Inqilab Logo

শুক্রবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২২, ১৪ মাঘ ১৪২৮, ২৪ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

ধর্ষণ-নারী নির্যাতন বেড়েছে

মন্ত্রিসভার বৈঠকে বার্ষিক প্রতিবেদন উত্থাপন

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৪ নভেম্বর, ২০২১, ১২:০৫ এএম

করোনা মহামারির মধ্যে দেশে অন্যান্য মামলার সংখ্যা কমেছে। তবে ধর্ষণ ও নারী নির্যাতনের হার বেড়েছে। গত অর্থবছরের তুলনায় ২০২০-২১ অর্থবছরের ৩০ জুন পর্যন্ত দেশে ধর্ষণ ও নারী নির্যাতনের হার বেড়েছে। আগের অর্থবছরের তুলনায় এ অর্থবছরে এ সংক্রান্ত মামলা বেশি হয়েছে। এ সময়ে মামলার পরিমাণ কমেছে ৯১ হাজারের বেশি। অন্যদিকে রাজস্ব আদায় বেড়েছে ২৩.৫৭ শতাংশ।

গতকাল সোমবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার বৈঠকে বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও বিভাগগুলোর কার্যাবলি সম্পর্কিত বার্ষিক প্রতিবেদন উত্থাপন করা হয়।

বৈঠক শেষে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম এ তথ্য জানান। গত ২০২০-২১ অর্থবছরের বার্ষিক প্রতিবেদনের তথ্য-উপাত্ত তুলে ধরে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, গত অর্থবছরে মোট মামলার সংখ্যা ছিল ৬ লাখ ৬১ হাজার। চলতি অর্থবছরের শেষে এসে দেখা যায়, ৫ লাখ ৬৯ হাজার ৩৬২টি মামলা হয়েছে। মামলা কমেছে প্রায় ৯১ হাজার। মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, গত অর্থবছরে ডাকাতির মামলা ছিল ৩৩৬টি, এ বছরে ৩২১টি, কমেছে ১৫টি। রাহাজানির মামলা ছিল ৯১৯টি, এ বছরে বেড়ে হয়েছে ১ হাজার ৪৮টি। অস্ত্র আইনে মামলা ছিল ২ হাজার ১৬৭টি, এ বছর ১ হাজার ৭৪৭টি। খুনের মামলা ছিল ৩ হাজার ৪৮৫টি, এ বছরে ৩ হাজার ৪৫৮টি।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, গত অর্থবছরে ধর্ষণ মামলা ছিল ৫ হাজার ৮৪২টি, এ বছরে ৭ হাজার ২২২টি। নারী নির্যাতনের মামলা ছিল ১২ হাজার ৬৬০টি, এবার বেড়ে হয়েছে ১৪ হাজার ৫৬৭টি। গত অর্থবছরে এর আগের বছরের চেয়ে ধর্ষণের ঘটনা বেড়েছে ১ হাজার ৩৮০টি এবং নারী নির্যাতন বেড়েছে ১ হাজার ৯৭টি। সারা দেশের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে তিনি বলেন, ৩০ জুন পর্যন্ত আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির রিপোর্ট আমাদের কাছে এসেছে।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ২০২০-২১ অর্থবছর ৩০ জুন পর্যন্ত রাজস্ব আদায়ের পরিমাণ ছিল ৩ লাখ ২৮ হাজার ৫৮২ কোটি টাকা, রাজস্ব আদায় বৃদ্ধির এই হার ২৩ দশমিক ৫৭ শতাংশ। রফতানির পরিমাণ ১৫ দশমিক ১২ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩৮ দশমিক ৭৬ বিলিয়ন মার্কিন ডলার।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, আশ্রয়ণ ২ প্রকল্পের মাধ্যমে ২০২০-২১ অর্থবছরে মোট ৫৪ হাজার ৪৩৪টি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে পুনর্বাসন করা হয়েছে। মুজিববর্ষ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসাবে ৫৩ হাজার ৩৪০টি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের বসবাসের জন্য গৃহনির্মাণ করা হয়েছে। তিনি বলেন, ২০২০-২১ অর্থবছরে সামাজিক নিরাপত্তা খাতের অর্থ বরাদ্দ ৯৫ হাজার ৫৭৪ কোটি টাকায় উন্নীত হয়েছে। যা জাতীয় বাজেটের ১৬ দশমিক ৮৩ শতাংশ এবং জিডিপির ৩ দশমিক ০১ শতাংশ।’

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ২০২০-২১ অর্থবছরে বাংলাদেশের জিডিপি প্রবৃদ্ধির হার ৫ দশমিক ৪৭ শতাংশ। মাথাপিছু আয় বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৫৫৪ মার্কিন ডলার। এফডিআই সরাসরি বৈদেশিক বিনিয়োগের পরিমাণ ১ দশমিক ৯৬ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। রেমিট্যান্স প্রবাহের পরিমাণ ২৪ দশমিক ৭৮ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। খাদ্য মজুতের পরিমাণ ১৪ লাখ ৩৮ হাজার মেট্রিক টন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ধর্ষণ


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ