Inqilab Logo

শনিবার, ২২ জানুয়ারী ২০২২, ০৮ মাঘ ১৪২৮, ১৮ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে বন্ধ চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ

চট্টগ্রাম ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ৩১ অক্টোবর, ২০২১, ১২:০২ এএম

আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষের পর গতকাল শনিবার চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। কর্তৃপক্ষের নির্দেশে ছাত্রাবাস ছেড়ে গেছেন শিক্ষার্থীরা। দুই পক্ষের সংঘর্ষে অন্তত পাঁচ জন আহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে মাহফুজুল হক (২৩), নাইমুল ইসলাম (২০) ও আকিব হোসেনকে (২০) চমেক হাসপাতালের জরুরি বিভাগে ভর্তি করা হয়েছে।
চমেকে ছাত্রলীগের দুটি গ্রুপ সক্রিয় রয়েছে। একটি গ্রুপ শিক্ষা উপ-মন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরীর অনুসারী। অপরটি নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীনের অনুসারী হিসাবে পরিচিত। ছাত্রাবাস, ক্যাম্পাস এবং আশপাশের এলাকায় আধিপত্য বিস্তারে প্রতিনিয়ত তারা সংঘাত-সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ছে। এর জের ধরে দুই পক্ষ ফের সংঘাতে লিপ্ত হয়।

পুলিশ জানায় ঘটনার সূত্রপাত শুক্রবার রাত সাড়ে ১১টায় মেডিকেল কলেজের প্রধান ছাত্রাবাসে। সেখানে আ জ ম নাছির উদ্দীনের অনুসারী ছাত্রলীগ কর্মীদের দুজনকে মহিবুল হাসান চৌধুরীর অনুসারী পক্ষ মারধর করে। এতে তারা রক্তাক্ত জখম হয়। এই ঘটনার জের ধরে গতকাল বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ক্যাম্পাসে মহিবুল হাসানের অনুসারী এক ছাত্রলীগ কর্মীকে মারধর করা হয়। এরপর থেকে ছাত্রাবাস, হাসপাতাল ও ক্যাম্পাসে দুই পক্ষ মহড়া দিতে শুরু করে। কয়েক দফা তাদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে।

তাদের মুখোমুখি অবস্থানের কারণে পুরো এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করে। পরিস্থিতি সামাল দিতে ক্যাম্পাসে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে চমেক একাডেমিক কাউন্সিলের জরুরি সভা বসে। সেখানে সংঘাত এড়াতে কলেজ বন্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়। চমেকের প্রিন্সিপাল প্রফেসর সাহেনা আকতার সাংবাদিকদের জানান, একাডেমিক কাউন্সিলের সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, কলেজ অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয়। শিক্ষার্থীদের হল ছাড়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি এ ঘটনা তদন্তে প্রফেসর মতিউর রহমানকে প্রধান করে একটি কমিটি গঠন করা হয়।

এদিকে সরকারী দলের ছাত্র সংগঠনের বিরোধে কলেজ বন্ধ ঘোষণায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন সাধারণ শিক্ষার্থী ও অভিভাবকেরা। করোনার কারণে দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর গত ১৩ সেপ্টেম্বর থেকে কলেজে সরাসরি ক্লাশ শুরু হয়। কলেজ বন্ধ হওয়ায় পড়া লেখার ক্ষতি মুখে পড়লো শিক্ষার্থীরা।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ছাত্রলীগ


আরও
আরও পড়ুন