Inqilab Logo

শনিবার, ২২ জানুয়ারী ২০২২, ০৮ মাঘ ১৪২৮, ১৮ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

ট্রেন চলাচল বন্ধ হওয়ার শঙ্কা

রেলওয়ের স্টাফদের বেতন-ভাতা অসন্তোষ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৮ নভেম্বর, ২০২১, ১২:০৩ এএম

রেলওয়ের রানিং স্টাফদের বেতন-ভাতা নিয়ে সৃষ্ট অসন্তোষ ও জটিলতা শেষ পর্যন্ত ট্রেনের ওপর গিয়ে পড়েছে। নির্দিষ্ট সময় ও গতি মেনে ট্রেন চালানোর কথা বলে ঢাকা-চট্টগ্রামসহ বিভিন্ন রুটে চলাচলকারী ট্রেনের গতি কমিয়ে দিয়েছেন রেলওয়ের পরিবহন বিভাগের আওতাধীন ট্রেনের রানিং স্টাফরা। এতে অনেক ট্রেনের গন্তব্যে স্থানে পৌঁছাতে অতিরিক্ত সময় লাগছে। গত কয়েকদিন ধরে কাঙিক্ষত মাইলেজ ভাতা আদায়ে বিক্ষোভ করার পাশাপাশি এই কৌশল নিয়েছেন ট্রেনের রানিং স্টাফরা। গতকাল রোববার রেলের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা-কর্মচারীরা এ তথ্য জানান।

রেলওয়ে শ্রমিক লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম মামুন সাংবাদিকদের বলেন, ‹রানিং স্টাফরা চলন্ত ট্রেনে যত কিলোমিটার দায়িত্ব পালন করেন। এর জন্য নির্ধারিত হারে ভাতা পেয়ে থাকেন। কিন্তু নতুন নিয়ম অনুযায়ী বেশি দায়িত্ব পালন করলেও ন্যায্য ভাতা পাবেন না রানিং স্টাফরা। বেশি কাজ করে কম ভাতা প্রদানের বিষয়টি অযৌক্তিক। আমরা আগের নিয়ম অনুযায়ী ভাতা প্রদানের জন্য রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ ও সরকারের প্রতি দাবি জানাচ্ছি।

জানা গেছে, অতিরিক্ত কাজ করে পাওনা সুবিধাবঞ্চিত হওয়ায় আন্দোলন চালিয়ে আসছেন রেলওয়ের রানিং স্টাফরা। সর্বশেষ অর্থ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সহকারী সচিব শামীম বানু শান্তি স্বাক্ষরিত এক আদেশে বলা হয়, চলন্ত ট্রেনে দৈনিক ১০০ কিলোমিটার কিংবা তার চেয়েও বেশি দায়িত্ব পালন করলেও ওই দিনের বেতনের ৭৫ শতাংশের বেশি মাইলেজ ভাতা পাবেন না সংশ্লিষ্ট রানিং স্টাফ। আর মাস শেষে এই মাইলেজ মূল বেতনের বেশি হবে না। এই আদেশ জারির পর থেকেই প্রতিবাদ জানিয়ে আসছিল রেলওয়ের রানিং স্টাফরা। এর প্রতিবাদের অংশ হিসেবে দেশের চট্টগ্রামের পাহাড়তলীতে রেলওয়ের লোকো গেটের সামনে বিক্ষোভ মিছিল করেন ট্রেনের চালক, গার্ড, টিটিসহ সর্বস্তরের রানিং স্টাফরা।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: রেলওয়ের স্টাফ
আরও পড়ুন