Inqilab Logo

বুধবার, ২৫ মে ২০২২, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৩ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

‘খুনিরা দ্রুত গ্রেফতার না হলে নাগরিকসেবা বন্ধের হুঁশিয়ারি’

কাউন্সিলর সোহেল হত্যা

স্টাফ রিপোর্টার কুমিল্লা থেকে: | প্রকাশের সময় : ২৬ নভেম্বর, ২০২১, ১২:০২ এএম

কুমিল্লা সিটি করপোরেশন মেয়র মনিরুল হক সাক্কু হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছেন, কাউন্সিলর সৈয়দ মো. সোহেলের খুনিদের দ্রুত গ্রেফতার করা না হলে কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের সকল ধরণের নাগরিকসেবা থেকে আমরা বিরত থাকব। মেয়র আরও বলেন, কুমিল্লার ইতিহাসে এমন ন্যক্কারজনক ঘটনা আগে কখনও ঘটেনি। আমরা সিটি করপোরেশনের সব কাউন্সিলরসহ নগরবাসী এক হয়েছি। ওই খুনের ঘটনার মধ্য দিয়ে সকল কাউন্সিলররা নিজেদের নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বিগ্ন, আমরা খুনিদের দ্রুত গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাই। যদি দ্রুত আসামিদের আইনের আওতায় নেয়া না হয় তাহলে কঠোর কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে। গতকাল বৃহস্পতিবার কুমিল্লা প্রেস ক্লাবের সামনে সিটি মেয়র, কাউন্সিলরসহ সকল বিভাগের কর্মকর্তা কর্মচারীদের নিয়ে অনুষ্ঠিত মানববন্ধন কর্মসূচিতে মেয়র সাক্কু এসব কথা বলেন।

কুমিল্লায় কাউন্সিলর সোহেল ও তার রাজনৈতিক সহযোগী হরিপদ দাসকে গুলি করে হত্যার ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতার ও শাস্তির দাবিতে এ মানববন্ধন করা হয়। মানববন্ধন কর্মসূচি শেষে মেয়র সাক্কুর নেতৃত্বে কুমিল্লা জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বরাবর স্মারকলিপি দেয়া হয়।

কাউন্সিলর সোহেল হত্যার ঘটনায় ১৬ নম্বর ওয়ার্ডের শাহ আলমকে প্রধান আসামি করে ১১ জনের নাম উল্লেখ করে নিহত কাউন্সিলরের ছোট ভাই সৈয়দ মো. রুমন কোতোয়ী মডেল থানায় মামলা করেন। এরই মধ্যে গত বুধবার সকালে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে মো. সমুন নামে একজনকে ও গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে চান্দিনা বাসস্ট্যান্ড থেকে মাসুম নামে একজনকে গ্রেফতার করা হয়। দুইজনই ওই হত্যা মামলার এজহার নামীয় আসামি।

এদিকে এ খুনের ঘটনার একটি সিসিটিভি ফুটেজ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। দুই মিনিট ৪৯ সেকেন্ডের ভিডিওটিতে দেখা যায়, কাউন্সিলর সোহেলের কার্যালয় থেকে পশ্চিম দিকে সুজানগর-পাথুরিয়াপাড়াসড়কে মুখোশপরা দুই যুবক প্রকাশ্যে গুলি করছেন। এ সময় আশপাশের সব দোকানপাট বন্ধ ছিল। রাস্তা ছিল ফাঁকা। তবে এ সময় অস্ত্রধারিদের লক্ষ্য করে স্থানীয়রা ইটপাটকেল নিক্ষেপ করলে উত্তেজিত হয়ে গুলি ছুড়তে ছুড়তে পালিয়ে যায় তারা। ভিডিও ফুটেজে এক যুবকের হাতে দুটি এবং আরেক যুবকের হাতে একটি পিস্তল দেখা যায়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: কাউন্সিলর সোহেল হত্যা


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ