Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০, ৪ কার্তিক ১৪২৭, ০২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

দুর্নীতি প্রমাণে ব্যর্থ হলে আইনগত ব্যবস্থা

প্রকাশের সময় : ১৯ অক্টোবর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

স্টাফ রিপোর্টার : দিনব্যাপী নানা কর্মসূচির মধ্যদিয়ে শহীদ শেখ রাসেলের জন্মদিন পালন করেছে আওয়ামী যুবলীগ। যুবলীগের উদ্যোগে বনানী কবরস্থানে পুষ্পস্তবক অর্পণ, রাজধানীর শিল্পকলা একাডেমীর ৬নং গ্যালারীতে সংবাদ চিত্রপ্রদর্শনী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। গতকাল মঙ্গলবার সকাল ১০টায় বনানী কবরস্থানে শেখ রাসেল ও ১৫ আগস্টের শহীদদের কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানায় যুবলীগের নেতৃবৃন্দ।
এরপর শিল্পকলা একাডেমীতে সংবাদ চিত্রপ্রদর্শনী ও আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ওবায়দুল কাদের বলেন, বিশ্ব ব্যাংকের প্রেসিডেন্ট জিম ইয়ং কিমের কাছে বাংলাদেশের উন্নয়ন প্রকল্পে দুর্নীতি হচ্ছে বলে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেনের দাবির প্রতিক্রিয়া জানান। তিনি বলেন, আসুন, প্রমাণ করুন। না হলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। তিনি আরও বলেন, বিশ্ব ব্যাংকের প্রেসিডেন্ট জিম ইয়ং কিমের কাছে আপনারা অনেক নালিশ দিয়েছেন। মোশাররফ সাহেব আপনি বলেছেন, বাংলাদেশের উন্নয়ন প্রকল্পে দুর্নীতি হচ্ছে, বিশ্ব ব্যাংকের ঋণ সহায়তায় বাস্তবায়নাধীন প্রকল্পগুলোতে দুর্নীতি হচ্ছে। আমি বলব, আপনারা আসুন প্রকল্প ঘুরে দেখে যান। কোন ধরনের গরমিল খুঁজে পান কিনা। আর যদি না আসেন তাহলে এই সকল অপপ্রচারেরর জন্য আপনাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। আপনাদের বিচার করা হবে।
বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সমালোচনা করে আওয়ামী লীগের সভাপতি মÐলীর এই সদস্য বলেন, তিনি শুধু অভিযোগ দিতেই শিখেছেন, এটাই তার মূল পুঁজি। চীনের প্রেসিডেন্টের কাছে অভিযোগ করেছেন যে বাংলাদেশে গণতন্ত্র নেই। নির্বাচনের মাধ্যমে আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসেনি। চীনা প্রেসিডেন্টের জবাব আমরা শান্তি চাই। চীনা প্রেসিডেন্টের এই উত্তরে হয়তো খালেদা জিয়ার অভিযোগ-মায়া কান্না ব্যর্থ হয়েছে।
সভাপতির বক্তব্যে যুবলীগের চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরী বলেন, সম্মেলনে পোস্ট নিয়ে যারা মরণপণ চেষ্টা করছেন তাদের বলি দলে যারা এমপি-মন্ত্রী হবেন তারা দয়া করে দলে পোস্ট নিবেন না। দলের নেতাকর্মীদের কাজ হলো দেশের প্রতি দায়বদ্ধ থেকে জনগণের সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকা। জনগণের দাবি-দাওয়া এমপি-মন্ত্রীদের সামনে তুলে ধরা।
তিনি আরও বলেন, শহীদ শেখ রাসেলের জন্ম ১৮ অক্টোবর ১৯৬৪। মৃত্যু ১৫ আগস্ট ১৯৭৫। পৃথিবীতে তার আয়ুষ্কাল মাত্র ১০ বছর ১০ মাস। কৈশোরে এক অফুরন্ত সম্ভাবনার দুয়ারে পা দিতেই যার জীবন কেড়ে নিলো ঘাতকের বুলেট। যে ঘাতকরা সেদিন হত্যা করেছিল জাতির পিতাকে, বাঙালির স্বাধীনতা, বাঙালির স্বপ্নকে। বাঙালি জাতির শেকড় উপড়ে ফেলার জন্য সেদিন শেখ রাসেলও বাঁচতে পারেনি। অথচ যুদ্ধেরও একটা রীতি আছে। শিশু, গর্ভবতী নারীরা আন্তর্জাতিকভাবে যুদ্ধের আক্রমণের নিশানার বাইরে থাকে। কিন্তু ’৭১-এর পরাজিত শক্তি, জিয়া-মোশতাক খুনী চক্র সেদিন মানবতার শেষ চিহ্নটুকু মুছে ফেলেছিল। এবছর শেষ ৫২ পেরিয়ে ৫৩ তে পা দিতো ’৭৫-এর শিশু রাসেল। পরিণত একজন মানুষ হিসেবে এই বাংলাদেশকে এগিয়ে নেবার নেতৃত্ব দিতো। রাসেল ছিলো অসম্ভব মেধাবী। তার বোনেরা তাকে বই পড়িয়ে শোনাতো। একটি বইয়ের একটা লাইন বাদ গেলে রাসেল তা মনে করিয়ে দিতো। আজ রাসেল থাকলে একজন মেধাবী মানুষ বাংলাদেশকে এগিয়ে নেয়ার সংগ্রামে থাকতো প্রথম সারিতে।
আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য রাখেন, যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক মো. হারুনুর রশীদ, প্রেসিডিয়াম সদস্য মজিবুর রহমান চৌধুরী, ফারুক হোসেন, মাহবুবুর রহমান, আব্দুস সাত্তার মাসুদ, আতাউর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক বদিউল আলম, আসাদুল হক আসাদ, ফারুক হোসেন তুহিন, সম্পাদক মÐলীর সদস্য কাজী আনিসুর রহমান, মিজানুল ইসলাম মিজু, আনোয়ার হোসেন, ইকবাল মাহমুদ বাবলু, শ্যামল কুমার রায়, জহির উদ্দিন খসরু, ঢাকা মহানগর উত্তর সভাপতি মাইনুল হোসেন খান নিখিল, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ সভাপতি ইসমাইল চৌধুরী সম্রাট, ঢাকা মহানগর উত্তর সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল হোসেন, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম রেজা প্রমুখ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: দুর্নীতি প্রমাণে ব্যর্থ হলে আইনগত ব্যবস্থা
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ