Inqilab Logo

বুধবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২২, ০৫ মাঘ ১৪২৮, ১৫ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

শ্রীলঙ্কায় ইস্টার সানডে হামলার বিচার শুরু

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৪ নভেম্বর, ২০২১, ৪:৫০ পিএম

২০১৯ সালে ইস্টার সানডেতে বোমা হামলা মামলার বিচার শুরু করেছে শ্রীলঙ্কার একটি আদালত। গতকাল মঙ্গলবার হামলার সঙ্গে যুক্ত ২৫ জনের বিচার শুরু করেছেন আদালত। তাঁদের বিরুদ্ধে ২৩ হাজার অভিযোগ দায়ের করেছে পুলিশ।
গতকাল মঙ্গলবার ২৫ জনকে কড়া নিরাপত্তায় কলম্বো হাইকোর্টে আনা হয়। এদের মধ্যে ছিলেন মূল পরিকল্পনাকারী মোহাম্মদ নাউফের। এর আগে গত সোমবার সাবেক পুলিশপ্রধান পুজিত জয়াসুন্দরার বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়।
উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের ২১ এপ্রিল ইস্টার সানডেতে শ্রীলঙ্কার তিনটি গির্জা ও তিনটি হোটেলে একযোগে আত্মঘাতী হামলা চালানো হয়। এতে অন্তত ৪৫ জন বিদেশিসহ ২৬৭ জন নিহত হন। মারা যায় অন্তত ৪০ শিশু।
মঙ্গলবার স্থানীয় সময় সকালের দিকে ব্যাপক পুলিশি পাহারায় ভিন্ন ভিন্ন কারাগার থেকে কয়েকজন করে সন্দেহভাজনদের কলম্বো হাই কোর্টে হাজির করা হয় বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।
পুলিশ এ সন্দেহভাজনদের বিরুদ্ধে হত্যার ষড়যন্ত্র, হামলায় সহায়তা ও প্ররোচনা, অস্ত্র ও গোলাবারুদ সংগ্রহসহ ২৩ হাজারের বেশি অভিযোগ এনেছে।
সন্দেহভাজনদের আইনজীবীরা বলছেন, বিপুল সংখ্যক অভিযোগের কারণে মামলা শেষ হতে দশককাল লেগে যেতে পারে।
“এখন যে অবস্থা তাতে কোন সন্দেহভাজনের সঙ্গে সুনির্দিষ্ট কোন কোন অভিযোগগুলো মেলে তা বের করাই অসম্ভব হয়ে দাঁড়িয়েছে। আশা করছি সামনে এ বিষয়টি আরও স্পষ্ট হবে। আমাদের আশঙ্কা, মামলাটি চলতেই থাকবে এবং সবকিছু পণ্ডশ্রমে পরিণত হবে,” রয়টার্সকে এমনটাই বলেছেন সন্দেহভাজন ছয়জনের আইনজীবী নুরদীন এম শহীদ।
যে ২৫ জনের বিচার শুরু হয়েছে তাদের মধ্যে মোহাম্মদ নাউফের নামে এক ব্যক্তিও আছেন, যাকে বলা হচ্ছে ইস্টার সানডের হামলার ‘মাস্টারমাইন্ড’; নাউফেরের সঙ্গে মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেটের যোগাযোগ ছিল বলেও ভাষ্য লঙ্কান কর্মকর্তাদের।
আরেক সন্দেহভাজন ওয়াই এম ইব্রাহিমের দুই ছেলে ইনসাফ ও ইলহাম ২০১৯ সালে ইস্টার সানডের পরবের দিনে কলম্বোর দুটি হোটেলে আত্মঘাতী বোমা হামলা চালিয়েছিল। বিচার শুরু প্রসঙ্গে তাৎক্ষণিকভাবে নাউফের ও ইব্রাহিমের আইনজীবীদের মন্তব্য পাওয়া যায়নি। সূত্র : রয়টার্স।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: শ্রীলঙ্কা


আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ