Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৮, ৩০ কার্তিক ১৪২৫, ০৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী

প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনীর জন্য

প্রকাশের সময় : ১৬ অক্টোবর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

বিষয় : প্রাথমিক বিজ্ঞান
শত্তকরী রানী সাহা
সহকারী শিক্ষক (বিজ্ঞান)
ন্যাশনাল আইডিয়াল স্কুল এন্ড কলেজ


প্রাথমিক বিজ্ঞান
সংক্ষিপ্ত প্রশ্ন
১। জীব কিসের উপর নির্ভরশীল?
উ: জীব পরিবেশের উপর নির্ভরশীল
২। জীব বেঁচে থাকার জন্য কী কী দরকার?
উ: জীব বেঁচে থাকার জন্য মাটি, পানি ও বায়ু দরকার।
৩। উদ্ভিদের পাতা সবুজ হওয়ার কারণ কী?
উ: ক্লোরোফিল বা সবুজ কনিকার জন্য উদ্ভিদের পাতা সবুজ হয়।
৪। উদ্ভিদ কীভাবে খাদ্য তৈরি করে?
উ: উদ্ভিদ সালোকসংশ্লেষণ প্রক্রিয়ায় খাদ্য তৈরি করে।
৫। খাদ্য শৃঙ্খল কীভাবে তৈরি হয়?
উ: তৃণ জাতীয় উদ্ভিদ সূর্যের আলো ব্যবহার করে খাদ্য উৎপাদন করে ও তা সংরক্ষণ করে। ছোট ছোট প্রাণী ও খাদ্য খায়। আবার ছোট প্রাণীকে খাদ্য হিসেবে গ্রহণ করে বড় প্রাণী। এভাবেই পরিবেশে খাদ্য শৃঙ্খল তৈরি হয়।
৬। পরিবেশ দূষণ বলতে কী বোঝায়?
উ: পরিবেশের বিভিন্ন পরিবর্তন যখন মানুষ ও জীবের ক্ষতি করে তখন তাকে পরিবেশের দূষণ বলা হয়।
৭। কী কারণ বায়ু দূষণ হয়?
উ: অধিক শিল্পকারখানা স্থাপন, যানবাহনের কালো ধোঁয়া, ইটভাটায় ইট পোড়ানো, জ্বালানি বা অন্যান্য প্রয়োজনে বনজঙ্গল উজাড় করার কারণে বায়ু দূষণ হচ্ছে।
৮। বায়ু দূষণের কারণে কী রোগ হতে পারে?
উ: বায়ু দূষণের কারণে যক্ষ্মা, হাঁপানি, শ্বাসকষ্ট ইত্যাদি রোগ হতে পারে।
৯। জলজ প্রাণী বলতে কী বোঝ?
উ: জলে যেসব প্রাণী বাস করে সেগুলো জলজ প্রাণী। যেমন-মাছ, কুমির, শুশুক, হাঙ্গর, ডলফিন ইত্যাদি।
১০। শব্দ দূষণের জন্য কী ক্ষতিগ্রস্ত হয়?
উ: শব্দ দূষণের জন্য শিশুদের লেখাপড়ার ক্ষতি হয়। এছাড়া এ কারণে বধির হওয়ার সম্ভাবনাও রয়েছে?
১১। কোনটির বৃদ্ধির ফলে বায়ুম-লে তাপমাত্রা বৃদ্ধি পায়?
উ: বায়ুম-লে কার্বন ডাই-অক্সাইডের পরিমাণ বৃদ্ধি পেলে তাপমাত্রা বৃদ্ধি পায়।
১২। বিশুদ্ধ বায়ু কাকে বলে?
উ: যে বায়ুতে পরিমিত পরিমাণ অক্সিজেন, নাইট্রোজেন, জলীয় বাষ্প ইত্যাদি বিদ্যমান থাকে এবং ধূলিকণা, ধোঁয়া, দূষিত গ্যাস, রোগজীবাণু বা অন্য অন্য বিষাক্ত পদার্থ থাকে না তাকে বিশুদ্ধ বায়ু বলে।
১৩। মাটি দূষণ কী?
উ: মাটি দূষণ বলতে মাটির উর্বরতা শক্তি হারানোকে বুঝায়।
১৪। কৃষি কাজে অতিরিক্ত কীটনাশক ব্যবহারে কী হয়?
উ: কৃষি কাজে অতিরিক্ত কীটনাশক ব্যবহার করলে তা বৃষ্টির পানিতে ধুয়ে খাল, বিল ও নদীর পানিতে মিশে পানিকে দূষিত করে।
১৫। কী কী উপায়ে পানি শোধন করা যায়?
উ: ছাঁকন, থিতানো, ফুটানো ও রাসায়নিক পদার্থ মিশিয়ে পানি শোধন করা যায়।
১৬। কোন রোগটির সহজ চিকিৎসা নেই?
উ: আর্সেনিকোসিস।
১৭। আর্সেনিক কী?
উ: আর্সেনিক একটি বিষাক্ত পদার্থ যা ভূগর্ভে খনিজ হিসেবে থাকে এবং তা পান করলে মানুষের আর্সেনিকোসিস রোগ সৃষ্টি হয়।
১৮। পানি চক্র কি?
উ: যে চক্রের মাধ্যমে সমুদ্রের পানি প্রথমে বাষ্প হয়ে বায়ুম-লে পরে বায়ুম-ল হতে বৃষ্টিরূপে ভূপৃষ্ঠে এবং সর্বশেষ নদী-নালার মাধ্যমে পুনরায় সমুদ্রে ফিরে আসে, সেই চক্রকে পানিচক্র বলে।
১৯। সমুদ্রের পানি পানের অযোগ্য কেন?
উ: সমুদ্রের পানি দেখতে পরিষ্কার হলেও এ পানিতে লবণের পরিমাণ খুব বেশি থাকার কারণেই সমুদ্রের পানি পানের অযোগ্য।
২০। জলীয় বাষ্প কী কী তৈরি করে?
উ: জলীবাষ্প বায়ুম-লের ওপরে দিকে ঠা-া হয়ে ক্ষুদ্র পানি কণায় পরিণত হয় এবং তারপর একত্র হয়ে মেঘ তৈরি করে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর