Inqilab Logo

শুক্রবার, ২০ মে ২০২২, ০৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৮ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

দেউলিয়া হওয়ার পথে ব্রিটেন?

‘উচ্চ কর, উচ্চতর ব্যয়’ নীতি

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৩১ অক্টোবর, ২০২১, ১২:০০ এএম

‘উচ্চ কর, উচ্চতর ব্যয়’ নীতিগুলো ব্রিটেনের জন্য দেউলিয়া হওয়ার ঝুঁকি তৈরি করেছে বলে যুক্তরাজ্য সরকারকে সতর্ক করা হয়েছে। দেশটির অর্থমন্ত্রী ঋষি সুনাক সংসদে বাজেট পরিকল্পনা উপস্থাপণ করার পর এই সতর্কতা দেয়া হয়েছে।

নতুন বাজেটে ঋষি সুনাক জনসাধারণের ব্যয় বাড়িয়েছেন এবং জীবনযাত্রার ব্যয় মোকাবেলার জন্য অবিলম্বে পদক্ষেপ নিয়েছেন। তিনি বিভাগীয় ব্যয়ের বিশাল বৃদ্ধি এবং নিম্ন আয়ের লোকদের জন্য সহায়তার বিবরণ দিয়েছেন। তিনি হোয়াইটহলের জন্য বাজেটে বড় উল্লম্ফন এবং ব্যবসার জন্য ট্যাক্স হ্রাসের পাশাপাশি উচ্চ দক্ষতা এবং মজুরির ভিত্তিতে একটি ‘নতুন অর্থনীতি’ তৈরি করতে উল্লেখযোগ্য বিনিয়োগের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। তবে এটি কর্পোরেট এবং ব্যক্তিগত ট্যাক্সে পূর্ব ঘোষিত বৃদ্ধির অতিরিক্ত হবে।

তবে অফিস ফর বাজেট রেসপন্সিবিলিটি (ওবিআর) সতর্ক করে দিয়েছিল যে, এটি ১৯৫০ সালের পর থেকে সামগ্রিক করের বোঝাকে সর্বোচ্চ পর্যায়ে ফেলে দেবে, যখন ক্লিমেন্ট অ্যাটলির যুদ্ধ-পরবর্তী প্রশাসন চূড়ান্ত সময়ে প্রবেশ করছে। ওবিআর সতর্ক করেছে যে, সিপিআই মুদ্রাস্ফীতি ৪ দশমিক ৪ শতাংশে লাফিয়ে উঠতে পারে ও আরও এগিয়ে যেতে পারে এবং ‘তিন দশক ধরে যুক্তরাজ্যে দেখা সর্বোচ্চ হারে’ আঘাত করতে পারে। ব্রিটেনের অর্থনীতি মার্চে প্রত্যাশিত চারটির প্রাথমিক প্রক্ষেপণের পরিবর্তে এই বছর ৬ দশমিক ৫ শতাংশ বৃদ্ধির পূর্বাভাস রয়েছে। কিন্তু একটি নতুন সতর্কবার্তায় বো গ্রুপ থিঙ্ক ট্যাঙ্কের চেয়ারম্যান বেন হ্যারিস-কুইনি বলেছেন, ‘অর্থমন্ত্রী করের বোঝা ২য় বিশ্বযুদ্ধের পর থেকে সর্বোচ্চ স্তরে উন্নীত করেছেন এবং রেজোলিউশন ফাউন্ডেশন বিশ্বাস করে যে, এই পলিসিগুলির জন্য গড়ে পরিবার প্রতি বছরে ৩ হাজার পাউন্ড খরচ হবে।’

তিনি বলেন, ‘আমরা বিশ্বাস করি এটি একটি অত্যন্ত রক্ষণশীল অনুমান কারণ গড় পরিবার শুধুমাত্র কর বৃদ্ধিই নয়, বরং ক্রমবর্ধমান মুদ্রাস্ফীতি, সরকারের অর্থহীন সবুজ নীতির অপরিমেয় ব্যয় এবং জাতীয় ঋণের একটি স্তর যা একটি ঋণ সংকটের প্রকৃত ঝুঁকি উপস্থাপন করে। এ ছাড়াও মন্দা এবং এখনও আরো ট্যাক্স বৃদ্ধির বিষয় রয়েছে।’ তিনি সতর্ক করে দিয়ে বলেন, চূড়ান্ত ফলাফল হল যে, যুক্তরাজ্যে জীবনযাত্রার মান অবাধে, এবং মানুষ বাস্তবে অনেক বেশি দরিদ্র বোধ করবে। লেবার পার্টি গত ১১ বছর ধরে ক্ষমতায় নেই, তাই এই সমস্যাগুলোর জন্য অন্য দল বা এমনকি মহামারীকেও দায়ী করা যায় না। সরকারের সবুজ নীতির জন্য আমাদের অর্থনীতির দীর্ঘমেয়াদী খরচ দশ ট্রিলিয়ন হতে পারে, তবে তাও ছাড়িয়ে যেতে পারে। এমনকি ৭০ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ করের স্তরের সাথেও, সরকার এখনও তার সামর্থ্যের বাইরে ব্যয় করছে এবং শীঘ্র বা পরে ব্রিটিশ জনগণকে এর জন্য অর্থ প্রদান করতে হবে।

একটি চূড়ান্ত সতর্কীকরণে, হ্যারিস-কুইনি দাবি করেছেন যে, যুক্তরাজ্যের ঋণের অনুপাত ২০০৮ সালে বিপর্যয়কর অর্থনৈতিক সঙ্কটের আগে গ্রিসের চেয়ে খারাপ অবস্থানে রয়েছে। তিনি বিশ্বাস করেন যে আরেকটি মন্দা ‘নিশ্চিত’ এবং ব্রিটেনকে একটি ঋণ সঙ্কটের দিকে ঠেলে দিতে পারে এবং অর্থনৈতিক পতন থেকে এটি কখনই পুনরুদ্ধার হতে পারে না। রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞ উপসংহারে এসেছিলেন ‘আমাদের ঋণের সাথে জিডিপি অনুপাত ১০৪ শতাংশ এবং ক্রমবর্ধমান, এটি ২০০৮ সালের অর্থনৈতিক সঙ্কটের আগে গ্রিসের চেয়ে খারাপ অবস্থান। হ্যারিস-কুইনি বলেন, ‘যদি আরেকটি মন্দা হয়, যা প্রায় নিশ্চিত, ব্রিটেন একটি ঋণ সংকটের মুখোমুখি হয় এবং অর্থনৈতিক পতনের প্রকৃত আশঙ্কা থেকে এটি কখনই পুনরুদ্ধার করতে পারে না। কারণ আমরা বিশ্বের ধনী দেশগুলোর ক্রম থেকে আরও নিচে নেমে যাচ্ছি। সরকারের উচ্চ কর উচ্চ ব্যয় নীতি ব্রিটেনকে দেউলিয়া করার একটি বাস্তব ঝুঁকি চালায়। এটি ১১ বছরেরও বেশি সময় ধরে রক্ষণশীল সরকারের নীতিগত সিদ্ধান্তের ফলাফল। তিনি বলেন, ‘ব্রিটেনের পতন চলছে। আমরা কনজারভেটিভ পার্টির অবশিষ্ট রক্ষণশীলদের এই বাস্তবতা সম্পর্কে জেগে উঠতে এবং সরকারকে পথ পরিবর্তনের জন্য চাপ দিতে উৎসাহিত করি।’ সূত্র : ইউকে এক্সপ্রেস।



 

Show all comments
  • নিজাম ৩১ অক্টোবর, ২০২১, ১:৪৪ এএম says : 0
    দেওলিয়ায়ো হবে না। সব ঠিক হয়ে যাবে।
    Total Reply(0) Reply
  • কায়কোবাদ মিলন ৩১ অক্টোবর, ২০২১, ১:৪৫ এএম says : 0
    যাই বলেন, তারা জনগণের ভালোর কথা ভাবেন।
    Total Reply(0) Reply
  • Nazmul Hasan ৩১ অক্টোবর, ২০২১, ১:৪৬ এএম says : 0
    ব্রিটেন কখনও দেওলিয়া হবে না।
    Total Reply(0) Reply
  • Arifur Rahman ৩১ অক্টোবর, ২০২১, ৬:১৯ এএম says : 0
    ব্রিটেন নিয়ে মাথা না ঘামিয়ে নিজের দেশের কথা ভাবুন।
    Total Reply(0) Reply
  • নাজমুল হাসান ৩১ অক্টোবর, ২০২১, ৬:২১ এএম says : 0
    আয় বেশি হলে ব্যয় বেশি করতে সমস্যা নেই, করও বোঝা হবে না।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ব্রিটেন


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ