Inqilab Logo

শুক্রবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২২, ১৪ মাঘ ১৪২৮, ২৪ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

একজন আসিফ আলীর খোঁজে সুজন

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৯ নভেম্বর, ২০২১, ১২:০১ এএম

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের উত্তাপ এখনও চলছে। মরূর সেই উত্তাপের আঁচ সবচেয়ে বেশি পাওয়ার কথা ছিল এই উপমহাদেশে। তবে বাংলাদেশের পর ভারতের বিদায়ে কিছুটা ভাটা পড়েছে তাতে। তবে সেই শোকে বুঁদ হয়ে বসে থাকার জো নেই টাইগার শিবিরের। সামনেই পাকিস্তান সিরিজ। যে পাকিস্তানকে সুপার টুয়েলভের দুটি অসম্ভব ম্যাচ জিতিয়ে নায়ক বনে গেছেন আসিফ আলী। পরে বুড়ো হাতের ভেল্কি দেখিয়ে দলটিকে অপরাজিত থেকে সেমির টিকিট কাটিয়েছেন সোয়েব মালিক। বহুদিন ধরে তেমনই একজন হার্ডহিটার ম্যাচ উইনারের খোঁজে বাংলাদেশ। এবারের বিশ^কাপে ভরাডুবির পর টি-টোয়েন্টিসূলভ ব্যাটিংয়ের সেই আকাক্সক্ষা আরো বেড়েছে বহুগুণে। তারই খোঁজে নেমে পড়েছে বিসিবিও।
বিশ^কাপে স্মরণকালের ভয়াবহ বিপর্যয়ের পর নতুনভাবে ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা চলছে বাংলাদেশ শিবিরে। তারই অংশ হিসেবে কাজ শুরু করে দিয়েছেন খালেন মাহমুদ সুজন। ঘুণে খাওয়া এই ফরম্যাটের বাংলাদেশ দলে কয়েকজন তরুণকে যুক্ত করতে নবনিযুক্ত টিম ডিরেক্টর এরই মধ্যে মাঠে নেমেছেন। জাতীয় লিগ থেকে এরই মধ্যে তৌহিদ হৃদয়, সাইফ হাসান, নাজমুল হোসেন শান্ত ও ইয়াসির আলি চৌধুরী রাব্বিকে নিয়ে কাজ শুরু করে দিয়েছেন সুজন। আপাতত নির্দিষ্ট কিছু জায়গায় উন্নতিতে চোখ সাবেক এই অধিনাকের। গত দুই বছর ধরেই জাতীয় দলের বিভিন্ন স্কোয়াডে থেকেও ম্যাচ খেলার সুযোগ না পাওয়া ইয়াসির আলি জানালেন, শটের সংখ্যা বাড়ানোই তাদের লক্ষ্য।
গত দুদিন ধরেই মিরপুর শেরে বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বিশ্বকাপ স্কোয়াডের বাইরে থাকা ৭ ক্রিকেটারকে নিয়ে অনুশীলন করছেন সুজন। গতকাল সকাল ৯টা থেকে বেলা ১২টা পর্যন্ত চলে নিবিড় অনুশীলন। এই সেশনগুলোতে ব্যাটারদের দেওয়া হয়েছে নির্দিষ্ট কিছু টাস্ক। ইয়াসির, তৌহিদ হৃদয়, সাইফ হাসান, পারভেজ হোসেন ইমন, শান্তরা শটের সংখ্যা বাড়নো, বড় শট খেলার জন্য নিজেদের প্রস্তুত করছেন। অনুশীলন শেষে গণমাধ্যমকে ইয়াসির জানালেন, টি-টোয়েন্টির চাহিদা মেটাতেই উন্নতির পথ খুঁজছেন তারা, খালেদ মাহমুদও তাদের দিয়েছেন সেই বার্তা, ‘উনি (খালেদ মাহমুদ) বলেছেন আমাদের জন্য এটা অবশ্যই অনেক বড় সুযোগ। দলে থাকি না থাকি টি-টোয়েন্টিতে আমাদের ছোট খাটো কিছু জিনিস উন্নতি করা প্রয়োজন, মূলত সেসব জিনিস নিয়ে কাজ করা। যেমন রেঞ্জ হিটিং, ব্যাট সুইং এসব জিনিসগুলো।’
বাংলাদেশের টেস্ট স্কোয়াডগুলোতে নিয়মিত রাখা হয় ইয়াসিরকে। যদিও এখনো আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয়নি। ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি স্কোয়াডেও একাধিকবার থেকে ম্যাচ খেলার সুযোগ আসেনি। তবে ঘরোয়া পর্যায়ে টি-টোয়েন্টিতে বড় শট খেলতে দেখা যায় ইয়াসিরকে। ডানহাতি এই ব্যাটার জানালেন পাওয়ার হিটিংয়ের চাহিদা মেটাতেও প্রস্তুত তিনি, ‘সবসময় চাই তিন ফরম্যাটে বাংলাদেশকে সর্বোচ্চ পর্যায়ে প্রতিনিধিত্ব করতে। তবে আমার দলের লক্ষ্যটা যদি এমন হয় আমাকে পাওয়ার হিটিং করতে হবে তাহলে আমি নিজেকে সেভাবে প্রস্তুত করবো।’

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: টি২০ বাংলাদেশ

৬ নভেম্বর, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন