Inqilab Logo

রোববার, ২৩ জানুয়ারী ২০২২, ০৯ মাঘ ১৪২৮, ১৯ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

এশিয়ান আরচ্যারিতে ইতিহাস গড়া হলো না রুবেল-দিয়ার

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৯ নভেম্বর, ২০২১, ৬:০৫ পিএম | আপডেট : ৬:১০ পিএম, ১৯ নভেম্বর, ২০২১

এশিয়ান আরচ্যারি চ্যাম্পিয়শিপে প্রথমবারের মতো স্বর্ণপদক জিতে ইতিহাস গড়া হলো না বাংলাদেশের তারকা তীরন্দাজ মোহাম্মদ হাকিম আহমেদ রুবেল ও দিয়া সিদ্দিকীর। আসরের সমাপণী দিন শুক্রবার বাংলাদেশ আর্মি স্টেডিয়ামে রিকার্ভ মিশ্র দ্বৈতের ফাইনালে দক্ষিণ কোরিয়ার রিউ সু জুং এবং লী সিউং ইউন জুটির বিপক্ষে ৫-১ সেটে হেরে রুপা নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হলো রুবেল-দিয়াকে।

এর আগে গত মঙ্গলবার তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বীতাপূর্ণ সেমিফাইনালে রুবেল-দিয়া জুটি ৫-৪ সেট পয়েন্টে ভারতের অঙ্কিতা ভক্ত-কপিল জুটিকে হারিয়ে ফাইনাল নিশ্চিত করে। পরের দিন রিকার্ভ দলগত মহিলা ও পুরুষ ইভেন্টে ব্রোঞ্জপদক জিতে এই প্রতিযোগিতায় প্রথমবারের মত পদক তলিকায় নাম লেখায় লাল-সবুজরা। যে কারণে রুবেল-দিয়াকে ঘিরে দেশের ক্রীড়াপ্রেমীদের প্রত্যাশার পারদ ছিল আরো উপরে। ইতিহাস গড়তে আত্মবিশ্বাসী ছিলেন রুবেল-দিয়াও। কিন্তু ফাইনালে রিও অলিম্পিকের স্বর্ণজয়ী দক্ষিণ কোরিয়ার রিও সু জং-লি সিউংইউন জুটির বিপক্ষে প্রত্যাশা অনুযায়ী খেলতে পারেননি লাল-সবুজের দুই তীরন্দাজ। শুক্রবার খেলার শুরু থেকে ‘বুলস আই’য়ে তীরবিদ্ধ করে প্রতিবারই ১০ কিংবা ৯ স্কোর করে রুবেল ও দিয়া। কিন্তু তারপরও পেছন থেকে উৎসাহ দিয়ে যাচ্ছিলেন লাল-সবুজের জার্মান কোচ মার্টিন ফ্রেডরিখ। শেষ পর্যন্ত সেরাদের সঙ্গে আর পেরে ওঠেননি বাংলাদেশের আরচ্যাররা। ফাইনালে হেরে জিতলেন রুপা।

এশিয়ান আরচ্যারি থেকে আগেই ব্রোঞ্জ এসেছে। এবার এলো রৌপ্যপদক। ফলে এই প্রথমবার এশিয়ার সর্বোচ্চ এ আসরে একটি রৌপ্য ও দু’টি ব্রোঞ্জপদক জিতেছে বাংলাদেশ। ২০০৩ সাল থেকে এই প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে এবারই প্রথম পদকের দেখা পেল লাল-সবুজরা। স্বর্ণ জিতে রুবেল-দিয়াদের ইতিহাস গড়া না হলেও শিষ্যদের পারফরম্যান্সে খুশী কোচ ফ্রেডরিখ, ‘আমি ওদের পারফরম্যান্সে খুশি। ওরা সবাই ভালো খেলেছে। এখানে আমরা হয়তো সোনা জিততে পারিনি। তবে রুপা তো জিতেছি। এটা আসলে ফাইনালের মঞ্চ। এখানে পারফর্ম করতে আরো সময় লাগবে ওদের। তবে শেষ সেটে ওরা বেশ ভালো তীর ছুঁড়েছে।’

দিয়া সিদ্দিকী বলেন, ‘পুরো টুর্নামেন্টেই আমরা ভালো খেলেছি। ফাইনালেও চেষ্টা করেছি ভালো খেলার। আজ প্রথম দিকে হয়তো তীর লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারিনি। তবে শেষ দিকে এসে ভালো খেলেছি। এখানকার বাতাসটা বুঝতে পারিনি প্রথম সেটে। আর দ্বিতীয় সেটে আমার তীর আটকে গেছিল। ওরা আসলে একই ধারবাহিকতায় তীর ছুঁড়ে সফল হয়েছে। আমাদের আত্মবিশ্বাসটা ওই রকম পর্যায়ে পৌঁছাতে হবে।’ রুবেলের কথা, ‘কোরিয়ার সেরা আরচ্যারদের কাছে এই হার থেকে অনেক কিছু শেখার আছে আমাদের। এখানে কিছু ভুল বুঝতে পেরেছি। যা শুধরে পরবর্তীতে আরো ভালো খেলার চেষ্টা করবো আমি। তারপরও আমার নিজের পারফরম্যান্স নিয়ে আমি অনেক খুশি। এখন পর্যন্ত যত আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টে খেলেছি, এবারেরটাতেই আমি সেরা স্কোর তুলেছি।’

এদিকে দক্ষিণ কোরিয়ার শ্রেষ্ঠত্বের মধ্যদিয়েই শুক্রবার শেষ হয়েছে সপ্তাহ ব্যাপী এশিয়ান আরচ্যারি চ্যাম্পিয়নশিপের খেলা এবারের আসরে ১৬টি দেশ অংশ নেয়। যার মধ্যে দক্ষিণ কোরিয়া ৯ সোনা এবং তিনটি করে রৌপ্য ও ব্রোঞ্জসহ ১৫টি পদক জিতে প্রথম স্থান পেয়েছে। ভারত এক স্বর্ণ, চার রৌপ্য ও দুই ব্রোঞ্জসহ ৭টি পদক জিতে দ্বিতীয় এবং স্বাগতিক বাংলাদেশ ও কাজাখস্তান সমান একটি করে রৌপ্য ও দু’টি করে ব্রোঞ্জসহ তিনটি করে পদক জিতে যৌথভাবে তৃতীয় স্থান পেয়েছে।

বাংলাদেশ আরচ্যারি ফেডারেশনের ব্যবস্থাপনায় ও সিটি গ্রুপের পৃষ্ঠপোষকতায় গত ১৩ নভেম্বর উদ্বোধন হয়েছিল তীর এশিয়ান আরচ্যারি চ্যাম্পিয়নশিপের ২২তম আসরের।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: এশিয়ান আরচ্যারি
আরও পড়ুন