Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২২, ০৪ মাঘ ১৪২৮, ১৪ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

নতুন গ্যাস অনুসন্ধান কাজে নামছে তুরস্ক

জনগণকে উচ্চ সুদের ভারে পিষ্ট হতে দেবো না : এরদোগান

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৮ নভেম্বর, ২০২১, ১২:০৪ এএম

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়েব এরদোগান বলেছেন, আমরা আমাদের জনগণকে উচ্চ সুদের ভারে পিষ্ট হতে দেবো না। শুক্রবার এজিয়ান সাগর উপকূলবর্তী ইজমির প্রদেশে ভূমিকম্পে ক্ষতিগ্রস্ত ৫৯৬ বাড়ি ও ১৪৫ দোকান সংস্কারের পর মালিকের কাছে হস্তান্তর করার এক অনুষ্ঠানে এই কথা বলেন তিনি। প্রেসিডেন্ট এরদোগান সুদের হার কম রাখার বিষয়ে তুরস্কের প্রতিজ্ঞা অটুট থাকবে বলে তার বক্তব্যে জানান। তিনি বলেন, তুরস্কের নতুন অর্থনৈতিক নীতি অনুসারে উৎপাদন, কর্মসংস্থান ও আমদানির তুলনায় রপ্তানি বাড়ানোর দিকেই অগ্রাধিকার দেয়া হবে। এদিকে তুরস্কের রাজস্ব ও অর্থ উপমন্ত্রী নুরউদ্দিন নেবাতি সুদের হার অব্যাহতভাবে কমিয়ে আনার নীতি চালু থাকবে বলে ঘোষনা দিয়েছেন। এক টুইট বার্তায় তিনি বলেন, ২০১৩ সাল থেকে যতবারই আমরা সুদের হার কমানোর নীতি গ্রহণ করেছি, আমরা কঠিন বিরোধিতার মুখে পরেছি। এই বার আমরা তা অব্যাহত রাখতে বদ্ধপরিকর। টুইটবার্তায় তিনি বলেন, তুর্কি লিরার ওপর কৃত্রিম আক্রমণ এর স্থায়ী কোনো ক্ষতি করবে না। শনিবার মার্কিন এক ডলারের বিপরীতে তুর্কি লিরার মান ১২.২৫ পর্যন্ত দাঁড়িয়েছে। এর আগে গত মঙ্গলবার তুর্কি লিরার মান ১৩.৪৫ কমার রেকর্ড স্পর্শ করে। তুরস্কের কেন্দ্রীয় ব্যাংক চলতি বছর সুদের হার ১৮ শতাংশ কমিয়ে ক্রমান্বয়ে ১৫ শতাংশ পর্যন্ত এনেছে। অপর এক খবরে বলা হয়, ২০২৩ সালের গ্রীষ্মে তুরস্কের নতুন গ্যাস অনুসন্ধানকারী জাহাজ কার্যক্রম শুরু করবে, জানিয়েছেন দেশটির জ্বালানি এবং প্রাকৃতিক সম্পদমন্ত্রী ফাতিহ দোনমেজ। বৃহস্পতিবার তুরস্কের মন্ত্রী এ তথ্য জানান। ফাতিহ দোনমেজ বলেন, তুরস্কের চতুর্থ অনুসন্ধান জাহাজ অনুসন্ধান কার্যক্রম শুরু করবে আগামী গ্রীষ্মে। নতুন এ অনুসন্ধান জাহাজ সমুদ্রে কঠিন পরিস্থিতিতেও নিজের কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে পারবে। এটি চলতি বসন্তে বহরে যোগ দেবে। গত বছর তুরস্কের তেল-গ্যাস অনুসন্ধানকারী জাহাজ ফাতিহ কৃষ্ণ সাগরের পশ্চিমাঞ্চলে ৪০৫ বিলিয়ন ঘনমিটার প্রাকৃতিক গ্যাস আবিষ্কার করেছিল। এটি ছিল তুরস্কের ইতিহাসের সবচেয়ে বড় আবিষ্কার। এর পর কৃষ্ণ সাগরে আরও ১৩৫ বিলিয়ন ঘনমিটার গ্যাস আবিষ্কার করে তুরস্ক। এ নিয়ে কৃষ্ণ সাগর এলাকায় তুরস্কের গ্যাস আবিষ্কারের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৫৪০ বিলিয়ান ঘনমিটারে। তুরস্ক তার তিনটি অনুসন্ধানকারী জাহাজের দুটি ফাতিহ এবং কানুনি তেল-গ্যাস খোঁজার কাজে গতি আনার জন্য ব্যবহার করেছে। এ তিনটির সঙ্গে নতুন অনুসন্ধানকারী জাহাজ যোগ হলে দেশেটির গ্যাস অনুসন্ধান কার্যক্রম আরও গতি পাবে এতে কোনো সন্দেহ নেই। তুরস্ক তেল-গ্যাসের চাহিদা মেটায় রাশিয়া, আজারবাইজান, যুক্তরাষ্ট্র, ইরান, নাইজেরিয়া ও আলজেরিয়ার কাছ থেকে আমদানির মাধ্যমে। আর এলএনজি আমদানি করে কাতার থেকে। গতবছর ৪৮.১ বিলিয়ন ঘনমিটার গ্যাস আমদানি করে তুরস্ক। ডেইলি সাবাহ, হুররিয়াত ডেইলি নিউজ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: তুরস্ক


আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ