Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২২, ১৩ মাঘ ১৪২৮, ২৩ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

মিথ্যা ঘোষণায় এলো কম্বল জায়নামাজ প্রসাধনী

চট্টগ্রাম বন্দর

চট্টগ্রাম ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২১ নভেম্বর, ২০২১, ১২:০২ এএম

শুল্কমুক্ত সুবিধার চালানে মিথ্যা ঘোষণায় আনা কম্বল, জায়নামাজ, প্রসাধনীসহ হরেক রকম সামগ্রীর একটি চালান আটক করেছে চট্টগ্রাম কাস্টম হাউস। এর মাধ্যমে ১৭ লাখ টাকার শুল্ক ফাঁকির চেষ্টা করা হয়েছে বলে জানান কাস্টমস কর্মকর্তারা। গতকাল শনিবার কাস্টম হাউসের পক্ষ থেকে বলা হয়, আমদানিকারক পাবনার ইশ^রদী ইপিজেডের এমজিএল কোম্পানি লিমিটেড মরিশাস থেকে শতভাগ রফতানিমুখী তৈরী পোশাক কারখানার জন্য আট হাজার ৪০০ কেজি কম্বল তৈরির ফেব্রিকস আমদানির ঘোষণা দেয়।

গত ৮ ফেব্রুয়ারি মরিশাসের পোর্ট লুইস বন্দর থেকে কোটা নাজার জাহাজে কন্টেইনার ভর্তি চালানটি চট্টগ্রাম বন্দরে আসে। গত ১৭ জুলাই পণ্য খালাসের জন্য আমাদানিকারকের মনোনীত সিএন্ডএফ এজেন্ট নগরীর আগ্রাবাদের প্রত্যয় ইন্টারন্যাশনাল কাস্টম হাউসে বিল অব এন্ট্রি দাখিল করে।

পরবর্তীতে আলোচ্য পণ্যচালানের বিষয়ে গোপন সংবাদ থাকায় পণ্যচালানটি লক করে দেওয়া হয়। বুধবার থেকে চট্টগ্রাম বন্দরের জেআর কন্টেইনার ইয়ার্ডে রক্ষিত আলোচ্য পণ্যবাহী কন্টেইনারটি চট্টগ্রাম কাস্টম হাউসের অডিট, ইনভেস্টগেশন অ্যান্ড রিসার্চ (এআইআর) টিম কতৃক ফোর্স কিপ-ডাউন করে বিভিন্ন সংস্থার প্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে শতভাগ কায়িক পরীক্ষা শুরু হয়। শুক্রবার রাত সাড়ে ১১টা পর্যন্ত কায়িক পরীক্ষায় কম্বলের কাপড়ের পরিবর্তে দামী কম্বল, জায়নামাজ, বিভিন্ন প্রকার প্রসাধনী, খাদ্যদ্রব্যাদিসহ ব্যাগেজ প্রকৃতির প্রায় ৭৫ ধরণের পণ্য পাওয়া যায়।

এতে ২৩৮ টি প্যাকেজের প্রায় প্রতিটি প্যাকেজে ইনার প্যাকেজের গায়ে প্রেরক ও প্রাপকের নাম, ঠিকানা, মোবাইল নম্বর সম্বলিত কাপড় সেলাই করা অবস্থায় আছে। কন্টেইনারে নতুন ও পুরাতন মিলিয়ে এক হাজার ৫৫১ টি কম্বল (৪৫৫৭ কেজি), ৪৮৩ টি জায়নামাজ (৪৭৬ কেজি), ১২০ কেজি বিভিন্ন ধরনের প্রসাধনী, ২০০ কেজি বিভিন্ন প্রকার ইলেক্ট্রনিক্স সামগ্রীসহ মোট সাত হাজার ৫৭০ কেজি পণ্য পাওয়া যায়। এসব পণ্যের শুল্কায়নযোগ্য মূল্য প্রায় ২০ লাখ টাকা। আর এতে প্রায় ১৭ লাখ টাকার শুল্ক ফাঁকির চেষ্টা হচ্ছিল। আমদানিকারকের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: চট্টগ্রাম বন্দর

১২ জানুয়ারি, ২০২২

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ