Inqilab Logo

সোমবার, ১৫ আগস্ট ২০২২, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৯, ১৬ মুহাররম ১৪৪৪

লেনদেনের অর্ধেকের বেশিই বেক্সিমকোর

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৬ নভেম্বর, ২০২১, ১২:০৩ এএম

সপ্তাহের দ্বিতীয় কার্যদিবসে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) বøক মার্কেটে মোট ৯৪ কোটি ৩২ লাখ ৩৭ হাজার টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। অংশ নিয়েছিল ৩৩টি প্রতিষ্ঠান। তবে এর অর্ধেকের বেশি লেনদেন হয়েছে বেক্সিমকোর। গতকাল বøকে বেক্সিমকোর ৫৪ কোটি ৯৫ লাখ ৬০ হাজার টাকা লেনদেন হয়েছে। দ্বিতীয় স্থানে থাকা ব্র্যাক ব্যাংকের লেনদেন হয়েছে আট কোটি ৭৫ লাখ তিন হাজার টাকার। আট কোটি ১৯ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনের মাধ্যমে তৃতীয় স্থানে রয়েছে ফরচুন সুজ।
এছাড়া বেক্সিমকো ফার্মার পাঁচ কোটি এক লাখ ২৫ হাজার টাকা, জিনেক্স ইনফোসিসের তিন কোটি ৩৯ লাখ ৩৪ হাজার টাকা, কাট্টলী টেক্সটাইলের দুই কোটি ৩৪ লাখ ২১ হাজার টাকা, আলহাজ টেক্সটাইলের এক কোটি ৯২ লাখ ৮৭ হাজার টাকা, সালভো কেমিক্যালসের এক কোটি ৬৫ লাখ ১৫ হাজার টাকা, ওরিয়ন ফার্মার এক কোটি ৫৩ লাখ ৭৫ হাজার টাকা এবং প্রভাতী ইন্স্যুরেন্সের এক কোটি আট লাখ ৭৫ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।
বাকি প্রতিষ্ঠানগুলোর এককভাবে এক কোটি টাকার কম লেনদেন হওয়া প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে এমবিএল ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ডের ৮৪ লাখ ৪৩ হাজার টাকা, মোজাফফর হোসেন স্পিনিংয়ের ৫৪ লাখ পাঁচ হাজার টাকা, ফিনিক্স ফাইন্যান্সের ৫৩ লাখ ৭৬ হাজার টাকা, গ্রিনডেল্টা মিউচুয়াল ফান্ডের ৫৩ লাখ সাত হাজার টাকা এবং সাইফ পাওয়ারের ৫১ লাখ ৫৫ হাজার টাকার লেনদেন হয়।
এককভাবে ৫০ লাখ টাকার কম লেনদেন হওয়া প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে ন্যাশনাল ফিড মিলসের ৩১ লাখ ৬৯ হাজার টাকা, সিমটেক্সের ২৯ লাখ ১৮ হাজার টাকা, আরডি ফুডের ২৮ লাখ ৭১ হাজার টাকা, ঢাকা ডাইংয়ের ২৪ লাখ ১০ হাজার টাকা, লাফার্জহোলসিম বাংলাদেশের ১৭ লাখ ৪১ হাজার টাকা, আলিফ ইন্ডাস্ট্রিজের ১৭ লাখ ৩১ হাজার টাকা, মীর আক্তারের ১৫ লাখ ৬২ হাজার টাকা, ইস্টার্ন ইন্স্যুরেন্সের ১২ লাখ ৩০ হাজার টাকা, অ্যাডভেন্ট ফার্মার ১১ লাখ ৭৩ হাজার টাকা এবং এনার্জিপ্যাক পাওয়ারের ১০ লাখ ১০ হাজার টাকার লেনদেন হয়েছে।
এছাড়া এককভাবে ১০ লাখ টাকার কম লেনদেন হওয়া প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে সায়হাম কটনের আট লাখ ৫৫ হাজার টাকা, আইএফআইসি ব্যাংকের সাত লাখ ১২ হাজার টাকা, গ্রামীণফোনের ছয় লাখ ৯৯ হাজার টাকা, মালেক স্পিনিংয়ের ছয় লাখ ৮৮ হাজার টাকা, গোল্ডেন হার্ভেস্টের ছয় লাখ ৬০ হাজার টাকা, গ্রামীণ ওয়ান: স্কিম-২’র ছয় লাখ দুই হাজার টাকা, ডেল্টালাইফের পাঁচ লাখ ১৭ হাজার টাকা এবং বিডিকমের পাঁচ লাখ নয় হাজার টাকার লেনদেন হয়েছে।

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বেক্সিমকো

২ ডিসেম্বর, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন

ব্যাংকগুলোর দ্রুত রফতানি আয় নগদায়নের নির্দেশ

খোলাবাজারে ডলারের দাম যখন সর্বোচ্চ ১২০ টাকায় ঠেকেছে। তখন সংকটে লাগামহীন বৈদেশিক মুদ্রা ডলারের বাজার নিয়ন্ত্রণে রোববার (১৪ আগস্ট) বিকেলে ব্যাংক প্রধান নির্বাহীদের সংগঠন অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকার্স বাংলাদেশ (এবিবি) ও বাংলাদেশ ফরেন এক্সচেঞ্জ ডিলারস অ্যাসোসিয়েশনের (বাফেদা) সঙ্গে বৈঠকে বসে বাংলাদেশ ব্যাংক। বৈঠকে চলমান সংকট নিরসনে ব্যাংক প্রধানদের সঙ্গে বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনার পাশাপাশি দিক নির্দেশনা দেয় কেন্দ্রীয় ব্যাংক। সভাশেষে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের মুখপাত্র মো. সিরাজুল ইসলাম জানান, আমদানি ব্যয় কমে যাওয়ায় শিগগিরই ডলারের বাজারে স্বস্তি ফিরবে। এছাড়া ব্যাংকগুলোকে রফতানি আয়ের দ্রুত নগদ আদায়ের নির্দেশনাও দেয়া হয়েছে।   গণমাধ্যমকর্মীদের প্রশ্নের জবাবে তিনি আরও বলেন, আমদানি-রফতানির ক্ষেত্রে আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো কি দামে ডলার বেচাকেনা করছে, তার রিপোর্ট বাংলাদেশ ব্যাংকে দেয়ার নির্দেশনাও দেয়া হয়েছে। এ সময় কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্দেশনা মেনে চলার কথা জানান ব্যাংকাররা।   এ দিকে রোববার (১৪ আগস্ট) খোলাবাজারে ডলারের দাম পর্যালোচনা করে দেখা যায়, বর্তমানে কার্ব মার্কেটে ডলার বিক্রি হচ্ছে ১১২ থেকে ১১৪ টাকায়। মতিঝিলের কয়েকটি মানি এক্সচেঞ্জের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, বর্তমানে তারা ১১০ থেকে ১১১ টাকা দরে ডলার কিনছে এবং বিক্রি করছে ১১২ থেকে ১১৪ টাকা দরে। তবে ডলার ব্যবসায়ীরা বলছেন, দাম কমায় বলা যাবে না বাজার স্থিতিশীল হয়েছে। যতদিন না টাকার মান আন্তর্জাতিক পর্যায়ে বাড়ছে, বাজার স্থিতিশীল হচ্ছে, ততদিন পর্যন্ত ডলারের বাজার দোদুল্যমান থাকার শঙ্কা করেছেন ব্যবসায়ীরা।  

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ