Inqilab Logo

শনিবার, ১৩ আগস্ট ২০২২, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৯, ১৪ মুহাররম ১৪৪৪
শিরোনাম

চীন মোকাবেলায় এবার এস-৪০ ক্ষেপণাস্ত্র মোতায়েন করবে ভারত

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২০ নভেম্বর, ২০২১, ৬:৪৬ পিএম

ভারতের লাদাখ ও অরুণাচল প্রদেশের প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় (এলএসি) চীনের নিয়ন্ত্রণ মোকাবিলা করতে এবার এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরোধী ব্যবস্থা মোতায়েন করবে ভারত। দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, আগামী বছরের শুরুতেই রাশিয়া থেকে আনার পর দুটি এস-৪০০ উত্তর ও উত্তর-পূর্বাঞ্চলের নিয়ন্ত্রণরেখায় মোতায়েন করা হবে। এই দুই সীমান্ত এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে উত্তেজনা বিরাজ করছে ভারত ও চীনের মধ্যে।
ভারতীয় সেনার ‘এয়া ডিফেন্স রেজিমেন্ট’-এর নিয়ন্ত্রণে এস-৪০০ মোতায়েন হওয়ার পর এলএসসি-তে শক্তির ভারসাম্যে বেজিংয়ের সঙ্গে পাল্লা দিতে পারবে দিল্লি, এমন মনে করছেন দেশটির প্রতিরক্ষা বিশেষজ্ঞদের একাংশ। শুধু ক্ষেপণাস্ত্র নয়, এই প্রযুক্তির সাহায্যে শত্রুর বিমান ও ড্রোন ধ্বংস করা যাবে বলেও জানা গেছে।
২০১৯ সালের দিকে, যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জানিয়েছিলেন, রাশিয়ার সঙ্গে এস-৪০০ কেনার চুক্তি বাতিল করলে ভারত টার্মিনাল হাই অলটিটিউড এরিয়া ডিফেন্স (থাড) এবং পেট্রিয়ট-৩ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরোধ ব্যবস্থা পাবে। কিন্তু প্রযুক্তিগত উৎকর্ষের তুলনামূলক বিচার করে এস-৪০০ কেনার সিদ্ধান্তে অটল থাকে দিল্লি। রাশিয়া থেকে চীনও এই ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরোধী ব্যবস্থা কিনে নিয়েছে।
জানা গেছে, ডিসেম্বরে ভারত সফরে আসছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। দ্বিপক্ষীয় বার্ষিক সম্মেলনে যোগ দিতে ডিসেম্বরের দ্বিতীয় সপ্তাহে আসবেন তিনি। সফরকালে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে রাশিয়ার প্রেসিডেন্টের বৈঠকে এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরোধী ব্যবস্থাসহ কয়েকটি রুশ প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম কেনার বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হতে পারে বলে আভাস পাওয়া গেছে।
২০১৮ সালের অক্টোবরে পুতিনের দিল্লি সফরের সময় এ বিষয়ে প্রায় ৪০ হাজার কোটি টাকার চুক্তি সই হয়। ডিসেম্বরে প্রথম দফায় দুটি এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরোধী ব্যবস্থা রাশিয়া থেকে ভারতে এসে পৌঁছানোর কথা। পরের দফায় আসবে আরও তিনটি। সূত্র: আনন্দবাজার



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভারত


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ