদের আগামী বুধ বা বৃহস্পতিবার চেয়ারম্যান নির্বাচিত ঘোষণা করা হতে পারে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইউপি নির্বাচন

৬ ডিসেম্বর, ২০২১
২৯ নভেম্বর, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন