Inqilab Logo

সোমবার, ১৫ আগস্ট ২০২২, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৯, ১৬ মুহাররম ১৪৪৪

আর্জেন্টিনার চমৎকার বছরে উচ্ছ্বসিত কোচ

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৯ নভেম্বর, ২০২১, ১২:০১ এএম

সব ম্যাচে দল মন ভরানো ফুটবল খেলেছে এমন নয়। সব সময় যে জয় এসেছে, তাও নয়। কিন্তু সকল পরীক্ষাতেই অপরাজিত থেকে গেছে দল। ২৮ বছরের শিরোপা খরা কাটিয়ে জিতেছে বড় শিরোপা- কোপা আমেরিকা। পাঁচ ম্যাচ বাকি থাকতেই নিশ্চিত হয়ে গেছে কাতার বিশ্বকাপে খেলা। সব মিলিয়ে বছরটি আর্জেন্টিনার জন্য প্রাপ্তির। কোচ হিসেবে জাতীয় দলের সঙ্গে চমৎকার একটি বছর কাটিয়ে খুশিতে ভাসছেন লিওনেল স্কালোনি।

সবশেষ ম্যাচেই কঠিন এক চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছিল তার দল। লাতিন আমেরিকা অঞ্চলের বাছাইয়ে বাংলাদেশ সময় বুধবার ভোরে ব্রাজিলের বিপক্ষে গোলশূন্য ড্র করে আর্জেন্টিনা। পরে দিনের অন্য ম্যাচে একুয়েডরের বিপক্ষে চিলি হেরে যাওয়ায় বিশ্বকাপে খেলা নিশ্চিত হয়ে যায় লিওনেল মেসি, অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়াদের।
এই ড্রয়ে সব মিলিয়ে ২৭ ম্যাচ অপরাজিত থেকে রইলো আর্জেন্টিনা, যার শুরুটা হয়েছিল ২০১৯ সালের মাঝামাঝি সময়ে। অজেয় এই যাত্রার পথে চার মাস আগে স্কালোনির দলের হাতে উঠে কোপা আমেরিকার শিরোপা, যা ছিল প্রায় তিন দশকের মধ্যে দেশটির প্রথম বড় কোনো শিরোপা। ম্যাচ শেষে অপরাজিত থেকে লক্ষ্য পূরণ করতে পারায় সন্তুষ্টির কথা জানালেন স্কালোনি, ‘এটি একটি দুর্দান্ত বছর ছিল। কোপা জেতা, অপরাজিত থেকে বিশ্বকাপে খেলা নিশ্চিত করা। এটি একটি স্বপ্নময় যাত্রা ছিল।’
২০১৮ সালে যখন স্কালোনিকে আর্জেন্টিনার নিয়োগ দেওয়া হয়, এর আগে কখনও তার কোনো জাতীয় দলকে কোচিং করানোর অভিজ্ঞতা ছিল না। তিন বছরে দলটির তিনি সব বিভাগই বেশ গুছিয়ে নিয়েছেন, যাদের নিয়ে কাতার বিশ্বকাপে বড় কিছু অর্জনের আশায় বুক বাঁধতেই পারেন সমর্থকরা।
স্কালোনির সময়ে সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য হলো লিওনেল মেসির জাতীয় দলের হয়ে খেলা উপভোগ করাটা। অতীতে উত্থান-পতনের মধ্য দিয়ে যাওয়া মেসি সাম্প্রতিক বছরগুলোতে তার আর্জেন্টিনা ক্যারিয়ারের সেরা সময়টা পার করছেন বলেই মনে করেন অনেকে। স্কালোনির কোচিংয়ে লাতিন আমেরিকার দেশটির মিডফিল্ডে এসেছে স্থিরতা ও শৃঙ্খলা, যার নেতৃত্বে আছেন অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের রদ্রিগো দে পল। তবে স্কালোনি সবচেয়ে পার্থক্যটা গড়ে দিয়েছেন রক্ষণে। বরাবরই ভঙ্গুর আর্জেন্টিনার ডিফেন্সকে করেছেন জমাট, বাছাইয়ে ১৩ ম্যাচে মাত্র ৬ গোল হজম তারই প্রমাণ।
উরুগুয়েকে তাদেরই মাঠে কোনোমতে ১-০ গোলে হারানোর পর ব্রাজিলের বিপক্ষে ৪২ ফাউলের ম্যাচ গোলশূন্য ড্র। সাবেক বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের বিপক্ষে নিজেদের খেলায় সন্তুষ্ট স্কালোনি। বাছাইয়ের কঠিন ধাপ পেরিয়ে মূল পর্বে জায়গা করে নিতে পেরে উচ্ছ্বসিত তিনি, ‘দুটি কঠিন প্রতিপক্ষের বিপক্ষে আমরা চার পয়েন্ট পেয়েছি। অবশ্যই আমরা সবাই জিততে পছন্দ করি তবে এই ম্যাচগুলো দলকে পরিণত হতে সাহায্য করে। নিঃসন্দেহে, (দলীয়) ভারসাম্যটি ইতিবাচক। বাছাইয়ের কঠিন অঞ্চল থেকে আগেভাগেই বিশ্বকাপে খেলার যোগ্যতা অর্জন করা, সত্যিই আমাদের গর্ব করা উচিত।’
এবার বাছাইয়ে ১৩ ম্যাচে আট জয় ও পাঁচ ড্রয়ে ২৯ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে থেকে এরই মধ্যে কাতারের টিকিট নিশ্চিত করেছে আর্জেন্টিনা। সমান ম্যাচে ১১ জয় ও দুই ড্রয়ে শীর্ষে থাকা ব্রাজিল গেছে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদেরও আগে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আর্জেন্টিনা


আরও
আরও পড়ুন