Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০৭ ফাল্গুন ১৪২৫, ১৩ জামাদিউস সানি ১৪৪০ হিজরী।

বিনিয়োগবান্ধব নগরী চট্টগ্রামকে আরও উন্নত করতে হবে -মেয়র আ জ ম নাছির

প্রকাশের সময় : ১৮ অক্টোবর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

চট্টগ্রাম ব্যুরো : চট্টগ্রাম সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেছেন, বিনিয়োগবান্ধব নগরী চট্টগ্রামকে আরও উন্নত করতে হবে। বিনিয়োগবান্ধব ও পর্যটকবান্ধব নগরী- এ বিষয়টিকে প্রাধান্য দিয়েই চট্টগ্রামের উন্নয়ন পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করা হবে। গতকাল (সোমবার) নগর ভবনের কে বি আবদুচ ছত্তার মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত প্রকৌশলীদের সমন্বয় সভায় মেয়র একথা বলেন। সভায় সিটি মেয়র চট্টগ্রামকে বিশ্বমানের পরিবেশবান্ধব স্মার্ট সিটিতে উন্নীত করার কর্মপরিকল্পনা আগামী ৩ বছরের মধ্যে সম্পাদনের জন্য প্রকৌশলীদের নির্দেশ দেন। এছাড়াও ২০১৯ সনের জুনের মধ্যে নগরীর ৪১টি ওয়ার্ডের সকল সড়ক ও বাইলেইনকে শতভাগ পাকা, পিচঢালা সড়কে উন্নয়নের কর্মপরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে হবে। এ লক্ষ্যে গৃহীত কর্মপরিকল্পনা ধাপে ধাপে বাস্তবায়ন করতে প্রকৌশলীদের নির্দেশ দেন। মেয়র বলেন, গুরুত্বের দিক থেকে চট্টগ্রামের গুরুত্ব অনেক। অর্থনীতির প্রাণকেন্দ্র এ চট্টগ্রাম। চট্টগ্রামের উন্নয়নের সাথে দেশের সার্বিক উন্নয়ন ও গুরুত্ব নির্ভর করে। এ বিবেচনায় চট্টগ্রামকে বিনিয়োগের উপযুক্ত এলাকা হিসেবে এর পরিবেশ উন্নত করা অপরিহার্য।
চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রকৌশলীদের মাসিক সমন্বয় সভায় সভাপতিত্ব করেন প্রধান প্রকৌশলী লে. কর্নেল মহিউদ্দিন আহমদ। এতে সচিব মোহাম্মদ আবুল হোসেন, তত্ত¡াবধায়ক প্রকৌশলী মো. আনোয়ার হোছাইন, মো. রফিকুল ইসলাম মানিক, মো. মাহফুজুল হক, মনিরুল হুদা, কামরুল ইসলামসহ ৯টি বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী এবং সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডসমূহের প্রকৌশলীবৃন্দ নিজ নিজ ওয়ার্ডে দায়িত্বের বিষয়ে মতামত তুলে ধরেন।
স্থায়ী কমিটির সভা
নগর ভবনের মিলনায়তনে গতকাল চসিকের নির্বাচিত ৫ম পরিষদের অর্থ ও সংস্থাপন, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা, পরিবেশ, ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক এবং আইন-শৃঙ্খলা বিষয়ক ৫টি স্থায়ী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভাসমূহে সভাপতিত্ব করেন মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন। সভাসমূহে সংশ্লিষ্ট স্থায়ী কমিটিসমূহের সভাপতি, সদস্য সচিব ও সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
সভার সভাপতি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন সবগুলো স্থায়ী কমিটির কর্মকাÐ গুরুত্বের সাথে পরিচালনার নির্দেশ দেন। মেয়র বলেন, নাগরিক দায়বদ্ধতা থেকে আমরা দায়িত্ব পালন করছি। নাগরিক স্বার্থে যেকোন ঝুঁকি নিয়ে সেবা নিশ্চিত করতে হবে। অর্থ ও সংস্থাপন বিষয়ে মেয়র বলেন, এ কমিটি অতীব গুরুত্বপূর্ন একটি কমিটি। আয়-ব্যায়ে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার স্বার্থে খাতওয়ারী হিসাব নিকাশ দেখাশোনা এ কমিটিকে করতে হবে।a



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ