Inqilab Logo

সোমবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২২, ১০ মাঘ ১৪২৮, ২০ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

তুরস্কের সঙ্গে ব্যবসায়িক সম্পর্ক বাড়াতে চায় আফ্রিকা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২১ নভেম্বর, ২০২১, ১২:০৫ এএম

আফ্রিকার দেশগুলোর প্রতিনিধিরা জানিয়েছেন, তারা তুরস্কের সঙ্গে ব্যবসায়িক সম্পর্ক বাড়াতে চাচ্ছেন। আফ্রিকার শিল্পায়ন দিবসের দুদিন আগে তারা তুরস্কের সঙ্গে ব্যবসায়িক সম্পর্ক বাড়ানোর বিষয়ে আগ্রহ প্রকাশ করেন। সোমালিয়ার বাণিজ্য ও শিল্পমন্ত্রী খলিফ আবদি ওমর বলছেন, তার দেশের অর্থনীতি বর্তমানে তুরস্কের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা সম্পর্কে তিনি ভালো ভাবেই জানেন। তুরস্কের ইস্তাম্বুল শহরে চলমান তুর্কি-আফ্রিকা ইকোনমিক অ্যান্ড বিজনেস ফোরামে এসব কথা বলেন তিনি। ২০১৭ সালে সোমালিয়া এবং তুরস্কের মধ্যকার বাণিজ্যের পরিমাণ ছিল ১৪৪ মিলিয়ন ডলার। ২০১৯ সালে এসে তা বেড়ে হয়েছে ২০৬ মিলিয়ন ডলার। খালিফ আবদি বলেন, তুরস্ক এবং অন্যান্য দেশের সঙ্গে বাণিজ্য এবং অর্থনৈতিক সহযোগিতার বিষয়ে আগ্রহী সোমালিয়া। বাণিজ্য সম্পর্ক জোরদার করতেও প্রতিশ্রুতিবদ্ধ তার দেশ। তিনি বলেন, এই ফোরাম আফ্রিকা-তুরস্ক সহযোগিতার আর্থ-সামাজিক গতিশীলতা বৃদ্ধি করছে এবং বিশ্বব্যাপী ব্যবসায়িক ক্ষেত্রে অনন্য খেলোয়াড় হিসেবে আফ্রিকার উদীয়মান ভূমিকা প্রদর্শন করছে। তুরস্ক এবং দক্ষিণ সুদানের মধ্যকার সম্পর্ক আরও গভীর করতে গুরুত্বপূর্ণ ওই বৈঠকে অংশ নিয়েছেন দক্ষিণ সুদানের ভাইস প্রেসিডেন্ট জেমস ওয়ানি ইগা। করোনা মহামারি পরবর্তী অর্থনীতির পুনরুদ্ধারের দিকে বেশ গুরুত্ব দিচ্ছে বুরুন্ডি, কেনিয়া, রুয়ান্ডা, দক্ষিণ সুদান, তানজানিয়া এবং উগান্ডার মতো পূর্ব এশিয়ার দেশগুলো। তুরস্ক থেকে বাণিজ্য ও বিনিয়োগের মূল সুযোগগুলোকেও ব্যবহার করতে আগ্রহী তারা। বাণিজ্য সম্পর্ক বৃদ্ধির লক্ষ্যে তুরস্কের ইস্তাম্বুল শহরে একটি প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দিয়েছেন কেনিয়ার শিল্পায়নের প্রিন্সিপাল সেক্রেটারি কিরিমি কাবেরিয়া। ইস্তাম্বুলে অ্যাসোসিয়েশন অব অ্যানাটোলিয়ান বিজনেসম্যানের (এএসকেওএন) এক কর্মকর্তার সঙ্গে সাক্ষাত করেন কাবেরিয়া। সে সময় তারা টেক্সটাইল, কৃষি-প্রক্রিয়াকরণ, খনি এবং সাশ্রয়ী মূল্যের আবাসনে বিনিয়োগ সহযোগিতা নিয়ে আলোচনা করেন। ইস্ট আফ্রিকান কমিউনিটির আন্তঃসরকারি সংস্থার কাস্টমস অ্যান্ড ট্রেডের মহাপরিচালক কেনেথ অ্যাপোলো বাগামুহুন্ডা আশা প্রকাশ করে বলেন, মহামারি পরবর্তী যুগে তুরস্ক এবং আফ্রিকার দেশগুলোর অর্থনীতিকে শক্তিশালী করার পথ প্রশস্ত করবে এই ফোরাম। এদিকে উগান্ডার ইনভেস্টমেন্ট অথরিটির চেয়ারম্যান রুয়াকাকাম্বা মরিসন এই ফোরামকে স্বাগত জানিয়ে বলেনম এটি তার দেশ এবং আফ্রিকার মানুষকে তুরস্কের বিনিয়োগকারীদের সঙ্গে সংযুক্ত করবে। ইস্তাম্বুলের বিমানবন্দর থেকে জাম্বিয়ার অর্থনীতি, বাণিজ্য ও শিল্পমন্ত্রী চিপোকা মুলেঙ্গা বলেন, এই ফোরাম সময় উপযোগী এবং এটি তার সরকারের উন্নয়ন এজেন্ডার সঙ্গে সম্পৃক্ত। গণপ্রজাতন্ত্রী কঙ্গোর বৈদেশিক বাণিজ্য বিষয়ক মন্ত্রী জিন লুসিয়েন বুসা টোংবা বলেন, এই বৈঠকের লক্ষ্য কৌশলগত সহযোগিতা এবং বিদ্যমান অংশীদারিত্বকে আরও গভীর করা। দুই দিনব্যাপী তুর্কি-আফ্রিকান ইকোনমিক অ্যান্ড বিজনেস ফোরাস বৃহস্পতিবার শুরু হয়েছে। সেখানে আফ্রিকা এবং তরুস্কের প্রয় তিন হাজার ব্যবসায়ী এবং আফ্রিকার বিভিন্ন দেশের ৩০ জনের বেশি মন্ত্রী এবং তুরস্কের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। তুরস্ক এবং আফ্রিকার দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য ২০০৩ সালে ছিল ৫.৪ বিলিয়ন ডলার যা ২০২০ সালে তা পৌঁছেছে ২৫ বিলিয়ন ডলার। ফোরামের প্রথম দিনে তুরস্কের বাণিজ্য মন্ত্রী মেহমেত মুস এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন এ তথ্য জানান। আনাদোলু।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: তুরস্ক


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ