Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ২০ জানুয়ারী ২০২২, ০৬ মাঘ ১৪২৮, ১৬ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

বর্ধিত ভাড়া আদায়ের নামে যাত্রী হয়রানি বন্ধে লিগ্যাল নোটিশ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৩ ডিসেম্বর, ২০২১, ১২:০০ এএম

সারা দেশের গণপরিবহনে বেআইনি, অযৌক্তিক ও অস্বাভাবিক ভাড়া বৃদ্ধি, বর্ধিত ভাড়া আদায়ের নামে সাধারণ যাত্রীদের হয়রানি বন্ধে ব্যবস্থা নিতে লিগ্যাল নোটিশ পাঠানো হয়েছে।
গতকাল বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্টের অ্যাডভোকেট আবু তালেব এ নোটিশ দেন। সড়ক পরিবহন সচিব, বিআরটিএ চেয়ারম্যান ও বিআইডব্লিউটিএ চেয়ারম্যানকে এ নোটিশ পাঠানো হয়।

নোটিশে বলা হয়, যাত্রীদের হয়রানি বন্ধে ঢাকাসহ সারা দেশে যেসব গণপরিবহন পেট্টোল, ডিজেল ও গ্যাসে চলে তা নির্ধারণ করে প্রতিটি গণপরিবহনে বিআরটিএর লোগোসহ পরিবহনের সামনে ও পিছনে প্লেট আকারে সাঁটাতে হবে, যাতে যাত্রীরা বুঝতে পারেন যে, কোন পরিবহনটি গ্যাসে চালিত, আর কোনটি পেট্টোল কিংবা ডিজেলে চালিত। এতে তাদের প্রতারিত হওয়ার সুযোগ কমে যাবে। ঢাকা শহরসহ দেশের সব রুটের স্টপেজ টু স্টপেজের কোথার ভাড়া কত, তা নির্ধারণ করে প্রচলিত আইন অনুযায়ী সব পরিবহনের মালিক-শ্রমিকদের ভাড়া চার্ট টানানো বাধ্যতামূলক করতে হবে। সুনির্দিষ্ট স্টপেজে সাইনবোর্ড কিংবা ইলেকট্রনিক বিলবোর্ডে সেগুলো লিখে ডিসপ্লে করতে হবে, যাতে যাত্রীরা ভাড়া সম্পর্কে সঙ্গে সঙ্গে অবগত হতে পারেন। ভাড়া নির্ধারণের আইনি ভিত্তি কী-এটি কি মালিকদের দাবির মুখে অনুমোদন দেয়া হয়, না কিলোমিটারপ্রতি বাস ও লঞ্চের ভাড়া নির্ধারণে সংসদ প্রণীত আইনের অধীনে কখন ও কত বছর পর ভাড়া বাড়ানো হবে এ মর্মে কোন বিধি রয়েছে- তার স্পষ্ট ব্যাখ্যা দিতে হবে। ছাত্র-ছাত্রীদের বাস ও লঞ্চ ভাড়া অর্ধেক নেয়ার সিদ্ধান্ত অনতিবিলম্বে প্রজ্ঞাপন ও বিজ্ঞাপন আকারে প্রকাশ করতে হবে।

সারা দেশে কতগুলো বাস ও লঞ্চ তথা গণপরিবহনের ফিটনেস সার্টিফিকেট আছে ও কতগুলোর নেই- তা দ্রুত জানাতে হবে। কত সংখ্যক ড্রাইভারের লাইসেন্স আছে তাও জানাতে হবে। ‘ওয়ে-বিল’ মানুষ ঠকানোর একটি হাতিয়ার মাত্র। এটার কথিত প্রয়োগ যথাশিগগির বন্ধ ও বাতিল করতে হবে। আনুষঙ্গিক অন্য সব কাজ যা যাত্রীকল্যাণে করা দরকার, তা দ্রুত বাস্তবায়ন করতে হবে।

নোটিশে বলা হয়, উক্ত কাজগুলো করা আপনাদের (যাদের নোটিশ পাঠানো হয়েছে) আইনি দায়িত্ব ও কর্তব্য। এগুলো না করতে পারার ব্যর্থতার দায় ও দায়িত্বও আপনাদের। নোটিশ প্রাপ্তির সাত দিনের মধ্যে কার্যকর ব্যবস্থা না নিলে সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে- মর্মে হুঁশিয়ারি দেয়া হয়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: লিগ্যাল নোটিশ


আরও
আরও পড়ুন