Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার ২৪ মে ২০১৯, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ১৮ রমজান ১৪৪০ হিজরী।

রাজধানীতে অজ্ঞান পার্টির ১৯ সদস্যসহ ২২ জন গ্রেফতার

পুলিশ বলছে, এখন থেকে গণপরিবহনে যে কোনো ধরনের খাবার বিক্রি বন্ধ

প্রকাশের সময় : ২১ অক্টোবর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

স্টাফ রিপোর্টার : রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা থেকে অজ্ঞান পার্টির ১৯ সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছে। পৃথক অপর এক অভিযানে অস্ত্র ও গুলিসহ তিন সন্ত্রাসীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
রাজধানীর যাত্রাবাড়ী, সায়েদাবাদ ও গাবতলী বাসস্ট্যান্ড, বংশাল, ভাটারাসহ কমলাপুর বিআরটিসি বাসস্ট্যান্ড এবং রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে অজ্ঞান পার্টির  সদস্যদের গ্রেফতার করা হয়। গতকাল ঢাকা মহানগর পুলিশের যুগ্ম কমিশনার আবদুল বাতেন এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান।
তিনি সাংবাদিকদের জানান, রাজধানীর গণপরিবহনে বন্ধ হতে যাচ্ছে যেকোনো ধরনের খাবার বিক্রি। এ ব্যাপারে খুব দ্রুত সিদ্ধান্ত গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করা হবে। ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরো বলেন, যাত্রীদের নিরাপত্তার স্বার্থেই মহানগর পুলিশের পক্ষ থেকে এ ধরনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।
তিনি জানান, আটককৃত অজ্ঞান পার্টির সদস্যদের কাছ  থেকে ঘুমের ওষুধ মেশানো হালুয়া ও চেতনানাশক ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়। ঢাকা মহানগর বিভিন্ন এলাকা থেকে অজ্ঞান পার্টির সন্দেহভাজন ১৯ সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এছাড়াও যাত্রাবাড়ী এলাকা থেকে অস্ত্র ও গুলিসহ আরো ৩ জনকে আটক করা হয়েছে।
আসামিরা মহানগরীর বিভিন্ন এলাকার বাস, সিএনজি, রেলস্টেশন ও লঞ্চঘাটে অবস্থানরত নিরীহ ও সাধারণ যাত্রীদের টার্গেট করে তাদেরকে কৌশলে বিভিন্ন প্রকার জুস, শরবত ও হালুয়ার সাথে  চেতনানাশক ওষুধ মিশ্রিত করে খাওয়ানোর পর অজ্ঞান করে তাদের সর্বস্ব লুটে নিয়ে যায়। সাধারণত এরা যাত্রীবেশে কিংবা হকার, চা ও পান বিক্রেতা সেজে কৌশলে এ ধরনের প্রতারণা করে থাকে বলে পুলিশ জানিয়েছে।
ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা বিভাগের ডেমরা জোনাল টিম গতকাল যাত্রাবাড়ী এলাকা থেকে অস্ত্র ও গুলিসহ তিনজনকে গ্রেফতার করেছে। গ্রেফতাকৃতরা হলোÑ মো: আলমগীর হোসেন (২০),  মো: শাহেদ আলী (২১) ও মোঃ সুমন মিয়া (৩২)। এ সময় তাদের কাছ থেকে একটি পিস্তলসহ ৩ রাউন্ড গুলি ও একটি রিভলবারসহ ৪ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়। গ্রেফতারকৃত আসামিরা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানায়, তারা সায়েদাবাদ বাসস্ট্যান্ড এলাকায় আধিপত্য বিস্তার, চাঁদাবাজি ও সন্ত্রাসী কর্মকা- পরিচালনার জন্য অস্ত্র ও গুলি তাদের হেফাজতে  রেখেছিল। গত ঈদুল আজহার সময় যশোরের বেনাপোল থেকে ৯০ হাজার টাকা দিয়ে এসব অস্ত্র কিনেছিল বলে পুলিশ জানিয়েছে। গ্রেফতারকৃত আলমগীর ও শাহেদ আলীর বাড়ি চুয়াডাঙ্গা জেলার জীবননগর থানার হরিপুর গ্রামে এবং সুমন মিয়ার বাড়ি রাজধানীর যাত্রাবাড়ী এলাকায়। অপর এক অভিযানে ডিবির  ডেমরা জোনাল টিম ১০০ গ্রাম হেরোইনসহ রাজধানীর বংশালের  ফ্রেঞ্চ রোড এলাকা থেকে মো: জুয়েল নামে এক মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে। গ্রেফতারকৃত জুয়েল হেরোইন  কেনাবেচা করে বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছে।  
ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের বিভিন্ন টিমের অভিযানে গ্রেফতার অজ্ঞান পার্টির ১৯ সদস্যকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।
গ্রেফতাকৃতরা হলোÑ মো: জামাল (৩৫), মো: সাঈদ (২৪), মো: রানা (২০), এনামুল হক ওরফে এনাম (২৮), মো: আবু হোসেন (২৬), মো: আরিফ হোসেন (২৩), মো: মনা (২২), মো: আলমাস শেখ (২৭), মো: ইমরান আলী (১৯), মো: মিলন পাটোয়ারী (২২), মো: মিলন ওরফে পেটকাটা মিলন (২৬), মো: রানা (২১), মো: আলমগীর (২২), মো: সজিব (২৯), মো: রুবেল (২৪), মো: মানিক রহমান ওরফে সাজু (৩০), মো: সাকিল সিদ্দিক (২৬), মো: সুজন (২৪) এবং মো: জয়নাল (২৮)।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ