Inqilab Logo

শুক্রবার, ২১ জানুয়ারী ২০২২, ০৭ মাঘ ১৪২৮, ১৭ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

ফেরি উদ্ধার সক্ষমতা নেই! উদ্ধার কাজ সমাপ্ত

পঞ্চায়েত হাবিব | প্রকাশের সময় : ৩১ অক্টোবর, ২০২১, ১২:০১ এএম

মানিকগঞ্জের পাটুরিয়ায় শাহ আমানত ফেরিডুবির ঘটনার পর চার দিনে এ পর্যন্ত ১৭টি যানবাহন উদ্ধার করা হয়েছে। এখন একটি মাত্র ট্রাক ডুবন্ত ফেরিতে রয়েছে। যে কোন সময় তা উদ্ধার করা যাবে। হামজা’ ও ‘রুস্তম’ দিয়ে ডুবে যাওয়া রো রো ফেরি আমানত শাহ উদ্ধার করা যাবে কি না তা বলতে পারছে না বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ পরিবহন কর্তৃপক্ষ। কারণ হামজা ও রস্তমের সক্ষমতা রয়েছে মাত্র ১২০ টন। অথচ দুর্ঘটনাকবলিত ফেরির ওজন ৬০০ টন। এটা কীভাবে উদ্ধার করা হবে কি না এ বিষয়ে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ মুখ খুলছে না। তবে রো রো ফেরি আমানত শাহ উদ্ধার সক্ষমতা নেই। অন্যদিকে মন্ত্রণালয়ের গঠিত কমিটি এ সপ্তাহে তদন্ত প্রতিবেদন দিবেন বলে জানা গেছে।

উদ্ধার তৎপরতায় রুস্তমকে শেষ মুহূর্তে আনা হলে তাতে কোন কাজে আসছে না। কারণ যানবাহন উদ্ধার হামজা দিয়ে মূলত শেষ করা হয়েছে। ফেরিটি উদ্ধারে রুস্তম কোন কাজেই আসবে না। পানির নিচে এক কাত হয়ে ডুবে থাকা ফেরিটির ওজন কম পক্ষে ১ হাজার টন। যেখানে প্রত্যয়ের ধারণ ক্ষমতা রয়েছে ২৫০ টন। এই জাহাজটি না এসে শেষমেশ আনা হলো রুস্তম। যার ধারণ ক্ষমতা মাত্র ৬০ টন। অথচ ৬০ টন ধারণ ক্ষমতা হামজা দিয়ে উদ্ধার তৎপরতা চলছিল। উদ্ধার কার্যক্রমে যোগ দিয়ে এই জাহাজটি নদীর পাড়ে রাখা একটি ট্রাক তীরের ওপরে টেনে তোলে। এ ছাড়া আগে থেকেই উদ্ধার অভিযান চালিয়ে আসা জাহাজ ‹হামজা› আরও একটি ট্রাক ও তিনটি মোটরসাইকেল পানি থেকে টেনে তুলেছে। গতকাল শনিবার সকাল সোয়া ১০টার দিকে রুস্তম’ উদ্ধার অভিযানে যুক্ত হয়। সেখানে হুটহাট সিদ্ধান্তে একই ক্ষমতা সম্পন্ন রুস্তম আনা কতটা যুক্তি সংগত নিয়ে জনমনে প্রশ্ন দেখা দিয়েছি।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিটিএ) নৌ সংরক্ষণ ও পরিচালন বিভাগের পরিচালক মো. শাজাহান ইনকিলাবকে বলেন, উদ্ধার অভিযান চতুর্থ দিনের মতো শনিবার আজ সকাল ৮টা থেকে শুরু হয়েছে। উদ্ধারকারী জাহাজ ‘হামজা’ টানা তিনদিন উদ্ধার কাজ করলেও চতুর্থদিন উদ্ধার কাজে যোগ দিয়েছে আরেক উদ্ধারকারী জাহাজ ‘রুস্তম’। গতকাল দুপুর পর্যন্ত উদ্ধারকারী জাহাজ রুস্তম’ আগেই উদ্ধার হওয়া একটি ট্রাক উদ্ধার করে তীরে তুলেছে, যা আগেই নদীর পাড়ে রাখা ছিল। অপরদিকে উদ্ধারকারী জাহাজ ‘হামজা’ ডুবন্ত ফেরি থেকে একটি ট্রাক ও তিনটি মোটরসাইকেল উদ্ধার করেছে। তিনি জানান, গত বুধবার প্রথম দিনের উদ্ধার অভিযানে একটি মোটরসাইকেল ও চারটি ট্রাক উদ্ধার করা হয়। পরে বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় দিনের উদ্ধার অভিযানে পাঁচটি যানবাহন উদ্ধার করা হয়। শুক্রবার তৃতীয় দিনের উদ্ধার অভিযানে আরও চারটি যানবাহন উদ্ধার করা হয়েছে। গতকাল পর্যন্ত তিনটি মোটরসাইলে একটি ট্রাক উদ্ধার করা হযেছে।

বিআইডব্লিউটিসি আরিচা কার্যালয়ের উপ ব্যবস্থাপক জিল্লুর রহমান ইনকিলাবকে বলেন, ফেরিডুবির ঘটনার পর থেকে এ পর্যন্ত ১৭টি যানবাহন উদ্ধার করা হয়েছে। এখন একটি মাত্র ট্রাক ডুবন্ত ফেরিতে রয়েছে। আশা করা যায়, আজকের মধ্যে তা উদ্ধার করা যাবে। ‘হামজা’ ও ‘রুস্তম’ দিয়ে ডুবে যাওয়া ফেরি উদ্ধার করা যাবে কি না, এ প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘হামজা ও রস্তমের সক্ষমতা রয়েছে মাত্র ১২০ টন। অথচ দুর্ঘটনাকবলিত ফেরির ওজন ৬০০ টন। এটা কীভাবে উদ্ধার হবে এ বিষয়ে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ ভালো বলতে পারবেন।

প্রত্যয় নয় এসেছে উদ্ধারকারী জাহাজ রুস্তম। প্রত্যয়ের চেয়ে কম ধারণক্ষতা সম্পন্ন রুস্তমকে ফেরি উদ্ধারের জন্য নয়, আনা হয়েছে ফেরির ভেতরে পানিতে নিমজ্জিত ট্রাক, কাভার্ডভ্যান ও মোটরসাইকেল উদ্ধারের জন্য। তবে রুস্তমকে গতকাল শনিবার সকালে পাটুরিয়া ঘাটে আনা হলেও তার আগেই পানিতে ডুবে থাকা ১৪টি ট্রাক-কাভার্ডভ্যানের মধ্যে ১৩টি এবং তিনটি মোটর সাইকেলসহ ১৬টি যানবাহন উদ্ধার করেছে হামজা। ফেরির ভেতরে মাত্র একটি ট্রাক নিমজ্জিত আছে। সেটি উদ্ধারে রুস্তম কাজ করে যাবে।

গত বুধবার পাটুরিয়া ৫নং ফেরি ঘাটে নোঙর করার পর রো রো ফেরি আমানত শাহ কাত হয়ে নদীতে ডুবে যায়। ফেরিতে থাকা ১৭ ট্রাক, কাভার ভ্যান এবং ৬-৭টি মোটর সাইকেল ছিল। উদ্ধার অভিযানে ওই দিন দুপুরেই আনা হয় উদ্ধারকারী জাহাজ হামজাকে। পাশাপাশি প্রত্যয় নামে ২৫০ টনের ভারী ক্ষমতা সম্পন্ন জাহাজও আনার ব্যবস্থা করে বিআইডাব্লিউটিএ।

গত বুধবারই প্রত্যয় রওনা হয়েছে বলে বিআইডাব্লিউটিএ এর পক্ষ থেকে ফলাও করে বলা হয়। কিšুÍ তিনদিনেও প্রত্যয় আসেনি পাটুরিয়া ঘাটে। হঠাৎ বিআইডাব্লিউটিএ-এর চেয়ারম্যান কমোডর গোলাম সাদেক গতকাল শুক্রবার সকালে পাটুরিয়া ঘাটে উদ্ধার তৎপরতা দেখতে এসে সাংবাদিকদের বলেন, প্রত্যয় আসছে না। তার পরিবর্তে আনা হচ্ছে রুস্তমকে।

শুক্রবার সন্ধ্যার মধ্যে রুস্তম পাটুরিয়া ঘাটে আসার কথা থাকলেও এসেছে গতকাল শনিবার সকাল ১০টায়। ততক্ষণে রুস্তম আসার আগেই নিমজ্জিত ফেরির ভিতরে আটকে থাকা ভারী যানবাহন ট্রাক ও কাভার্ডভ্যান উদ্ধার করা হয়। শুধু মাত্র একটি ট্রাক ফেরির ভেতরে পানিতে নিমজ্জিত রয়েছে। এছাড়া উদ্ধার করা হয়েছে ৩টি মোটর সাইকেল।রুস্তমের জন্য বাকি রয়েছে একটি ট্রাক ও ২-৩টি মোটরসাইকেল।

উদ্ধার তৎপরতায় রুস্তামকে শেষ মুহূর্তে আনা হলে তাতে কোন কাজে আসছে না। কারণ যানবাহন উদ্ধার হামজা দিয়ে মূলত শেষ করা হয়েছে। ফেরিটি উদ্ধারে রুস্তম কোন কাজেই আসবে না। পানির নিচে এক কাত হয়ে ডুবে থাকা ফেরিটির ওজন কম পক্ষে ১ হাজার টন। যেখানে প্রত্যয়ের ধারণ ক্ষমতা রয়েছে ২৫০ টন। এই জাহাজটি না এসে শেষমেশ আনা হলো রুস্তম। যার ধারণ ক্ষমতা মাত্র ৬০ টন। অথচ ৬০ টন ধারণ ক্ষমতা হামজা দিয়ে উদ্ধার তৎপরতা চলছিল। সেখানে হুটহাট সিদ্ধান্তে একই ক্ষমতা সম্পন্ন রুস্তম আনা কতটা যুক্তি সংগত নিয়ে জনমনে প্রশ্ন দেখা দিয়েছি। এদিকে ফেরি উদ্ধার প্রশ্নে বিআইডাব্লিউটিএ এবং বিআইডাব্লিউটি কর্তৃপক্ষ সাংবাদিকদের মুখোমুখি হচ্ছে না। বিআইডাব্লিউটির আরিচা অঞ্চলের ডিজিএম জিল্লুর রহমান জানিয়েছেন, উধ্বর্তন কর্তৃপক্ষের অনুমতি না থাকায় ফেরি ডুবির ঘটনা সম্পর্কে কথা বলা বারণ।

গতকাল শনিবার বেলা ১১টা থেকে রুস্তার উদ্ধার কাজ শুরু করে। তবে রুস্তম উদ্ধার তৎপরতায় নামার আগেই হামজা নামের জাহাজটি মোট ১৬টি যানবাহন উদ্ধার করে ফেলেছে। এর মধ্যে ট্রাক ও কাভার্ডভ্যান ১৩টি ও মোটরসাইকেল ৩টি। ফেরি ভেতর আটকে পড়া বাকি আরো একটি ট্রাক উদ্ধারে চেষ্টা চালাচ্ছে রুস্তম।
গত ২৭ অক্টোবর সকাল পৌঁনে ১০টার দিকে পাটুরিয়া ফেরি ঘাটের ৫ নম্বর পন্টুনের প্রথম পকেটে আমানত শাহ নামের রো রো ফেরি যানবাহন আনলোড করতে গিয়ে ডান দিকে কাঁত হয়ে একাংশ ডুবে যায়। ডুবে যাওয়ার পর ফেরি থাকা ১৪টি পণ্যবোঝাই ট্রাকসহ কয়েকটি মোটরসাইলে পদ্মা নদীতে তলিয়ে যায়। পরে উদ্ধার কাজে অংশ নেয় স্থানীয় প্রশাসন,ফায়ার সার্ভিসের একাধিক ইউনিট।

পাটুরিয়ায় আমানত শাহ নামের রো রো ফেরি ডুবি ঘটনায় ভিতরে আটকে পড়া সাধারণ পণ্য বোঝাই ট্রাক ও কাভার্ড ভ্যান এবং মোটরসাইকেলের তালিকা অনুযায়ী সকল যানবাহন উদ্ধার করা হয়েছে। গতকাল রাত সাড়ে ৭টার দিকে বিআইডব্লিউটিএর প্রধান সমন্বয়ক ও যুগ্ন পরিচালক ফজলুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, দুর্ঘটনার দিন একটি মোটরসাইকেল ও চারটি ট্রাক উদ্ধার করা হয়। গতকাল মোট ১২টি ট্রাক উদ্ধার করা হয়েছে। শেষ দিনে আজ দুটি মোটরসাইকেল একটি কাভার্ড ভ্যান এবং আরো একটি পণ্যবাহী ট্রাক উদ্ধার করা হয়। বিআইডব্লিউটিসির তালিকা অনুযায়ী সব কয়েকটি যানবাহন উদ্ধার করা হয়েছে, আমাদের মনে হচ্ছে আমানত শাহ ফেরির ভিতর আর কোনো যানবাহন নেই।



 

Show all comments
  • Shafiq ৩১ অক্টোবর, ২০২১, ২:০১ পিএম says : 0
    বাংলাদেশের সক্ষমতার এই অবস্থা ! অথচ উন্নয়নের কত বড় বড় গল্প শুনি আমরা।
    Total Reply(0) Reply
  • Nazmul Hasan Khan ৩১ অক্টোবর, ২০২১, ৬:১৩ এএম says : 0
    Developed country...! Singapore, Canada!
    Total Reply(0) Reply
  • Sojib Mahi ৩১ অক্টোবর, ২০২১, ৬:১৪ এএম says : 0
    এটাই বাংলাদেশ, কথায় অনেক বড়,কাজে ঢনঢন।
    Total Reply(0) Reply
  • Abu Hena Mustafa Kamal ৩১ অক্টোবর, ২০২১, ৬:১৪ এএম says : 0
    দেশ ইউরোপ,আমেরিকাকে ছাড়িয়ে গেছে,,,কারা জানি বলে?
    Total Reply(0) Reply
  • Mohibulla Mohib ৩১ অক্টোবর, ২০২১, ৬:১৪ এএম says : 0
    সবাই নাকে তেল দিয়ে ঘুমালে এরকম সিংগাপুরই হবে।
    Total Reply(0) Reply
  • Md Abdul Lotifur Rohman ৩১ অক্টোবর, ২০২১, ৬:১৪ এএম says : 0
    উন্নয়ন এর জোয়ারে ফেরি উঠে আসার কথা ছিল
    Total Reply(0) Reply
  • Îttesaf Ar Mahmud ৩১ অক্টোবর, ২০২১, ৬:১৫ এএম says : 0
    ফেরি ওঠানোর জন্য এখন সাধারন জনগনের টাকায় ক্রেন কিনবো বাংলাদেশ সরকার৷
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ