Inqilab Logo

সোমবার, ০৮ আগস্ট ২০২২, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৯, ০৯ মুহাররম ১৪৪৪ হিজরী

হাফপাস অনুগ্রহ নয়, অধিকার

চিঠিপত্র

| প্রকাশের সময় : ৫ ডিসেম্বর, ২০২১, ১২:০৪ এএম

অবিলম্বে শিক্ষা কল্যাণে দেশব্যাপী আইনসিদ্ধ হাফপাশ চাই। যদিও শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে পড়ে ১ ডিসেম্বর থেকে কেবল রাজধানীর ভেতরে শিক্ষার্থীদের জন্য বাস ভাড়া অর্ধেক কার্যকরের সিদ্ধান্ত নিয়েছে তথাকথিত বাস মালিক সমিতি। তাহলে প্রশ্ন জাগে রাজধানী ঢাকার বাহিরে কি কোনো শিক্ষার্থী নেই, নাকি ঢাকার বাইরের শিক্ষার্থীদের ধনী ভাবা হচ্ছে? রাষ্ট্রীয় সিদ্ধান্তে এমন বৈষম্য কোনো যুক্তিতেই মানা যায় না। যদি তা না হয়, তাহলে ঢাকার ভেতর ও বাইরে দুই নিয়ম হয় কীভাবে? এছাড়া ছুটির সময় হাফ ভাড়া নেওয়া হবে না, তার মানে ছুটিতে শিক্ষার্থীদের ছাত্রত্ব চলে যায়? পাকিস্তান আমলেই আন্দোলন করে হাফ ভাড়ার অধিকার আদায় করেছে শিক্ষার্থীরা। আইনগত ভিত্তি না থাকলেও প্রথানুযায়ী হাফ ভাড়া শিক্ষার্থীদের অধিকার। স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয়ে ‘১১ দফা’ নামে শিক্ষার্থীদের ঐতিহাসিক রাজনৈতিক কর্মসূচিতে হাফ ভাড়ার বিষয়টি উল্লেখ ছিল। দেশে যখন ডিজেলের মূল্যবৃদ্ধির অজুহাতে জনগণকে জিম্মি করে ধর্মঘট ডেকে গাড়িভাড়া বাড়িয়ে নিলেন পরিবহনমালিকেরা। নতুন নির্ধারিত ভাড়ায় সাধারণ যাত্রীদেরই নাভিশ্বাস উঠে যাচ্ছে, বাড়তি ভাড়া তো আছেই, সেটি শিক্ষার্থীদের জন্য বড় বোঝা হয়ে দাঁড়ালো। স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া মধ্যবিত্ত পরিবারের সন্তানদের দৈনন্দিন বাড়তি যাতায়াত খরচ যোগাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে। শিক্ষার্থীদের নির্দিষ্ট কোনো আয় রোজগার নেই। কেউ পরিবারের টাকায়, কেউ টিউশনি আবার কেউ পার্টটাইম জব কিংবা অন্য কোনো উপায়ে টাকা ম্যানেজ করে চলতে হয়; মূলত সেই পরিস্থিতিতে শিক্ষার্থীদের জন্য হাফ ভাড়ার প্রচলন ঘটে বহু পূর্ব থেকেই। কিন্তু দুঃখের বিষয়, হাফ ভাড়া দিতে গেলে কখনো শিক্ষার্থীদের অপমান, কখনো বাস থেকে ঠেলে নামিয়ে দেয়া হচ্ছে। এমনকি শিক্ষার্থীদের সঙ্গে বাসশ্রমিকদের তর্কাতর্কি এবং পরিবহন চালকদের বেপরোয়া গাড়ি চালানো ও কর্মচারীদের দুর্ব্যবহার ক্রমশ বেড়েই চলছে। অতএব, এসব কিছুর স্থায়ী নিষ্পত্তি লক্ষ্যে অবিলম্বে শিক্ষার্থীদের ন্যায্য অধিকার হাফ ভাড়ার আইন সংসদে পাস করে তা সারাদেশে সঠিকভাবে বাস্তবায়ন করা হোক।
এম. আতহার নূর
শিক্ষার্থী, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: চিঠিপত্র
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ