Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ২০ জানুয়ারী ২০২২, ০৬ মাঘ ১৪২৮, ১৬ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

স্বপ্ন দেখানো রিজওয়ান ছিলেন আইসিইউতে!

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৩ নভেম্বর, ২০২১, ১২:০১ এএম

এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে যে উদ্বোধনী ব্যাটিং জুটি নিয়ে সবচেয়ে বেশি আলোচনা হয়েছে, তা হলো পাকিস্তানের রিজওয়ান-বাবর জুটি। বিশেষ করে সুপার টুয়েলভের প্রথম ম্যাচে ভারতকে ১০ উইকেটে হারানোর পর সব দলের মধ্যে একটা চিন্তাই ঢুকে যায়, কীভাবে থামানো যায় এ জুটিকে, কিন্তু থামানো যায়নি। সুপার টুয়েলভের প্রতি ম্যাচেই হয় বাবর না হলে রিজওয়ান, অথবা দুজন একসঙ্গে ক্রিজে থেকে প্রতিপক্ষের বোলারদের নাকাল করে ছেড়েছেন।
গতপরশু রাতে দ্বিতীয় সেমিফাইনালেও দুজনের একই রুপ দেখল ক্রিকেট বিশ্ব। টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই অস্ট্রেলিয়ান বোলারদের চাপে ফেলে দেন বাবর-রিজওয়ান। বাবর ৩৪ বলে ৩৯ করে ফিরে গেলেও এক পাশ আগলে রেখে রিজওয়ান খেলেন ৫২ বলে ৬৭ রানের দারুণ এক ইনিংস। অথচ ম্যাচের এক রাত আগেই হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) ভর্তি ছিলেন তিনি!
পাকিস্তান দলের বিশ্বমানের কোন ব্যাটসম্যান আছেন, এমন প্রশ্নের উত্তরে সবাই বাবর আজমের নামই বলবে। কিন্তু টি-টোয়েন্টিতে রিজওয়ান যে তার থেকে কম যান না, সাম্প্রতিক পরিসংখ্যান দেখলেই তা বোঝা যায়। ক্রিকেটের এ সংক্ষিপ্ত সংস্করণে কিছুদিন আগপর্যন্তও এক পঞ্জিকাবর্ষে সর্বোচ্চ রান করার রেকর্ডের মালিক ছিলেন বাবর। এ বছর রিজওয়ান তাঁকে ছাড়িয়ে গেছেন অনেক আগেই, এই ম্যাচে ব্যবধানটা শুধু বাড়িয়ে নিলেন মাত্র।
অথচ ম্যাচের এক দিন আগেও হাসপাতালে ছিলেন রিজওয়ান। কিন্তু দলকে বিপদে ফেলে হাসপাতালে রয়ে যাননি এই ‘যোদ্ধা’। হাসপাতাল থেকে সোজা যোগ দিয়েছেন দলের সঙ্গে, সেমিফাইনালে খেলেছেন দারুণ এক ইনিংস। পাকিস্তান দলের ডাক্তার নাজীব সামরু ম্যাচ শেষে জানান, ‘রিজওয়ান গুরুতর ফুসফুসের সংক্রমণ নিয়ে নভেম্বরের ৯ তারিখ নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে ভর্তি হন। সুস্থ হওয়ার জন্য তাঁকে দুই দিন সেখানে কাটাতে হয়। সে অবিশ্বাস্য দ্রুততায় সেরে উঠেছে এবং ম্যাচ খেলার জন্য ফিটনেস ফিরে পেয়েছে। দেশের হয়ে পারফর্ম করার জন্য সে ছিল দৃঢ় প্রতিজ্ঞাবদ্ধ এবং আমরা তো আজকে (পরশু) দেখেছি সে কেমন খেলেছে।’
এর আগেই রিজওয়ানের উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করেন পাকিস্তানের ব্যাটিং পরামর্শক ম্যাথু হেইডেন, ‘আপনারা হয়তো জানেন না, রিজওয়ান আসলে এক রাত আগে ফুসফুস-সংক্রান্ত জটিলতা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি ছিল। ও একজন যোদ্ধা।’ পাশাপাশি বিশ্বকাপে রিজওয়ানের খেলা নিয়ে মুগ্ধতাও প্রকাশ করেন এই সাবেক অজি ওপেনার, ‘পুরোটা টুর্নামেন্টেই ও অসাধারণ খেলেছে। ও এবং বাবর খুবই সাহসী। আজকে (পরশু) রাতটা ওর (রিজওয়ানের) জন্য অসাধারণ।’



 

Show all comments
  • Mamunur Rashid ১৩ নভেম্বর, ২০২১, ১:০৯ এএম says : 0
    শারীরিকভাবে যেমন অসাধারণ ফিট এবং চ্যালেন্জিং, তেমনি মানসিকভাবে দুর্দান্ত মনোবলের অধিকারী! গড়ে তার প্রতিটি সিক্সের গতি ছিল ১০০ কিলোমিটার +! পাকিস্তান সত্যি একটি দুর্দান্ত, আবেগীয় ও লড়াকু মেজাজের দল তৈরী করেছে! নিঃসন্দেহে প্রশংসা পাওয়ার যোগ্য।
    Total Reply(0) Reply
  • Rana Hamid ১৩ নভেম্বর, ২০২১, ১:০৯ এএম says : 0
    Our Captain Mahmudullah would have demanded a noble if he had to do this. He was crying as he had to take some pain killers.
    Total Reply(0) Reply
  • Masum Billah ১৩ নভেম্বর, ২০২১, ১:১০ এএম says : 0
    আর আমদের সোনার ছেলেরা ১ টা ফিফটি করতে পারলেই খেলা ভুলে যায় কয়েক সিরিজের জন্য।
    Total Reply(0) Reply
  • শেখ সাহেব ১৩ নভেম্বর, ২০২১, ১:১০ এএম says : 0
    অনেক অনেক শুভকামনা,,,,,, আমি পাকিস্তান টিমকে সাপোর্ট না করলেও রিজওয়ানকে অনেক পছন্দ করি
    Total Reply(0) Reply
  • Didarul Alam ১৩ নভেম্বর, ২০২১, ১:১০ এএম says : 0
    "যদিও জয়ী দলের একজন নন রিজওয়ান, কিন্তু যে লড়াইটা তিনি করলেন, আইসিউ-তে দুই দিন থাকার পর, তা আসলেই অনুপ্রেরণাদায়ী।"
    Total Reply(0) Reply
  • Masud Rana ১৩ নভেম্বর, ২০২১, ১:১১ এএম says : 0
    পাকিস্তান সাইদ আনোয়ারের পরে একটা গ্রেট ব্যাটসম্যান পেল। যদি সাইদ আনোয়ার ২০০৩ সালে আর্লি অবসর না নিয়ে টেন্ডুলকারের মত আরো দশটা বছর খেলতো ক্রিকেটের রেকর্ডবুক অন্য রকম হতে পারতো।।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: "টি২০ কাপ"

১৪ নভেম্বর, ২০২১
১৪ নভেম্বর, ২০২১
১৩ নভেম্বর, ২০২১
১৩ নভেম্বর, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন