Inqilab Logo

শুক্রবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২২, ১৪ মাঘ ১৪২৮, ২৪ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

তৃণমূলের সুপারিশকৃতরা মনোনয়ন বঞ্চিত

ইউপি নির্বাচন : সংসদ সদস্যদের দুষছে স্থানীয় আ. লীগ

ফয়সাল আমীন, সিলেট থেকে | প্রকাশের সময় : ২৬ নভেম্বর, ২০২১, ১২:০২ এএম

তৃণমূলের ভোটে মনোনীত হচ্ছে নৌকার প্রার্থী। সেই ভোট আদায়ে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের ঘাম ঝরে। ভোট নিয়ে তৃণমূলের নেতাকমীদেরও একটি ভাব দেখা দেয়। কিন্তু কষ্টার্জিত সেই ভোটপ্রাপ্তির পরও নিশ্চিত হচ্ছে না নৌকার চূড়ান্ত মনোনয়ন। তৃণমূলের ভোটে মনোনীত প্রার্থীকে বদলে দেয়া হচ্ছে কেন্দ্রে। এতে হতাশা-ক্ষোভ বিরাজ করছে তৃণমূলে। সেই ক্ষোভের আগুনে নৌকার পরাজয়ও ঘটছে সিলেটের বিভিন্ন ইউনিয়ন নির্বাচনে।
প্রার্থী পাল্টে দেয়ার নেপথ্যে কলকাঠি নাড়ার অভিযোগের তীর স্থানীয় সংসদ সদস্যদের দিকে। তারা মাইম্যান তথা নিজস্ব লোকের বলয় গড়তে যেয়ে নড়েবড়ে করে দিচ্ছেন তৃণমূলে আওয়ামী লীগের ভিত্তিকে। এজন্য প্রকাশ্যে মুখ খুলেছেন কেউ কেউ। তৃণমূলের নেতারা অভিযোগ করেছেন; টাকার বিনিময়ে প্রার্থী পাল্টে দেয়া হচ্ছে কেন্দ্রে। এছাড়া রয়েছে লন্ডন-ঢাকা কানেকশনও। লন্ডন থেকে অনেকেই নৌকার টিকিট কনফার্ম করে এসে প্রার্থী হচ্ছেন সিলেটে। লন্ডন-ঢাকা আ’লীগ নেতাদের মর্জি কাজ করছে চূড়ান্ত মনোনয়নে। অথচ আওয়ামী লীগের নেতারা প্রতিটি উপজেলায় গিয়ে সরাসরি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের নেতাদের ভোটে নৌকার প্রার্থী বাছাই করছেন। বাছাই শেষ হওয়ার পর তারা পৃথকভাবে উপজেলা ও জেলা নেতাদের নিয়ে বৈঠক করে প্রতিটি ইউনিয়নে রিপোর্ট পর্যাক্রমে সাজিয়ে ৩ জনের তালিকা কেন্দ্রের কাছে প্রেরণ করেন। কিন্তু অনেক ইউনিয়নে নৌকার প্রার্থী বদলে যাচ্ছে। পরিচিতি কম ও তৃণমূলের ভোটে পরাজিত প্রার্থী এবং অন্যদল থেকে আওয়ামী লীগে যোগদান করা নেতাকর্মীরা হয়ে যাচ্ছেন নৌকার প্রার্থী।
কয়েকটি উপজেলার পর্যায়ক্রমে একের পর এক ঘটনা ঘটায় এ নিয়ে ব্যাপক তোলপাড় চলছে আওয়ামী লীগে। অনেকেই কেন্দ্রের নেতাদের দ্বারে দ্বারে ঘুরে এ ব্যাপারে নালিশও করে আসছেন। চতুর্থ ধাপে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে গোলাপগঞ্জ ও বিয়ানীবাজারে। এ দু’টি উপজেলার ৫টি ইউনিয়নে নৌকার প্রার্থী বদল হওয়া নিয়ে বিরাজ করছে ব্যাপক ক্ষোভ। স্থানীয় নেতারা জানান, বিয়ানীবাজারের দুবাগ ইউনিয়নে তৃণমূলের ভোটে প্রথম হয়েছিলেন পলাশ আফজাল। কিন্তু চূড়ান্ত মনোনয়ন পেয়েছেন আব্দুস সালাম। তিলপাড়া ইউনিয়নে ভোটে প্রথম হয়েছিলেন আহবাবুর রহমান খান। মনোনয়ন পেয়েছেন এমাদ উদ্দিন। একইভাবে মোল্লাপাড়া ইউনিয়নে ভোটে প্রথম হন আশফাক আহমদ। এ ইউনিয়নেও প্রার্থী বদল করে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে শামীম আহমদ নামের একজনকে।
স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা আলী আহমদ বলেন, তৃণমূলে মাত্র ১ ভোট লাভ করা আব্দুর রহমান ফারনের এক পুত্র লন্ডন বিএনপির বড় নেতা। তার আরেক ছেলে বিএনপি নেতা। সে জাতির পিতাকে নিয়ে কটূক্তি করেছিলেন বলে দাবি করেন তিনি। তৃতীয় ধাপে ২৮ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হচ্ছে সিলেটের দক্ষিণ সুরমা, গোয়াইনঘাট ও জৈন্তাপুর উপজেলার ১৬ ইউনিয়নে ভোট। এই নির্বাচনেও তৃণমূলের ভোটের মনোনীত প্রার্থীদের পরিবর্তন করা হয়েছে।
সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও সাবেক এমপি শফিকুর রহমান চৌধুরী বলেন, প্রার্থী বাছাই প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে কেন্দ্রে তালিকা পাঠানো হচ্ছে। তারপর কেন্দ্র থেকে যাকেই প্রার্থী দেয়া হচ্ছে তার পক্ষে কাজ করছি আমরা। তবে কেন্দ্র কী কারণে প্রার্থী পরিবর্তন করে সেটি তার কাছে বোধগম্য নয় বলে জানান তিনি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইউপি নির্বাচন

৮ জানুয়ারি, ২০২২

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ