Inqilab Logo

বুধবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২২, ০৫ মাঘ ১৪২৮, ১৫ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

আইওআরএ ডায়ালে অংশগ্রহণ করেছে রাশিয়া, ৬ ডিসেম্বর শীর্ষ সম্মেলন

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৫ নভেম্বর, ২০২১, ১১:৩৬ এএম

৬ ডিসেম্বরের ইন্ডিয়ান ওশান রিম অ্যাসোসিয়েশনের বার্ষিক শীর্ষ সম্মেলন এবং প্রথম ২+২ (পররাষ্ট্র ও প্রতিরক্ষা) মন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকের কয়েকদিন আগে যা এই অঞ্চলে মস্কোর বর্ধিত উপস্থিতি লক্ষ্য করা যাচ্ছে। তার আগে গত ১৭ নভেম্বর ইন্ডিয়ান ওশান রিম অ্যাসোসিয়েশনের পররাষ্ট্র মন্ত্রী পরিষদের ২১তম বার্ষিক বৈঠক বাংলাদেশের সভাপতিত্বেঅনুষ্ঠিত হয়।–দ্য ইকোনোমিক টাইমস

মস্কোতে রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বলেছেন, রাশিয়া ভারত মহাসাগরে আন্তঃসংযুক্ত সম্পর্ক জোরদার করার জন্য কাজ চালিয়ে যেতে (এখন একটি আইওআরএ সংলাপ অংশীদার হিসাবে) ইচ্ছুক। তিরি উল্লেখ করেন, স্বাভাবিক অগ্রাধিকারগুলির মধ্যে একটি হল কোভিড-১৯ মহামারী মোকাবেলা করা এবং অন্যান্য সংক্রামক রোগ এবং ভ্যাকসিনে সহযোগিতা। রাশিয়া প্রত্যন্ত অঞ্চলের উন্নয়নে এবং মানবিক সহায়তা কার্যক্রম সম্প্রসারণে তার ফাউন্ডেশন তৈরি ও অভিজ্ঞতা শেয়ার করে নিতে ইচ্ছুক।

যেখানে চীন যথেষ্ট ভূমিকা রাখছে, সেখানে ভারতের সমর্থন রাশিয়াকে ইন্ডিয়ান ওশান রিম অ্যাসোসিয়েশনের সংলাপে অংশীদারের মর্যাদা দিয়েছে। চীনের ক্রমবর্ধমান উপস্থিতি এবং পররাষ্ট্র ও প্রতিরক্ষা মন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকের মধ্যে ভারত মহাসাগরীয় অঞ্চলে একটি বড় ভূমিকা পালনের জন্য ভারত রাশিয়াকে অনুপ্রাণিত করেছে, যেন এই অঞ্চলে অংশীদারিত্ব রাখে। ভারত কার্যত ভারতের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী ড. রাজকুমার রঞ্জন সিংয়ের নেতৃত্বে ইন্ডিয়ান ওশান রিম অ্যাসোসিয়েশন এর ২১তম বার্ষিক মন্ত্রী পরিষদ সভায় অংশ নেয়।

রাশিয়ান সরকারের একটি সূত্র বলেছে, আমাদের বক্তব্যকে সমর্থন করার জন্য আমরা ভারতীয় বন্ধু সহ সকল সদস্য-দেশের কাছে কৃতজ্ঞ। এই সিদ্ধান্ত আন্তর্জাতিক আইনের নিয়ম ও নীতির ভিত্তিতে বহুপাক্ষিক সহযোগিতা জোরদারে রাশিয়ার গঠনমূলক ভূমিকার ব্যাপক স্বীকৃতি নিশ্চিত করে। জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের রেজোলিউশন ২৮৩২ কে ধারাবাহিকভাবে সমর্থন করে, যা ভারত মহাসাগরকে একটি শান্তিপূর্ণ অঞ্চল হিসাবে ঘোষণা করেছে। রাশিয়া প্রস্তুত এখন - একটি আইওআরএ সংলাপ অংশীদার হিসাবে। ফোরামের লক্ষ্যগুলি বাস্তবায়নে তার বাস্তব অবদান অব্যাহত রাখতে। যেমন : জলদস্যুতা প্রতিরোধ, বাণিজ্য ও বিনিয়োগ, দ্রুত জরুরি যোগাযোগ, পর্যটন ও সাংস্কৃতিক বন্ধন, শিক্ষা, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সহ সামুদ্রিক নিরাপত্তার মতো ক্ষেত্রগুলোতে ফোরাম অবদান রাখেবে।

রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র আরও বলেন, দক্ষিণ-পূর্ব এশীয় শীর্ষ সম্মেলনে (আইওআরএ-এর মতই একটি ফোরাম), রাশিয়া বার বার এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে আসিয়ানের চারপাশে এবং ভারত মহাসাগরের বহুপাক্ষিক সমিতিগুলির মধ্যে আন্তঃরাষ্ট্রীয় যোগাযোগ ব্যবস্থার একটি সিস্টেমের মধ্যে বাস্তব সহযোগিতা উন্নয়নের উপায় সম্পর্কে চিন্তা করার পরামর্শ দিয়েছে৷ এই ধারণা এখনও টেবিলে আছে। রাশিয়া সব আগ্রহী পক্ষের সাথে আলোচনা করতে প্রস্তুত।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: রাশিয়া


আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ