Inqilab Logo

শুক্রবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২২, ১৪ মাঘ ১৪২৮, ২৪ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

পটুয়াখালীতে দুই পরিবারের সবাইকে অচেতন করে চুরি, হাসপাতালে ভর্তি ৭ জন

পটুয়াখালী জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৬ নভেম্বর, ২০২১, ৭:৫৯ পিএম

পটুয়াখালীর শহর সংলগ্ন খলিসাখালী গ্রামের ২ পরিবারের ৭ জনকে অচেতন করে ঘরের আলমারি ভেঙ্গে নগদ টাকা ও স্বর্ণালংকার লুট করে নিয়ে যায়। শনিবার (২৬ নভেম্বর) সকালে ওই দুই পরিবারের ঘুমে অচেতন ৭ জনকে পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৫ নভেম্বর) রাত ১১ টার দিকে পটুয়াখালী সদর উপজেলার বদরপুর ইউনিয়নের খলিসাখালী গ্রামের সুশিল কুমারের বাড়িতে অভিনব কায়দায় এ চুরির ঘটনা ঘটে।

হাসপাতালে ভর্তিকৃতরা হচ্ছেন সুশান্ত কুমার পাল (৪৮), সবিতা রানী (৪২), সুদীপ্ত কুমার পাল (১৯), সুজাতা পাল (১৮), সিবু পাল (৫০), নলিতা রানী (৪০) ও উষা রানী (৬০)।

হাসপাতালে ভর্তি সুদীপ্ত কুমার পাল বলেন, বৃহস্পতিবার রাত ৮ টার দিকে আমার বোন সুজাতা ভাত খাওয়ার পরে অসুস্থ হয়ে পরেন। কয়েকবার বমি করার পরে বিষয়টি আমার বাবাকে জানালে সে দোকান থেকে ঔষধ নিয়ে আসে। ঔষধ খাওয়ার পরে সুজাতা ঘুমিয়ে যায়। পারে আমরা ১০ টার দিকে খাওয়া-দাওয়া শেষে ঘুমিয়ে যাই। কিন্তু ঘুমাতে বিছানায় ঠিক মতো যেতে পারছিলাম না। শনিবার সকালে স্থানীয়রা আমাদেরকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসেন।

তিনি আরও বলেন, ঘরের দরজা ভিতর থেকে দেয়া ছিলো। যারা খাবারের সাথে অচেতন করার ঔষধ দিয়েছে তারা ঘরের মধ্যে কোথাও লুকিয়ে ছিলো মনে হচ্ছে। আমারা খাবার খেয়ে অচেতন হওয়ার পরে তারা নগদ টাকা ও স্বর্ণালংকার সব কিছু নিয়ে পালিয়ে যায়। বৃহস্পতিবার দুপুরে সুদীপ্তর বাবা সুশান্ত কুমার পাল ব্যাংক থেকে টাকা তোলেন । কোন ব্যাংক থেকে এবং কত টাকা তোলেন বিষয়টি জানা যাবে তার জ্ঞান আসার পরে।

সুশান্ত কুমার পালের বাবা সুশিল কুমার পাল বলেন, ঘটনার সময় আমরা পাশের ঘরে ছিলাম। রাত সাড়ে ১০ টার দিকে সিবু পাল ভাত খেয়ে রাস্তায় গিয়ে কয়েকবার বমি করে। পরবর্তীতে সে তার ঘরে গিয়ে ঘুমিয়ে পরে। সকালে ঘরের দরজা খোলা ছিলো, অনেক বেলা হওয়ার পরেও কেউ ঘুম থেকে না ওঠায় পরে তাদের ঘরে গিয়ে সবাইকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করি।দেখি এ অবস্থায় উদ্ধার করি।

দুর্বৃত্তরা কি কি মালামাল নিয়েছে ওই দুই পরিবারের সদস্যদের জ্ঞান না আসা পর্যন্ত সঠিক ভাবে বলা যাচ্ছেনা। তবে তার স্বজনরা ধারনা করছেন দুই ঘর থেকে নগদ টাকা ও স্বর্ণালংকারসহ ৫ লক্ষ টাকার মালামাল নিয়ে গেছে।

পটুয়াখালী সদর থানায় ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ মনিরুজ্জামান বলেন, ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এবিষয়ে অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পটুয়াখালী


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ