Inqilab Logo

শুক্রবার, ২১ জানুয়ারী ২০২২, ০৭ মাঘ ১৪২৮, ১৭ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

স্নায়ু চাপ উৎরে জাভিকে স্বস্তি দিল বার্সা

৩২ বছর পর আতালান্তার জুভেন্টাস : ফিরেই হলান্ড-বায়ার্নের রেকর্ড

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৯ নভেম্বর, ২০২১, ১২:০১ এএম

এখনও ঠিকভাবে পায়ের নিচে মাটি খুঁজে পাননি বার্সেলোনার কোচ হয়ে আসা সাবের কিংবদন্তি জাভি হার্নান্দেস। তার আগে প্রতি ম্যাচেই তার  স্নায়ু পরীক্ষা নিচ্ছে শিষ্যরা। এই যেমন আগের ম্যাচের মতো গতপরশু রাতেও আরও একবার আত্মবিশ্বাসী শুরুর পর দিক হারাতে বসেছিল কাতালান জায়ান্টরা। মাঝে ছন্দপতনের পর গোল মিললেও একসময় পয়েন্ট হারানোর শঙ্কা পেয়ে বসেছিল। তবে ভিয়ারিয়ালের ভুলের সুযোগ কাজে লাগিয়ে কাক্সিক্ষত জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ল জাভির দল।
প্রতিপক্ষের মাঠে লা লিগার ম্যাচটি ৩-১ গোলে জিতেছে বার্সেলোনা। ফ্রেংকি ডি ইয়ংয়ের গোলে তারা এগিয়ে যাওয়ার পর সমতা টানেন স্যামুয়েল। শেষ দিকে মেম্ফিস ডিপাই দলকে আবারও এগিয়ে নেওয়ার পর ব্যবধান বাড়ান ফিলিপে কৌতিনিয়ো।
চলতি লিগে প্রতিপক্ষের মাঠে এটাই তাদের প্রথম জয়। আর তাতে লা লিগায় ১৪ ম্যাচে বার্সেলোনার জয় গিয়ে ঠেকল ছয়ে। সঙ্গে পাঁচ ড্রয়ে ২৩ পয়েন্ট নিয়ে সাত নম্বরে তারা। ১৬ পয়েন্ট নিয়ে ১২ নম্বরে ভিয়ারিয়াল। ১৩ ম্যাচে ৩০ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে রিয়াল মাদ্রিদ। ২৯ পয়েন্ট নিয়ে রিয়াল সোসিয়েদাদ দুইয়ে ও ২৮ পয়েন্ট নিয়ে সেভিয়া তিনে আছে। চার নম্বরে আতলেতিকো মাদ্রিদের পয়েন্ট ২৬। এর মধ্যে সোসিয়েদাদ খেলেছে ১৪ ম্যাচ।
একই রাতে, চার দিন আগে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে চেলসির কাছে বিধ্বস্ত হওয়ার হতাশা কাটিয়ে উঠবে কী, উল্টো এবার সিরি ‘আ’য় প্রায় ভুলে যাওয়া এক তেতো স্বাদ পেল জুভেন্টাস। ৩২ বছর পর তাদের মাঠ থেকে জয় নিয়ে ফিরল আতালান্তা। তুরিনে লিগ ম্যাচটি ১-০ গোলে হারে জুভেন্টাস। প্রথমার্ধেই সফরকারীদের জয়সূচক গোলটি করেন কলম্বিয়ান স্ট্রাইকার দুভান জাপাতা। ১৯৮৯ সালের পর এই প্রথম জুভেন্টাসের মাঠে জিতল আতালান্তা। সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে তাদের অপরাজেয় যাত্রা বেড়ে দাঁড়াল আট ম্যাচে। আর সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে দলটির হয়ে টানা সাত ম্যাচে জালের দেখা পেলেন জাপাতা। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে গত মঙ্গলবার চেলসির মাঠে ৪-০ গোলে হারে আগেই প্রতিযোগিতাটির নকআউট পর্বে খেলা নিশ্চিত করা জুভেন্টাস। ২০০৪ সালের পর সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে যা তাদের সবচেয়ে বড় হার। সেবার সেরি আয় রোমার বিপক্ষেও একই ব্যবধানে হেরেছিল তারা। এবার আতালান্তার বিপক্ষে হেরে লিগ শিরোপা পুনরুদ্ধারের লড়াইয়ে আরও পিছিয়ে পড়ল মাসিমিলিয়ানো আল্লেগ্রির দল। ১৪ ম্যাচের পাঁচটিতে হারা জুভেন্টাস ২১ পয়েন্ট নিয়ে আট নম্বরে আছে। শীর্ষে থাকা নাপোলির চেয়ে তারা পিছিয়ে ১১ পয়েন্টে। ১৩ ম্যাচে নাপোলির সমান ৩২ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে আছে এসি মিলান। ১৪ ম্যাচে ২৯ পয়েন্ট নিয়ে তিনে শিরোপাধারী ইন্টার মিলান। সমান ম্যাচে তাদের চেয়ে ১ পয়েন্ট কম নিয়ে চারে আছে আতালান্তা।
এদিকে, চোটের কারণে প্রায় দেড় মাস বাইরে থাকলেও ধার যে এতটুকু কমেনি তার প্রমাণ মাঠে ফিরেই দিলেন আর্লিং হলান্ড। উল্ফসবুর্গের বিপক্ষে বদলি নেমেই বল পাঠালেন জালে। সেই সঙ্গে গড়লেন সবচেয়ে কম বয়সী খেলোয়াড় হিসেবে বুন্ডেসলিগায় ৫০ গোলের অসামান্য কীর্তি। জার্মানির শীর্ষ লিগে প্রতিপক্ষের মাঠে শুরুতে পিছিয়ে পড়ার পর ঘুরে দাঁড়িয়ে ম্যাচটি ৩-১ গোলে জিতেছে বরুশিয়া ডর্টমুন্ড। বাউট বেহোস্টের গোলে ম্যাচের দ্বিতীয় মিনিটেই পিছিয়ে পড়ে ডর্টমুন্ড। ৩৫তম মিনিটে সফল স্পট কিকে সমতা টানেন এমরে কান। আর দ্বিতীয়ার্ধের দশম মিনিটে ডি-বক্সের বাইরে থেকে দোনিয়ের মালেনের গোলে এগিয়ে যায় ডর্টমুন্ড।
৭৩তম মিনিটে মালেনের বদলি নেমেই রেকর্ড গড়েন মধ্য অক্টোবর থেকে নিতম্বের চোটে বাইরে থাকা হলান্ড। মাঠে নামার সাত মিনিট পরই বাঁ দিক থেকে সতীর্থের গোলমুখে বাড়ানো ক্রসে বা বাড়িয়ে ভলিতে বল জালে পাঠান তিনি। আর তাতে ২১ বছর ১২৯ দিন বয়সে বুন্দেসলিগায় ৫০ গোল করলেন হলান্ড। এতদিন রেকর্ডটি ছিল সাবেক জার্মান ফরোয়ার্ড ক্লাউস ফিশার, ২১ বছর ২৯৩ দিন বয়সে আগের রেকর্ডটি গড়েছিলেন তিনি। জার্মানির শীর্ষ লিগে সবচেয়ে কম ম্যাচে ৫০ গোল করার রেকর্ডও এখন হলান্ডের। মাইলফলকটি ছুঁয়েছেন তিনি ঠিক ৫০ ম্যাচে। আগের রেকর্ড ছিল টিমো কোনিয়ৎস্কার, ৬৩ ম্যাচে। চলতি আসরে সাত ম্যাচে হলান্ডের গোল হলো ১০টি।
দিনের আরেক ম্যাচে একটি রেকর্ড গড়েছে বায়ার্ন মিউনিখও। লেরয় সানের একমাত্র গোলে আর্মিনিয়াকে হারিয়েছে শিরোপাধারীরা। বুন্দেসলিগায় ২০২১ সালে বায়ার্নের এটি ১০২তম গোল, ৪৪ বছরের ইতিহাসে যা সর্বোচ্চ। ১৯৭৭ সালে ১০১টি গোল করেছিল কোলোন। বায়ার্ন ও ডর্টমুন্ডের শিরোপা লড়াইও বেশ জমে উঠেছে। ১৩ ম্যাচে ১০ জয় ও এক ড্রয়ে ৩১ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে ইউলিয়ান নাগেলসমানের বায়ার্ন। ১ পয়েন্ট কম নিয়ে দুইয়ে ১০ ম্যাচ জেতা ডর্টমুন্ড।
এছাড়া, লিভারপুলের আক্রমণাত্মক ফুটবলের জবাব খুঁজে পেল না সাউদাম্পটন। দাপুটে পারফরম্যান্সে আরেকটি বড় জয়ে প্রিমিয়ার লিগের পয়েন্ট টেবিলে দ্বিতীয় স্থানে উঠে এলো ইয়ুর্গেন ক্লপের দল। অ্যানফিল্ডে রাতের লিগ ম্যাচে ৪-০ গোলে জিতেছে লিভারপুল। জোড়া গোল করেন দিয়োগো জটা, একটি করে থিয়াগো আলকান্তারা ও ভার্জিল ফন ডাইক। শেষ দিকে গোল পেতে পারতেন সালাহ। তার কয়েকটি প্রচেষ্টা ঠেকান সফরকারী ডিফেন্ডাররা। গত রাউন্ডে আর্সেনালের বিপক্ষেও একই ব্যবধানে জিতেছিল সবশেষ ২০১৯-২০ মৌসুমে লিগ শিরোপা জেতা লিভারপুল।
১৩ ম্যাচে আট জয় ও চার ড্রয়ে ২৮ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে আছে লিভারপুল। এক ম্যাচ কম খেলে ২৯ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে চেলসি। তাদের সমান ম্যাচে ২৬ পয়েন্ট নিয়ে তিন নম্বরে শিরোপাধারী ম্যানচেস্টার সিটি। ২৩ পয়েন্ট নিয়ে চারে ওয়েস্ট হ্যাম ইউনাইটেড। দিনের প্রথম ম্যাচে নিউক্যাসল ইউনাইটেডকে ২-০ গোলে হারানো আর্সেনাল ১৩ ম্যাচে ওয়েস্ট হ্যামের সমান পয়েন্ট নিয়ে পাঁচে আছে।

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বার্সা


আরও
আরও পড়ুন