Inqilab Logo

শুক্রবার, ২১ জানুয়ারী ২০২২, ০৭ মাঘ ১৪২৮, ১৭ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

ববিতার ময়না পাখির কষ্ট

বিনোদন রিপোর্ট: | প্রকাশের সময় : ১৯ নভেম্বর, ২০২১, ১২:০৩ এএম

প্রখ্যাত অভিনেত্রী ববিতা দীর্ঘদিন ধরে একটি ময়না পাখি পোষতেন। পাখিটিকে কথাও শিখিয়েছিলেন। প্রায় ৮-৯ বছর ধরে তিনি এটিকে পোষছিলেন। সম্প্রতি তার ময়না পাখিটি মারা গেছে। এতে তিনি খুব কষ্ট পেয়েছেন। ববিতা এখন দেশের বাইরে কানাডায় পুত্র অনিকের কাছে আছেন। সেখানে থাকা অবস্থায়ই ময়না পাখির মৃত্যুর খবর শোনেন। শুনে তার খুব মন খারাপ হয়েছে। ববিতা বলেন, ‘ঢাকা থেকে যখন ময়না’র মৃত্যুর খবরটি শুনেছি, তখন খুব কষ্ট পেয়েছি। খুব কান্না পেয়েছিলো। পাখিটি আমার পরিবারেরই একজন সদস্যর মতো ছিলো। তারসঙ্গে আমার অনেক সময় কাটতো। আমার মতো করে হাসতো, প্রতিদিন ঘুম থেকে উঠলেই আমাকে দেখে বলতো অনিক কই, আমাকে পপি আপা বলে ডাকতো, সবাই চলে যাবার সময় বলত খোদা হাফেজ। এসব মনে করে কষ্ট হচ্ছে। উল্লেখ্য, ববিতা ঢাকার গুলশানে তার বাসায় ছাদ বাগান করেছেন। সেখানে নানা ধরনের গাছ-গাছালি লাগিয়েছেন। তার বাগানটি বেশ খ্যাতি অর্জন করে। ছাদের উপর প্রকৃতির এক অপার সৌন্দর্য সৃষ্টি করে রেখেছেন। তার এই ছাদ বাগান নিয়ে বিভিন্ন সময়ে প্রতিবেদনও প্রকাশিত হয়। এদিকে ছেলে অনিকের সঙ্গে ববিতার দারুণ সময় কাটছে। করোনার কারণে বিগত প্রায় দেড় বছর তিনি ছেলের কাছে যেতে পারেননি। এ নিয়ে দেশে তার খুব মন খারাপ হয়েছিল। বিধিনিষেধ উঠে যাওয়ায় তিনি কানাডায় অনিকের কাছে যান। বলা যায়, অনিককে নিয়ে কানাডায় তার মূল সংসারজীবন কাটছে। অনিক সেখানে চাকরি করে। সকালে অফিসে যায় ফিরে সন্ধ্যায়। সপ্তাহে শনি ও রবিবার দু’দিন ছুটি থাকে। এই দু’দিন মা ও ছেলে ইচ্ছেমতো ঘুরে বেড়ান এবং ঘরের জন্য নানান প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র কেনাকাটা করেন। তবে ববিতা কবে নাগাদ দেশে ফিরবেন তা জানাননি। এরইমধ্যে আমেরিকাতে তিনি করোনার বুস্টার ডোজও নিয়েছেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ববিতার ময়না পাখির কষ্ট

১৯ নভেম্বর, ২০২১
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ