Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ১৭ মে ২০২২, ০৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৫ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় মসজিদের রাস্তা নিয়ে কোন দখলদারি বরদাশত করা হবে না ইসলামী আন্দোলন মহানগর উত্তর

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৫ ডিসেম্বর, ২০২১, ৪:১২ পিএম

জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমের পূর্ব দিকের প্রবেশ পথকে বন্ধ করে পার্ক নির্মাণ কাজ শুরু করার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ঢাকা মহানগর উত্তরের নেতৃবৃন্দ। আজ রোববার নগর উত্তর আমেলার নিয়মিত মাসিক বৈঠকে সভাপতির বক্তব্যে প্রিন্সিপাল হাফেজ মাওলানা শেখ ফজলে বারী মাসউদ বলেন, জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররম শুধু বাংলাদেশেরই ঐতিহ্য নয়, বরং সারা বিশ্বের মুসলিম উম্মাহ’র একটি অন্যতম প্রতীক। জাতীয় মসজিদকে আরও উন্নত ও আধুনিক করতে উদ্যোগ না গ্রহণ করে উল্টো মসজিদে প্রবেশের রাস্তা বন্ধ করে পার্ক তৈরির চেষ্টায় জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ ও ধর্ম মন্ত্রণালয়ের রশি নিয়ে টানাটানির খবরে জনমনে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। সরকারকে এখনই জাতীয় মসজিদের সম্মান তথা কোটি কোটি মুসলিম জনতার ধর্মীয় অনুভূতি প্রকাশের কেন্দ্রবিন্দুর ভালোবাসা রক্ষায় হটকারী সিদ্ধান্ত থেকে ফিরে আসতে হবে। অন্যথায় সাধারণ জনগণের ক্ষোভের কারণে অনভিপ্রেত পরিস্থিতির দায় সরকার এড়াতে পারবে না। নগর সেক্রেটারী মাওলানা আরিফুল ইসলামের সঞ্চালনায় বৈঠকে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, জয়েন্ট সেক্রেটারী মাওলানা নূরুল ইসলাম নাঈম, সাংগঠনিক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার মুরাদ হোসনে, প্রচার ও দাওয়াহ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার গিয়াস উদ্দিন (পরশ), অর্থ সম্পাদক ডাক্তার মুজিবুর রহমান। নগর সভাপতি শেখ ফজলে বারী মাসউদ আরো বলেন, জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমকে আরো সৌন্দর্যমন্ডিত করতে সউদী সরকারের অর্থায়নে ২৫ কোটি টাকা বরাদ্দ করে মসজিদের মিনার ও সাহান নির্মাণের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেছিলেন প্রধান শেখ হাসিনা। পূর্ব পার্শ্বের মিনার নির্মাণ কাজ অদ্যাবধি শুরু না হলেও ঐ পূর্ব পাশ্বে পার্ক নির্মাণের নামে রাস্তা বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। যা প্রধানমন্ত্রীর জন্যেও অত্যন্ত লজ্জার বলে মনে করি। তিনি আরও বলেন, ২০০৪ সালে ইসলামি ফাউন্ডেশন থেকে অনুমতি নিয়ে পূর্ব পাশের রাস্তায় এনএসসি টাওয়ার নির্মানের সময় মালামাল রেখেছিল। ২০০৭ সাল থেকে জাতীয় ক্রীড়া পরিষদকে ইসলামি ফাউন্ডেশন মুসল্লিদের যাতায়াতের জন্য রাস্তাটি খুলে দিতে বারবার চিঠি দিলেও তাতে কর্ণপাত করেনি ক্রীড়া পরিষদ। আজ উল্টো সেই রাস্তায় দখল করে ধর্মপ্রাণ জনগণকে বিষিয়ে তুলছে এই কুচক্রি মহলটি। ধর্মপ্রাণ মুসল্লিদের অন্তরে আঘাত দিয়ে তাদেরকে রাজপথে নামতে বাধ্য করবেন না। অনতিবিলম্বে পূর্ব পার্শ্বে মুসল্লিদের যাতায়াতের দীর্ঘ দিনের রাস্তা খুলে দেয়ার পাশাপাশি দ্রুততম সময়ের মধ্যে পূর্ব পার্শ্বের মিনার নির্মাণ করতে হবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইসলামী আন্দোলন


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ