Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ২০ জানুয়ারী ২০২২, ০৬ মাঘ ১৪২৮, ১৬ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

আড়াই হাজারে দ্রুততম বাবর

গুরুকে ছাপিয়ে শিষ্য

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৩ নভেম্বর, ২০২১, ১২:০৩ এএম

চলতি বিশ্বকাপে রেকর্ডের পর রেকর্ড গড়ে চলেছেন পাকিস্তান অধিনায়ক বাবর আজম। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে এক আসরে চারটি হাফসেঞ্চুরি করে ছুঁয়ে ফেলেছেন বিরাট কোহলি ও দলটির বর্তমান ব্যাটিং কোচ ম্যাথু হেইডেনকে। ২০০৭ বিশ্বকাপে হেইডেন ও ২০১৪ বিশ্বকাপে কোহলি এ কীর্তি গড়েছিলেন। গতকাল এবারের আসরের দ্বিতীয় সেমিফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে অর্ধশতক পেলেই এককভাবে রেকর্ডটা নিজের করে নিতে পারতেন পাকিস্তান দলপতি। সেটি ৫৬ রানে নিয়ে যেতে পারলেই বিশ্বকাপের এক আসরে কোহলিকে টপকে সবচেয়ে বেশি রানের মালিকও হতে পারতেন তিনি। কিন্তু দুর্দান্ত খেলতে থাকা বাবর ফিরে যান ৩৯ রানে। অ্যাডাম জাম্পাকে উড়িয়ে মারতে গিয়ে ডেভিড ওয়ার্নারের হাতে ১৭ রানের আক্ষেপ নিয়ে ধরা পরেন এই ওপেনার।

চলতি আসরে বাবরের রান এখন ৩০৩। কিন্তু এক আসরে সবচেয়ে বেশি রানের তালিকায় চূড়ায় আছেন কোহলি। ২০১৪ বিশ্বকাপে ৩১৯ রান করেছিলেন ভারতের ‘সাবেক’ টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক। তবে একটি জায়গায় ঠিকই কোহলিকে ছাপিয়ে গেছেন র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ তারকা। আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে আড়াই হাজার রানের মাইলফলকে দ্রুততম বাবর! কোহলির ৬৮ ইনিংসের বিপরীতে বাবরের লেগেছে ৬ ইনিংস কম।

তবে সুপার টুয়েলভের শেষ ম্যাচে অধিনায়ক হিসেবে এক বিশ্বকাপে সবচেয়ে বেশি রান করার রেকর্ডটি নিজের করে নিয়েছিলেন বাবর। এর আগে অধিনায়ক হিসেবে ২০১২ বিশ্বকাপে মাহেলা জয়াবর্ধনে করেছিলেন ২১২ রান। মাহেলাকে ছাপিয়ে ওই সিংহাসনে এখন পাক অধিনায়কের দখলে। যিনি চলতি বিশ্বকাপে দারুণ সময় কাটাচ্ছেন। উদ্বোধনী ম্যাচে ভারতের বিপক্ষে ৬৮ রানের অপরাজিত ইনিংস দিয়ে সৌরভ ছড়ানো শুরু। এরপর কেবল নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ৯ রান করে ফিরেছেন। পরের তিন ম্যাচেই তুলে নিয়েছেন টানা তিন হাফসেঞ্চুরি। সবমিলিয়ে চার হাফসেঞ্চুরিতে এই বিশ্বকাপে কীর্তি গড়েছেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: "টি২০ কাপ"

১৪ নভেম্বর, ২০২১
১৪ নভেম্বর, ২০২১
১৩ নভেম্বর, ২০২১
১৩ নভেম্বর, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন