Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২২, ১৩ মাঘ ১৪২৮, ২৩ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

যশোরে ২১ রুটে বাস বন্ধ যাত্রীদের ভোগান্তি চরমে, ট্রেনে উপচে পড়া ভিড়

যশোর ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ৬ নভেম্বর, ২০২১, ১১:৪২ এএম

যশোরে ২১ রুটে জ্বালানি তেলের মূল্যের বৃদ্ধির প্রতিবাদে বাস চলাচল বন্ধ রয়েছে। শনিবার (৬ নভেম্বর) শহরের মণিহার বাস টার্মিনালে বিক্ষোভ মিছিল করে শ্রমিকরা। এ সময় তারা গাড়ি চললে বাধা দেয়। হঠাৎ করে বাস চলাচল বন্ধ করে দেয়ায় চরম বিপারে পড়েছেন যাত্রীরা। বিকল্প হিসেবে অনেকে ট্রেনে যাতায়াত করেছেন। তবে সেটি ছিল যুদ্ধের শামিল। রেল স্ট্রেশনে যাত্রীদের উপচে পড়া ভিড় ছিল।

জানা যায়, যশোর থেকে অন্তত ২১টি রুটে বাস চলাচল করে। পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই শুক্রবার সকাল থেকে বাস চলাচল বন্ধ হয়ে যাওয়া চরম বিড়ম্বনায় পড়েছে যাত্রীরা। গন্তব্যে পৌঁছানোর জন্য অনেকে ট্রেনে যাতায়াত করেছেন। কিন্তু ট্রেনে যাত্রীদের উপচে পড়া ভিড়ে ভোগান্তি আরো বেড়েছে।
সাদ্দাম নামে এক যাত্রী বলেন, কালিগঞ্জ থেকে খুব কষ্টে ভেঙে ভেঙে যশোর এসেছি। যেতে হবে ফুলতলা। কিভাবে গন্তব্যে যাবো ভেবে পাচ্ছি না।’
নাজমুল নামে এক চাকরি প্রার্থী বলেন, বাঘারপাড়া থেকে সাতক্ষিরা চাকরির পরীক্ষা দিতে বাড়ি থেকে বেরিয়ে বিপাকে পড়েছি। ঠিক সময়ে পৌঁছাতে পারবো কিনা অনিশ্চিত।
যশোর জেলা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সভাপতি পবিত্র কাপুড়িয়া জানিয়েছেন, করোনার সময় চার মাস গাড়ি বন্ধ ছিল। আমাদের অনেক ক্ষতি হয়েছে। গাড়ির যন্ত্রাংশ, গাড়ির ট্যাক্স টোকেনের দাম বেড়েছে। সেসব কারণে শ্রমিকরা গাড়ি চালাতে চায় না-আমরাও জোর করছি না।

যশোর জেলা পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি আজিজুল আলম মিন্টু সাংবাদিকদের বলেন, আন্তর্জাতিক বাজারে সামান্য একটু বৃদ্ধিতে তেলের দাম লিটার প্রতি ১৫ টাকা বাড়ানো ঠিক হয়নি। সরকার এই সময় তেলের দামে ভর্তুকি দিকে পারতো। আমরা যাত্রীদের সাথে বাসভাড়া নিয়ে দ্ব›দ্ব ফ্যাসাদে যেতে চাইনে। সবকিছুরই দাম বেড়েছে, যাত্রীরাই বা এখন কিভাবে অতিরিক্ত ভাড়া গুণবে। শ্রমিকরা নিজের গাড়ি চালাতে রাজি হয়নি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ট্রেন


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ