Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার ২৭ জুন ২০১৯, ১৩ আষাঢ় ১৪২৬, ২৩ শাওয়াল ১৪৪০ হিজরী।

গুলশান, নারায়ণগঞ্জ ও কল্যাণপুর নিহত ১৮ জঙ্গির ভিসেরা রিপোর্টে মাদক গ্রহণের প্রমান মেলেনি

প্রকাশের সময় : ২২ অক্টোবর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

স্টাফ রিপোর্টার : গুলশান, নারায়ণগঞ্জ ও কল্যাণপুরে নিহত ১৮ জঙ্গির ভিসেরা ও রক্তের রিপোর্টে জঙ্গিদের মাদক গ্রহণের কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি। জঙ্গিরা তাদের আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়েই নৃশংসতা ঘটিয়েছে বলে মনে করেন জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের সহকারী অধ্যাপক ডা. মো. হেলাল উদ্দিন আহমেদ।
গতকাল শুক্রবার দুপুরে তিনি সাংবাদিকদের এ কথা বলেন।
হেলাল উদ্দিন আহমেদ বলেন, তারা মোটিভেটেড ছিল এবং ঠা-া মাথায়, পরিকল্পিতভাবেই নৃশংসতা ঘটিয়েছে। এ ধরণের নৃশংসতা ঘটাতে মাদক গ্রহণ করতেই হবে, এমনটি নয়। জঙ্গিদের একটি নিজস্ব আদর্শ রয়েছে, সেই আদর্শ থেকেই তারা নৃশংসতা ঘটিয়েছে। আমাদের কমান্ডো বাহিনী, পুলিশ যেসব অভিযান চালিয়ে জঙ্গিদের নিধন করেছে, তারা মাদক না নিয়েই অপারেশন পরিচালনা করে সফলতা অর্জন করেছেন। বিশ্বে সংঘটিত যুদ্ধে যারা নিহত হন, তারা নিশ্চই মাদক গ্রহণ করে যুদ্ধের ময়দানে নামেন না।
হত্যা করা জঙ্গিদের মূল লক্ষ্য ছিল না উল্লেখ করে হেলাল উদ্দিন আহমেদ বলেন, শুধু হত্যাই যদি তাদের মূল লক্ষ্য হতো, তবে হত্যার পর ধারালো অস্ত্র ব্যবহার করত না লাশের উপর। এটা করে তারা ভীতি ছাড়াতে চেয়েছে এবং তারা সফলভাবে সেটি করতে পেরেছে।
হেলাল উদ্দিন আহমেদ বলেন, জঙ্গিরা আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী, পরিবার-সমাজ থেকে নিজেকে আড়াল করে রাখে। এতে তাদের মধ্যে এক ধরণের মানসিক চাপ তৈরি হয়। এই চাপ দূর করতে হয়তো তারা মাদকের আশ্রয় নিতে পারে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: গুলশান


আরও
আরও পড়ুন