Inqilab Logo

শনিবার, ২২ জানুয়ারী ২০২২, ০৮ মাঘ ১৪২৮, ১৮ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

ভিয়েনায় পরমাণু সমঝোতা পুনরুজ্জীবনের আলোচনা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১ ডিসেম্বর, ২০২১, ১২:০৫ এএম

ইউরোপীয় ইউনিয়ন বা ইইউ’র পররাষ্ট্রনীতি বিষয়ক উপ প্রধান এনরিক মুরা অস্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনায় ইরানের পরমাণু সমঝোতা পুনরুজ্জীবনের প্রথম দিনের আলোচনাকে ‘অত্যন্ত ইতিবাচক’ বলে বর্ণনা করেছেন। তিনি সোমবার রাতে সাংবাদিকদের বলেছেন, বৈঠকে অংশগ্রহণকারী সকল পক্ষ ইরানের বক্তব্য ও স্পর্শকাতরতা আগ্রহের সঙ্গে শুনেছে এবং ইরানি প্রতিনিধিদলও একথা স্পষ্ট করতে পেরেছে যে, তারা আন্তরিকভাবেই পরমাণু সমঝোতাকে আবার কার্যকর করতে আগ্রহী। ইউরোপের এই শীর্ষস্থানীয় ক‚টনীতিক বলেন, ইরানি প্রতিনিধিদল যথারীতি দেশটির ওপর আরোপিত সব নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের জোর দাবি জানিয়েছে। একইসঙ্গে ইরানের সাবেক সরকারের ক‚টনীতিকরা এর আগে ছয় দফা আলোচনা করে যেসব বিষয়ে ঐকমত্যে পৌঁছেছেন সেসব বিষয়কেও প্রত্যাখ্যান করেনি ইরানি প্রতিনিধিদল। ইরানের সাবেক প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি সরকার চলতি বছরের এপ্রিল থেকে জুন মাস পর্যন্ত পাঁচ জাতিগোষ্ঠীর সঙ্গে ছয় দফা আলোচনা করেছে। জুন মাসে ইরানে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার পর থেকে ওই আলোচনা বন্ধ ছিল। স¤প্রতি নতুন প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রায়িসির পক্ষ থেকে আবার ভিয়েনা আলোচনায় প্রতিনিধি পাঠানোর সিদ্ধান্ত হয় এবং সে সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সোমবার পরমাণু সমঝোতা পুনরুজ্জীবনের সংলাপ শুরু হয়েছে। ২০১৫ সালে জাতিসংঘের পাঁচ স্থায়ী সদস্যদেশ ও জার্মানিকে নিয়ে গঠিত ছয় জাতিগোষ্ঠীর সঙ্গে পরমাণু সমঝোতা সই করে ইরান। ২০১৮ সাল পর্যন্ত এ সমঝোতা কার্যকর ছিল। কিন্তু ওই বছর মার্কিন সরকার আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করে এই সমঝোতা থেকে বেরিয়ে গেলে এটি নিয়ে অচলাবস্থা দেখা দেয় এবং ধীরে ধীরে এটি সম্প‚র্ণ অকার্যকর হয়ে পড়ে। এ অবস্থায় এই সমঝোতাকে আবার কার্যকর করার লক্ষ্যে সোমবার থেকে অস্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনায় আমেরিকাকে বাদ দিয়ে বাকি পাঁচ দেশের সঙ্গে ইরানের সংলাপ শুরু হয়েছে। সংলাপে আমেরিকা সরাসরি অংশগ্রহণের আগ্রহ প্রকাশ করলেও তেহরানের আপত্তির কারণে দেশটিকে আলোচনার বাইরে রাখা হয়েছে। ইরান যৌক্তিকভাবে বলেছে, আমেরিকা যেহেতু পরমাণু সমঝোতার কোনো অংশ নয় তাই দেশটি এই আলোচনায় অংশ নিতে পারবে না। রয়টার্স।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইইউ


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ