Inqilab Logo

সোমবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২২, ১০ মাঘ ১৪২৮, ২০ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

দৌলতখানে নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতা, দুই দফা সংঘর্ষে আহত-২০

দৌলতখান (ভোলা) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১২ নভেম্বর, ২০২১, ৪:৪২ পিএম

ভোলার দৌলতখানে নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় দুই পক্ষের অন্তত ২০জন আহত হয়েছে। শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলা পরিষদের সামনের সড়কে এ সহিংসতার ঘটনা ঘটে। গুরুতর আহতরা হলেন, কামাল হোসেন, আজাদ বাবলু,মিরাজ ছলেমান, মোঃ সিরাজ,জাফর হানিফ, মামুন, জাকির,আলমগীর কবির, মিরাজ, দুলাল, ও বাচ্চু। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, শুক্রবার সকালে ভবানীপুর ইউনিয়নের ৩ ওয়ার্ডের ফুটবল প্রতীকের মেম্বার প্রাথী মোঃ কামাল হোসেন তাঁর কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ের দিকে আসছিল। ওই সময় একই ওয়ার্ডের মোরগ প্রতীকের প্রার্থী মোঃ সিরাজের সমর্থকরা উপজেলা পরিষদের সামনের সড়কে মেম্বার প্রার্থী কামাল হোসেন ও তাঁর কর্মী-সমর্থকদের ওপর হামলা করে। একপর্যায়ে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়। সংঘর্ষে আহত ২০ জনকে দৌলতখান উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়েছে। আহত মেম্বার প্রার্থী মোঃ কামাল হোসেন জানান, গত বৃহস্পতিবার ভবানীপুর ইউপির ৩ নং ওয়ার্ডের নির্বাচনের ভোটগ্রহণের দিন ভোট গণনায় অনিয়মের বিষয়ে তিনি ওই দিন সন্ধ্যায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ দাখিল করেন। পরে ওই ওয়ার্ডের সাধারণ ইউপি সদস্য পদের ফলাফল স্থগিত করা হয়। বিষয়টি অবগত করতে তিনি সকালে কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে ওই ইউনিয়ন থেকে নির্বাচিত চেয়ারম্যান আওলাদ হোসেনের কাছে যান। ওই সময় প্রতিপক্ষ সিরাজের কর্মীরা তার সমর্থকদের ওপর হামলা করে । হামলায় তাঁর ১২ জন সমর্থক আহত হন। পরে আহতদের দৌলতখান হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার সেখানেও সমর্থকদের ওপর হামলা করা হয়। এ ব্যাপারে মেম্বার প্রার্থী মোঃ সিরাজের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করে সম্ভব হয়নি। এ ব্যাপরে দৌলতখান থানার উপ-পরিদর্শক(এসআই) ইসমাইল হোসেন বলেন, দুই পক্ষের মধ্যে মারামারি হয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনেছে। দৌলতখান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) বজলার বলেন, দুই পক্ষের মধ্যে মারামারির ঘটনা ঘটেছে। পরিস্থিতি এখন শান্ত রয়েছে। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।



 

Show all comments
  • jack ali ১২ নভেম্বর, ২০২১, ৪:৫০ পিএম says : 0
    তোরা সব মারামারি করে মরে যা তাহলে আমরা এই দেশে একটু শান্তিতে বসবাস করতে পারব
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সংঘর্ষ


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ