Inqilab Logo

শুক্রবার, ০১ জুলাই ২০২২, ১৭ আষাঢ় ১৪২৯, ০১ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী

ভর্তুকি দিয়ে হলেও জ্বালানি তেলের দাম কমান

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১২ নভেম্বর, ২০২১, ১২:০৩ এএম

করোনার ধকল কাটিয়ে উঠতে না উঠতেই জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধি ও সেই সুবাদে বাসভাড়া ২৭ শতাংশ বাড়ানোয় জনজীবন দুর্বিষহ হয়ে উঠেছে। তেলের দাম বাড়ার প্রভাব নিত্যপণ্যের বাজারেও পড়েছে। লফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে নিত্যপণ্য ও সবজির দাম। সব মিলিয়ে মানুষের এখন নাভিশ্বাস অবস্থা। জ্বালালি তেলের দাম কমানোর দাবিতে সেভ দ্য রোডের মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তারা এ কথা বলেন। গতকাল জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এ মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে বক্তারা ভর্তুকি দিয়ে হলেও জ্বালালি তেলের দাম কমানোর দাবি জানান।

বক্তারা বলেন, ডিজেল ও কেরোসিনের মতো নিত্য প্রয়োজনীয় জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধি হতে না হতেই ধর্মঘটের ডাক দেয় পরিবহন মালিক শ্রমিক সংগঠনগুলো। সেই ধর্মঘটে বন্ধ রাখা হয় সিএনজি চালিত গণপরিবহনও। কিন্তু কেন? কারণ অসহযোগ আন্দোলন, যাতে জনগণ বাধ্য হয় ভোগান্তি থেকে বাঁচতে তাদের ভাড়া বৃদ্ধি মেনে নিতে। এরপর হয়েছে সেটাই, ২৭ শতাংশ ভাড়া বৃদ্ধি করা হয়েছে। সেখানে যাত্রীদের কোনো প্রতিনিধি ছিল না, স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের কোনো প্রতিনিধিও ছিল না। নিজেরা নিজেরাই সিদ্ধান্ত নেন, নিজেরা নিজেরাই জানান তাদের সিদ্ধান্তের কথা। হঠাৎ করেই এমন একটি পরিস্থিতিতে গাড়ি ভাড়া বৃদ্ধিতে জনগণ হতবাক।
মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, লক্ষ্য করলে দেখবেন যে, রাজধানীর গাবতলী থেকে মতিঝিলের দূরত্ব ১১ দশমিক ৮ কিলোমিটার। প্রতি কিলোমিটারে এক টাকা ৭০ পয়সা হিসাবে এ পথের ভাড়া ছিল ২০ টাকা। কিন্তু নিতো ২৫ টাকা। ডিজেলের দাম বাড়ায় ৪৫ পয়সা বেড়ে কিলোমিটারে বাসের ভাড়া হয়েছে দুই টাকা ১৫ পয়সা। এ হিসাবে মতিঝিল-গাবতলীর ভাড়া হবে ২৫ টাকা। কিন্তু নেওয়া হচ্ছে ৩৫ টাকা। শুধু এখানেই শেষ নয়, বিশ্বময় দাম বৃদ্ধির খোড়া অজুহাতে ডিজেলের দাম এক লাফে ১৫ টাকা বেড়ে ৮০ টাকা লিটার হওয়ায় ভাড়া বৃদ্ধির দাবিতে সারাদেশে বাস বন্ধ করে দেন মালিকরা। কোটি কোটি মানুষ জিম্মি হয়ে পড়েন তিন দিনের মহাদুর্ভোগের ধর্মঘটে।

এসময় সংগঠনের নেতারা সরকারকে উদ্দেশ্য করে বলেন, আমরা আশা করি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সাধারণ মানুষের কথা ভেবে ভর্তুকি দিয়ে জ্বালানি তেলের দাম কমাবেন। একই সঙ্গে বর্ধিত গাড়ি ভাড়া প্রত্যাহারে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিয়ে আমজনতাকে করোনা পরিস্থিতি সামলে উঠার ব্যবস্থা করবেন।

সেভ দ্য রোডের চেয়ারম্যান জেড এম কামরুল আনামের সভাপতিত্বে এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন- সংগঠনটির প্রতিষ্ঠাতা মোমিন মেহেদী, ভাইস চেয়ারম্যান ও ঢাকা সাব এডিটরস কাউন্সিলের সহ-সভাপতি আনজুমান আরা শিল্পী, সাংগঠনিক সম্পাদক মহিদুল প্রমুখ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ