Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১০ আশ্বিন ১৪২৫, ১৪ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌

সোমবার ঢাকায় কওমি ওলামা মাশায়েখ সম্মেলনে শরিক হোন -আল্লামা শফী

প্রকাশের সময় : ১৬ অক্টোবর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

চট্টগ্রাম ব্যুরো : কওমি সনদ ইস্যুতে দেশের কওমি মাদরাসা সংশ্লিষ্ট ওলামায়ে কেরামের প্রতি আগামীকাল (সোমবার) সকাল ১০টায় ঢাকা মিরপুর জামেয়া হোসাইনিয়া আরজাবাদ মাদরাসায় অনুষ্ঠিতব্য ওলামা-মাশায়েখ সম্মেলনে শরিক হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন বেফাক সভাপতি প্রবীণ আলেমে দ্বীন আল্লামা শাহ আহমদ শফী। তিনি বলেন, এ সম্মেলনকে সফল করে চলমান কওমি সনদ ইস্যুতে আলেমদের ঐক্যবদ্ধ অবস্থানের জানান দিতে হবে। সনদ ইস্যুসহ কওমি মাদরাসার যে কোন বিষয়ে আমাদের ভারতের দেওবন্দ মাদরাসার নজির সামনে রাখতে হবে।
গতকাল (শনিবার) নোয়াখালী ও লক্ষ্মীপুর জেলার কওমি আলেম প্রতিনিধি দলের সাথে সাক্ষাৎকালে তিনি এ আহ্বান জানান। তিনি আরো বলেন, ধর্মনিরপেক্ষ নীতি প্রতিষ্ঠার পর থেকেই দেশের মুসলমানদের চিন্তা-চেতনা থেকে ধর্মীয় ভাবাদর্শ, সংস্কৃতি ও ইসলামী শিক্ষাকে ধ্বংস করে তার স্থলে নাস্তিক্যবাদী ও ভোগবাদী ধ্যান-ধারণা প্রতিষ্ঠার বহুমুখী আয়োজন চলছে। মুসলমানদের ধর্মীয় বিশ্বাস ও আদর্শের বিরুদ্ধে একের পর এক অপপ্রচার ও সংকট তৈরি করা হচ্ছে নীলনকশা অনুসারে। এরই অংশ হিসেবে কওমি মাদরাসা শিক্ষা নিয়ে চতুর্মুখী ষড়যন্ত্র জোরদার করা হচ্ছে। এই ইস্যুকে সামনে এনে একদিকে ওলামায়ে কেরামের মধ্যে নানা সন্দেহ, মতভেদ ও বিভক্তি তৈরির চেষ্টা চলছে। অন্যদিকে সনদের স্বীকৃতির নামে কওমি মাদরাসার খাঁটি ইসলামী শিক্ষার পরিচালন ব্যবস্থাকে ধ্বংস করে দেয়া হচ্ছে। উদ্দেশ্য একটাই, যেকোনভাবে খাঁটি ইসলামী শিক্ষার জন্য জনগণের একমাত্র ভরসাস্থল কওমি মাদরাসাকে বহুমুখী সংকটে ফেলে এ শিক্ষাব্যবস্থাকে ধ্বংস করে দেয়া। কারণ জোর-জুলুম, ঘুষ-দুর্নীতি, অবাধ ব্যভিচার, আধিপত্যবাদসহ সর্বোপরি নাস্তিক্যবাদী ধ্যান-ধারণা, ভোগবাদিতার পথে একমাত্র ওলামায়ে কেরামই বাধা। জনগণের সাথে ওলামায়ে কেরামের নাড়ির সম্পর্ক তারা বুঝে গেছ।
তিনি বলেন, সরকার দাওরায়ে হাদীসের কওমি শিক্ষা সনদের মান থাকার যৌক্তিকতা উপলব্ধি করলে সে পর্যায়ে উচিত শীর্ষ ওলামায়ে কেরামের সাথে খোলামনে আলোচনা করা এবং ওলামায়ে কেরামের সম্মিলিত পরামর্শের আলোকে পদক্ষেপ নেয়া। কিন্তু আমরা এর উল্টাটাই দেখছি। আলেম সমাজ থেকে বিচ্ছিন্ন কোন ব্যক্তিবিশেষের পরামর্শে কওমি সনদের বিষয়ে সরকার একের পর এক বিতর্কিত পদক্ষেপ নিতে থাকলে সরকারের ভাবমর্যাদা ক্ষতিগ্রস্ত হবে।
গতকাল নোয়াখালী ও লক্ষ্মীপুর জেলার কওমি মাদরাসাসমূহের পরিচালকদের ৩০ সদস্যের এক প্রতিনিধি দল কওমি সনদের স্বীকৃতি প্রশ্নে বেফাক সভাপতি আল্লামা শাহ আহমদ শফীর গৃহীত অবস্থানের প্রতি সর্বাত্মক সমর্থন ব্যক্ত করে দারুল উলুম হাটহাজারী মাদরাসায় তার সাথে দেখা করেন। প্রতিনিধি দলে ছিলেন মাওলানা সফি উল্লাহ, মাওলানা মোশাররফ হোসাইন, মাওলানা শিব্বির আহমদ, মাওলানা নূরুল ইসলাম, মাওলানা আতাউল্লাহ, মাওলানা ইউসুফ, মাওলানা নোমান আহমদ, মাওলানা মোস্তাকুন্নবী, মাওলানা ইয়াকুব কাসেমী, মাওলানা মনজুর সিদ্দিক, মাওলানা দেলোয়ার হোসেন, মাওলানা আবু তাহের, মাওলানা মামুনুর রশীদ, মাওলানা কলিমুল্লাহ, মাওলানা বশীর আহমদ প্রমুখ।



 

Show all comments
  • রিপন ১৬ অক্টোবর, ২০১৬, ১১:৪২ এএম says : 0
    এ সম্মেলনকে সফল করে চলমান কওমি সনদ ইস্যুতে আলেমদের ঐক্যবদ্ধ অবস্থানের জানান দিতে হবে।
    Total Reply(0) Reply
  • Kamal ১৬ অক্টোবর, ২০১৬, ১২:৫৩ পিএম says : 0
    Hujurer sathe amra akmot
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ