Inqilab Logo

বুধবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২২, ০৫ মাঘ ১৪২৮, ১৫ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

ফিলিস্তিনি যুবককে গুলি করে হত্যা

হামলা চালালে ইহুদিবাদীরা চিরতরে ঘুমিয়ে যাবে : ইরান

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৬ ডিসেম্বর, ২০২১, ১২:০৪ এএম

অধিকৃত পূর্ব জেরুজালেমে এক ফিলিস্তিনি যুবককে গুলি করে হত্যা করেছে ইসরাইলি বাহিনী। ইহুদিবাদী পুলিশের দাবি, ফিলিস্তিনি ওই যুবক প্রথমে এক ইহুদিকে ছুরিকাঘাত করে ইসরাইলি এক পুলিশকেও ছুরিকাঘাত করতে যাওয়ার সময় তাকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। জেরুজালেমের দামেস্ক গেটের কাছে শনিবার ওই ইহুদিকে (২০) ছুরি দিয়ে হামলা করা হয়। বর্তমানে আশঙ্কাজনক অবস্থায় চিকিৎসাধীন ওই ইসরাইলি নাগরিক। প্যালেস্টাইন রেড ক্রিসেন্টের মুখপাত্র জানিয়েছেন, ইসরাইলি পুলিশের গুলিতে শনিবার ২৫ বছর বয়সি ওই ফিলিস্তিনি যুবক নিহত হয়েছেন। তাৎক্ষণিকভাবে নিহত যুবকের নাম জানাতে পারেননি ক্রিসেন্টের ওই মুখপাত্র। এদিকে, ইরানের পরমাণু কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে জানিয়ে দেশটির প্রধান পরমাণু আলোচক ও উপ পররাষ্ট্রমন্ত্রী আলী বাকেরি-কানি বলেছেন, ইরানে হামলা চালালে ইহুদিবাদীরা চিরতরে ঘুমিয়ে যাবে। তিনি বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র পরমাণু সমঝোতার নিষেধাজ্ঞাগুলোর পাশাপাশি ‘সর্বোচ্চ চাপ প্রয়োগ’ কর্মসূচির আওতায় ইরানের বিরুদ্ধে যত নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে সেগুলো প্রত্যাহার করতে হবে। ভিয়েনায় পরমাণু সমঝোতা পুনরুজ্জীবনের সপ্তম দফা আলোচনা শেষে তেহরানে ফিরে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরাকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এসব কথা বলেন ইরানের উপ পররাষ্ট্রমন্ত্রী। বাকেরি-কানি বলেন, প্রথম ছয় দফা আলোচনায় যুক্তরাষ্ট্র নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের বিষয়টি পরীক্ষা করে দেখা এবং আর কখনও পরমাণু সমঝোতা থেকে বেরিয়ে না যাওয়ার গ্যারান্টি দিয়েছিল। আমরা যেসব পরিকল্পনা দিয়েছি সেগুলো ২০১৫ সালে স্বাক্ষরিত পরমাণু সমঝোতার গঠনকাঠামোর আওতায়ই দেওয়া হয়েছে। ইসরাইল যদি ইরানের পরমাণু স্থাপনায় হামলা করতে চায় তাহলে কী হতে পারে- আল-জাজিরার এমন প্রশ্নের জবাবে বাকেরি-কানি বলেন, ইহুদিবাদীরা ঘুমের মধ্যে ইরানে হামলা চালানোর স্বপ্ন দেখতে পারে, আর সেরকম স্বপ্ন সত্যি হলে তাদের সে ঘুম আর কোনোদিন ভাঙবে না। এদিকে ইরানের বিমান প্রতিরক্ষা বাহিনী দেশটির মধ্যাঞ্চলীয় নাতাঞ্জ শহরে পরমাণু স্থাপনার পাশ থেকে কয়েকটি ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়ে র‌্যাপিড অ্যাকশন ফোর্সের প্রস্তুতি পরীক্ষা করেছে। হঠাৎ করেই শহরের কাছে কয়েক দফা বিকট শব্দ হওয়ার কারণে শহরবাসী অনেকটা হতবিহŸল এবং বিস্মিত হয়ে পড়েন। ইরানের মধ্যাঞ্চলীয় নাতাঞ্জ শহরে দেশের গুরুত্বপূর্ণ পরমাণু স্থাপনা অবস্থিত। সেখানে ইরান ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণ করে থাকে। টাইমস অব ইসরাইল একটি প্রতিবেদনে বলেছে, শত্রæপক্ষের একটি ড্রোন হামলা ঠেকাতে ইরানের সামরিক বাহিনী ভ‚মি থেকে আকাশে নিক্ষেপযোগ্য ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়েছে। এর আগে ইরানের পরমাণু স্থাপনায় অন্তর্ঘাতমূলক হামলা হয়েছিল এবং তা নিয়ে শহরবাসী মধ্যে এক ধরনের আতাঙ্ক কাজ করছে। নাতাঞ্জ শহরের কাছে এমন একসময় এই ক্ষেপণাস্ত্রের মহড়া চালানো হলো, যখন ইসরাইল বারবার হুমকি দিচ্ছে যে, ইরানকে কোনোমতেই পরমাণু অস্ত্র তৈরি করার সুযোগ দেওয়া হবে না, প্রয়োজনে ইরানের ওপর হামলা চালানো হবে। আরব নিউজ, রয়টার্স।

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ফিলিস্তিন


আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ